শাহনেওয়াজ খান সুমন
প্রকাশ : ২৯ জুলাই ২০২৩, ১২:০০ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

সুন্দরবনে বাড়ছে বাঘ

বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা নির্ধারণে ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের (ফাঁদ) মাধ্যমে গণনার কাজ চলছে। বন বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, বনের বাংলাদেশ অংশের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চলে বাঘের সংখ্যা বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। তারা ক্যামেরার মাধ্যমে সুন্দরবনের এমন জায়গায় বাঘ দেখতে পেয়েছেন যেখানে আগের শুমারিতে দেখা যায়নি। বাঘশুমারির চূড়ান্ত ফল আগামী বছরের ২৯ জুলাই বিশ্ব বাঘ দিবসে প্রকাশ করা হবে।

বন বিভাগ সূত্র জানায়, ১৯৮২ সালে পরিচালিত প্রথম বাঘ শুমারিতে সুন্দরবনে অন্তত ৪৫৩টি বাঘ পাওয়া গিয়েছিল। ২০০৪ সালের জরিপে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ৪৪০টি। ১৯৯৬-৯৭ সালের জরিপে বাঘের সংখ্যা উল্লেখ করা হয় ৩৫০টি থেকে ৪০০টি। ওই সময়ে বাঘের পায়ের ছাপ পদ্ধতিতে গণনা করা হয়। ২০১৫ সালের জরিপে সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে বাঘের সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ১০৬টিতে। ২০১৮ সালের সর্বশেষ বাঘ জরিপে সুন্দরবনে ১০৬ থেকে বেড়ে বাঘের সংখ্যা দাঁড়ায় ১১৪টিতে।

প্রায় ১০ হাজার বর্গকিলোমিটার আয়তনের সুন্দরবনের ৬ হাজার ১৭ বর্গকিলোমিটার অংশ বাংলাদেশের খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলায় পড়েছে। বাকিটা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলায়। ভারতের ২০১৯ সালের জরিপ অনুসারে বাঘ আছে ৯৬টি। তার দুই বছর আগে ছিল ৮৭টি। আর সর্বশেষ জরিপে বাঘের সংখ্যা দাঁড়ায় ১২৩-এ।

সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় ৩ কোটি ২৪ লাখ ৩৬ হাজার টাকা ব্যয়ে বাঘ গণনা করা হচ্ছে। এরই

মধ্যে সুন্দরবনের সাতক্ষীরা ও খুলনা রেঞ্জে জরিপ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি রয়েছে শরণখোলা, চাঁদপাই ও সাতক্ষীরা নর্থ রেঞ্জ। গণনার কাজে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ে ওই দুই রেঞ্জে বাঘের সংখ্যা আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে। বিশেষ করে, খুলনা রেঞ্জে ২০১৫ ও ২০১৮ সালে করা জরিপে বাঘের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি বললেই চলে। সেই তুলনায় এবার খুলনা রেঞ্জে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বাঘের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। কিছু কিছু স্থানে বড় বাঘের সঙ্গে বাচ্চার ছবিও ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। স্থানীয় ও বন কর্মকর্তারাও ঘন ঘন বাঘের দেখা পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। সুন্দরবনে যাওয়া পর্যটকরাও বাঘ দেখেছেন। ১২ মার্চ সুন্দরবনের মোংলা প্রান্তে একটি পর্যটন এলাকায় চারটি বাঘ দেখা যায়। এ ছাড়া জেলেদের ওপর বাঘের আক্রমণও বেড়েছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, মানুষের আঙুলের ছাপের মতোই বাঘের গায়ের ডোরাকাটা দাগও একেক বাঘের একেক রকম। মূলত ক্যামেরায় ধরা পড়া বাঘের ছাপগুলো আলাদাভাবে বিশ্লেষণ ও গবেষণা পদ্ধতি প্রয়োগ করে বাঘের সংখ্যা নির্ধারণ করা হয়। আগামী ১ নভেম্বর থেকে পূর্ব বন বিভাগের চাঁদপাই ও শরণখোলা রেঞ্জে ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের কাজ শুরু হবে। ২০২৪ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি টানা চার মাসের এই কাজ চাঁদপাই রেঞ্জ দিয়ে শেষ হবে। জরিপের জন্য সুন্দরবনকে ৬৬৮টি গ্রিডে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি গ্রিডে রয়েছে দুটি ক্যামেরা। জরিপে ১ হাজার ৩৩৬টি ক্যামেরা ব্যবহার করা হচ্ছে। এরই মধ্যে সুন্দরবনে ১ হাজার ২০০ কিলোমিটার খাল জরিপ করা হয়েছে। এই খালে বাঘের পায়ের ছাপের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, আপেক্ষিক ঘনত্ব অনুযায়ী বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

সুন্দরবন (পশ্চিম) বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) ও বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্পের পরিচালক (পিডি) ড. আবু নাসের মোহসিন হোসেন কালবেলাকে বলেন, ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের মাধ্যমে আগে যেসব জায়গায় বাঘের উপস্থিতি ছিল না, এখন সেসব জায়গায় বাঘের আনাগোনা পাওয়া গেছে। সার্বিকভাবে মনে হচ্ছে, আগের তুলনায় বাঘের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। বনদস্যু না থাকায় এর সুফল পাওয়া যাচ্ছে। বনে বাঘের সংখ্যা বেশি থাকার মানে হলো সুন্দরবনের ভালো থাকা। তিনি বলেন, ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের সঙ্গে সুন্দরবনের প্রায় ১ হাজার ২০০ কিলোমিটার খাল জরিপ করা হয়েছে। বাঘের পায়ের ছাপের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করা হয়েছে। তাতে দেখা যায়, ২০০৭, ২০০৯, ২০১৫ ও ২০১৮ সালের চেয়ে আপেক্ষিক ঘনত্ব অনুযায়ী বাঘের পায়ের ছাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জরিপ কাজ শেষ হবে। তখনই বলা সম্ভব হবে বাংলাদেশের সুন্দরবনের অংশের বাঘের প্রকৃত সংখ্যা কত।

