পূর্বপ্রস্তুতি : ১১(এগারো)

করণিক আখতার এর ছবি

তুমি ওদেরকে সাধারণভাবে কে বা কারা এই দেশটাকে হানাদার মুক্ত করেছিল?’ জিজ্ঞেস করলে, যদি ওরা সত্যাচারী হয়, তাহলে অবশ্যই ওরা বলবে, নিশ্চয়ই এদেশের জনসাধারণের আন্তরিক সমর্থন এবং সহযোগিতাকেউ-ই আমি বা আমার দলএমন জবাব দিয়ে অন্যদের সাথে দলধ্বংসী কোন্দল বাধাবার ঝুঁকি নেবে না, কেহই সচেতনে মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত করার ব্যর্থ চেষ্টায় আত্মঘাতী হতে চাইবে নাদুঃসময়ের ঘটনাগুলো কেউ-ই ভুলে যায়নি, তবুও দেখা যায়, কেবল বাণিজ্যিক স্বার্থে ওদের একাংশ জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ তো করলোই না, হানাদারদের চেয়েও জঘন্য আচরণের প্রকাশ ঘটালো এদেশের শান্তিকামী জনগণের বিরুদ্ধেসমস্ত অর্জনের সফলতার প্রশংসা নিজেদের দিকে টেনে নিলো আর ঘৃণ্যতম যে কাজটি তারা করলো, সেটা ছিল সনদ প্রদানের মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধাদের বিভক্তিকরণ এবং কোঠা বাণিজ্যসাধারণ জনগণের উন্নতিতে ওরা এমনভাবে বাধা দিল যে, বিশাল সম্ভাবনাময় একটা জনগোষ্ঠী বিশ্বের অন্যান্য রাষ্ট্রগুলোর কাছে দয়াপ্রার্থী হিসেবে পরিচিতি পেলোধর্মব্যবসায়ীরাও ফাঁক ফোকর বুঝে তাদের স্বর্গ বেচার সুযোগটা নিল, মূর্খদের মাঝে তাদের প্রতারণা চালাতে পারলো সমান তালেচূড়ান্ত লাভের এ কারবারে স্বর্গ বিক্রেতারা প্রচূর পরিমাণে জাগতিক সম্পদের মালিকানা পেলো, ক্রেতারা বেহেস্তের টিকেট কিনে নিয়ে তাদের জীবদ্দশায় এ-জগতে দারিদ্র্যের যন্ত্রণা পেয়েও সন্তুষ্ট থাকলোস্বর্গের টিকেটটা ক্রেতার মরদেহের কাফনের সাথে কবরে দেওয়া হচ্ছে কি-না, তাপরখ করে নিচ্ছে তার সঙ্গীদের মধ্যে যারা জীবিত আছে।  দুই ধরণের মুক্তিযোদ্ধা সনদ আর বহু তরিকার স্বর্গের টিকেট বিক্রেতার দখলের এই দেশে, দক্ষ এবং যোগ্য মানবসন্তানগুলো নিজেদের কর্মসংস্থান খুঁজে না-পেয়ে মাদকাসক্তি আর হতাশায় ডুবে যেতে বাধ্য হলোদখলদারেরা অযোগ্য আর লোভীদেরকে খুঁজে খুঁজে কিনে নিয়ে নিয়ে নিজেদের স্বার্থে তাদেরকে যোগ্যদের আসনে বসতে দিলসকল গণবিরোধী কীর্তিকলাপ তারা চালালো তাদের শয়তানি কৌশলেনা-বুঝে অচেতনে কেউ যে কিছু করেনি, তাবোঝা যায় তাদের দেশত্যাগী হওয়ার পূর্বপ্রস্তুতি দেখেযেকোনো সময়ে গণপিটুনি শুরু হবার আভাস পাওয়ামাত্র অন্য কোনো দেশে গিয়ে আশ্রয় নিতে যেন ঝামেলায় পড়তে না-হয়, এরা প্রত্যেকে তার নিজের পছন্দমতো দেশে আগামীতে থাকবার জন্যে নাগরিকত্ব নিয়ে রেখেছেতাদের কেউ কেউ বিলাসবহুল অট্টালিকাও কিনে রেখেছে

গণকরণিক : আখতার২৩৯             বাংলাদেশ : ১৮/১০/২০১৩খ্রি:

ভোট: 
No votes yet