সৌদি আরব প্রতিনিধি
প্রকাশ : ০১ আগস্ট ২০২৩, ০২:৪৬ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

সৌদিতে গৃহকর্মীদের জন্য নতুন আইন

সৌদিতে গৃহকর্মীদের জন্য নতুন আইন

গৃহকর্মীদের জন্য নতুন বিধান চালু করল সৌদি আরব সরকার। এ আইন অনুযায়ী গৃহকর্মীর নিরাপত্তা ও অধিকার রক্ষায় তাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ এবং চুক্তিবহির্ভূত কাজ আদায়কারী নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

সৌদি আরবের মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় সম্প্রতি এ নতুন বিধি জারি করেছে। এতে বলা হয়েছে, গৃহকর্মীর সঙ্গে দুর্ব্যবহারের জন্য দোষী সাব্যস্ত হলে গৃহকর্তাকে এক বছরের নিয়োগ নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হতে হবে। পাশাপাশি নিয়োগকর্তাকে ২ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা করা হবে। শিগগির এ বিধান কার্যকর করা হবে।

বিধানে নিয়োগকর্তার গোপনীয়তা রক্ষায় গৃহকর্মীর বাধ্যবাধকতার কথাও বলা হয়েছে। এ ধরনের অপরাধে গৃহকর্মীর জন্যও শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। বলা হয়েছে, কোনো গৃহকর্মী তার নিয়োগকর্তার গোপনীয়তা লঙ্ঘন করলে ২ হাজার রিয়াল পর্যন্ত জরিমানা করা হবে। সেইসঙ্গে তার কাজের ওপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞাও আসতে পারে। একাধিকবার বিধি লঙ্ঘন করলে ওই কর্মীকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে এবং সে খরচও তাকেই বহন করতে হবে। তবে, গৃহকর্মী জরিমানা দিতে অক্ষম হলে রাষ্ট্র নিজ খরচে তাকে দেশে পাঠিয়ে দেবে।

বিধানে আরও বলা হয়েছে, গৃহকর্মীকে অবশ্যই নিয়োগকর্তার সম্পত্তির মর্যাদা রক্ষা করতে হবে। তার পরিবারের কোনো সদস্যদের ক্ষতি করলে শাস্তির আওতায় আনা হবে। নিয়োগকর্তা ও তার পরিবার সম্পর্কিত তথ্যের গোপনীয়তাও রক্ষা করতে হবে গৃহকর্মীকে। জরিমানা ও দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার শাস্তি এড়াতে চাইলে কর্মীকে অবশ্যই চুক্তিতে উল্লিখিত নিয়মকানুন মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিতে হবে।

নিয়োগকর্তা বিধান লঙ্ঘন করলে তাকেও ২ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা করা হবে। পাশাপাশি এক বছরের জন্য গৃহকর্মী নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হবে। অথবা উভয়ই দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। আর বারবার বিধি লঙ্ঘন করলে জরিমানা ২ থেকে ৫ হাজার সৌদি রিয়াল পর্যন্ত করা হবে। থাকবে তিন বছর পর্যন্ত কর্মী নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা। এ ছাড়া পরপর তিনবার বিধি লঙ্ঘন করলে স্থায়ী নিয়োগ নিষেধাজ্ঞাও পেতে পারেন ওই নিয়োগকর্তা। আইনে আরও বলা হয়েছে, একেবারে প্রয়োজন না হলে কর্মীকে চুক্তির বাইরে কোনো কাজ করানো যাবে না। চুক্তি অনুযায়ী প্রদেয় মাসিক মজুরি নগদ বা ব্যাংক চেক অথবা তাদের অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করতে হবে। এ ছাড়া প্রতিদিন কমপক্ষে ৯ ঘণ্টা গৃহকর্মীকে বিশ্রামের সুযোগ দিতে হবে। শাস্তিমূলক এ ব্যবস্থাগুলো সৌদি আরবের শ্রম আইনের ৭ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ। ওই অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, গৃহকর্মীদের এমন কোনো কাজে নিযুক্ত করা যাবে না, যা তাদের স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা বা মানবিক মর্যাদাকে বিপন্ন করে।

বর্তমানে তিন লাখেরও বেশি বাংলাদেশি গৃহকর্মী দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

অফশোর গ্যাস উত্তোলনে বিদেশি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী

বাকস্বাধীনতা না থাকলে ভাষা থেকেও লাভ হয় না : আনোয়ারউল্লাহ চৌধুরী

‘ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে জ্বালানিতে অতিরিক্ত খরচ ১২ বিলিয়ন ডলার’

৪৫ এর কম এবং ৬৫ এর বেশি বয়সে ব্যাংকের এমডি পদ নয়

শাবিতে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত

বইমেলায় রাশিদুল হাসান বাচ্চুর ‘ওয়াকিং অন দি পাথ অব পোয়েট্রি’

শেষ সময়ে বইমেলার নিরাপত্তায় ঢিলেঢালা

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল চান সাইফুল হক 

জাবির দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ বাতিলের দাবি

শিশু চুরির মামলায় দুই নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

১০

বিআরটিসি যেন আর পিছিয়ে না যায় : তাজুল ইসলাম

১১

ঢাবির নাটমণ্ডলে মঞ্চায়িত হচ্ছে থিয়েটার বিভাগের নাটক ‘সিদ্ধান্ত’

১২

টিআইবির ফেলোশিপ পেলেন সাংবাদিক সজিবুর রহমান

১৩

রংপুরে এরিক ও বিদিশার ওপর হামলার অভিযোগ

১৪

বইমেলার সময় বাড়ল

১৫

রিহ্যাব নির্বাচনে ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের নিরঙ্কুশ জয়

১৬

৬ মাস বিশ্ববাজারে পেট্রোল বিক্রি করবে না রাশিয়া

১৭

ফরিদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ২০

১৮

গাধা বেচবে চিড়িয়াখানা

১৯

রাজধানীতে ৬ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা

২০
X