জানতে চাইলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মোস্তফা ফিরোজ কালবেলাকে বলেন, সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য বাঘের খাবারের জোগান নিশ্চিত করতে হবে। বাঘের নিয়মিত খাদ্য হচ্ছে চিত্রাহরিণ আর বানর। বাঘের সংখ্যা কত হবে, তা চূড়ান্তভাবে খাদ্যের জোগানের ওপরে নির্ভরশীল। এ ছাড়া বাঘ শিকার বন্ধ করতেই হবে। বর্তমানে দেশে বাঘ সংরক্ষণের জন্য উদ্যোগে কোনো ঘাটতি নেই। এবারের বাঘশুমারিতে বাঘের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশা করা যায়।

প্রাকৃতিক পরিবেশে বাঘ টিকিয়ে রাখতে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং বাঘ সংরক্ষণে বৃহৎ জনগোষ্ঠীর সমর্থন আদায়ে প্রতিবছর ২৯ জুলাই বিশ্ব বাঘ দিবস পালিত হয়। বাঘ রয়েছে বিশ্বের এমন ১৩টি দেশে আজ শুক্রবার নানা আয়োজনে বাঘ দিবস পালিত হচ্ছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্যে ‘বাঘ করি সংরক্ষণ, সমৃদ্ধ হবে সুন্দরবন’। এ উপলক্ষে বন বিভাগ নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

বন বিভাগের হিসাব অনুযায়ী, ২০০১ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত সুন্দরবনে বাঘ মারা গেছে কমপক্ষে ৪৬টি। এর মধ্যে প্রাকৃতিক কারণে মারা গেছে ৮টি, শিকারিদের হাতে মারা গেছে ১৩টি, লোকালয়ে প্রবেশ করায় স্থানীয়দের হাতে মারা গেছে ৫টি, দুর্বৃত্তদের হাতে মারা যাওয়া বাঘের চামড়া উদ্ধার হয়েছে ১৯টি ও ২০০৯ সালে ঘূর্ণিঝড় সিডরে মারা গেছে একটি। সর্বশেষ এ বছরের ৬ জানুয়ারি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় র্যাবের অভিযানে একটি বাঘের চামড়া উদ্ধার করা হয়।

বর্তমানে বিশ্বের ১৩টি দেশে ৩ হাজার ৮৪০টি বাঘ প্রকৃতিতে টিকে আছে। বাঘ রয়েছে এমন ১৩ দেশের নেতারা ২০১০ সালে মিলিত হয়েছিলেন রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে। সেই সময় তারা ১২ বছরের মধ্যে নিজ নিজ দেশে বাঘের সংখ্যা দ্বিগুণের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছিলেন। এর মধ্যে নেপাল বাঘের সংখ্যা দ্বিগুণ করেছে। ভারত ও ভুটানও দ্বিগুণের কাছাকাছি নিয়ে গেছে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

গ্রিজমানদের খালি হাতেই ফেরত পাঠালো ইন্টার মিলান  

একটি হুইল চেয়ারের আকুতি প্রতিবন্ধী সিয়ামের

ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে চবিতে ফুলের দাম বেড়েছে ৩ গুন

সীমান্তে শেষবারের মতো বোনের লাশ দেখলো স্বজনেরা

‘উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে কর্মসংস্থান তৈরি করতে চাই’-প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

‘ডাল ভাত খেয়েও যুদ্ধ করতে পারি’

ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

কোম্পানি রিটার্নের মেয়াদ ২ মাস বাড়ানোর দাবি এফবিসিসিআইর

ন্যায্যতা সম্পর্কিত সংসদীয় ককাস / উন্নয়নমূলক পদক্ষেপে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহ্বান 

এমপিদের থোক বরাদ্দের আগে জবাবদিহিতা নিশ্চিতের দাবি টিআইবির

১০

চাকরি গেল জাবির আলোচিত সেই শিক্ষকের

১১

পঞ্চগড়ে বন্যহাতির আক্রমণে যুবক নিহত

১২

অনলাইনে ভিডিও দেখে গামছা বিক্রেতার ছেলের মেডিকেলে চান্স

১৩

বাড়ছে বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম

১৪

‘দুই-তিনটা লাশ ফেলে দেব’- ছাত্রলীগ নেতার হুমকি

১৫

বোরকা পরে বোনের পরীক্ষা দিতে এসে আটক ভাই

১৬

ভক্তদের বিরাট-আনুশকার সুখবর

১৭

নতুন এমপিওভুক্ত মাদ্রাসায় রমরমা ‘ব্যাকডেট’ নিয়োগ বাণিজ্য

১৮

রাসেল ঝড়ে রংপুরকে হারাল কুমিল্লা

১৯

উত্তর বলে দেয় নাবিলা, খাতায় লিখে রহিমা

২০
X