বশির হোসেন, খুলনা
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০২:১৩ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

আকর্ষণ যখন বাঘের পা

‘বাঘের বাড়ি’ উদ্বোধন ডিসেম্বরে

বাঘের বাড়ি, শুনতেই রোমাঞ্চ ছুঁয়ে যায় মনে। এবার বাঘের বাড়িখ্যাত ৩৫০ বছরের পুরোনো মন্দিরটি পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে। আগামী ডিসেম্বরে উদ্বোধন হবে বাঘের বাড়ি; যা গহিন বনের ভেতর শেখেরটেক এলাকায় অবস্থিত। সেখানে প্রায়ই বাঘের টাটকা পায়ের ছাপ দেখতে পাওয়া যায়। আর যাওয়ার পথেই দেখা মেলে পুরোনো বসতির ধ্বংসাবশেষ। চোখে পড়বে কোনো রকম টিকে থাকা বাড়ির দেয়াল ও ইটের স্তূপ। ওই স্থানে পর্যটক নামার অনুমতি দেয় না বন বিভাগ। তবে শেখেরটেক মন্দির ভ্রমণ করে আসা যাবে। আগামী ডিসেম্বরেই সাধারণ পর্যটকরা যেতে পারবেন নতুন এই পর্যটন কেন্দ্রে। এর মাধ্যমে খুলনা রেঞ্জের কোনো পর্যটন কেন্দ্রে পর্যটকদের প্রবেশাধিকার মিলবে।

সূত্র জানায়, সুন্দরবনে করমজল, হারবাড়িয়া, কটকা, কচিখালী, দুবলার চর, হিরণ পয়েন্ট (নীলকমল), কলাগাছী ও কাগা দোবেকী পর্যটনকেন্দ্র রয়েছে। সুন্দর ও আকর্ষণীয় এই ৮ পর্যটন কেন্দ্রে বছরে প্রায় ২ লাখ পর্যটক ভ্রমণ করেন, যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। পর্যটকের চাপ কমাতে তাই এ বছর থেকে যুক্ত হচ্ছে আরও নতুন চারটি ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র। এরই মধ্যে আন্ধারমানিক ও কালাবগী দুটি উদ্বোধন হয়েছে। আলীবান্দা ও শেখেরটেক উদ্বোধন হবে ডিসেম্বরে। আগে খুলনা রেঞ্জের মধ্যে সুন্দরবন ভ্রমণের কোনো সুযোগ ছিল না। তবে এবার সেই সুযোগ মিলেছে। নতুন চারটি কেন্দ্রের দুটি পড়েছে খুলনা রেঞ্জে।

জানা যায়, ২০২১ সালে নতুন চারটি ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্রের কাজ শুরু হয়। দুটির কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। মূলত এক জায়গায় পর্যটকদের প্রবেশ কমিয়ে আনা, জীববৈচিত্র্য রক্ষা ও বনের অভয়ারণ্য এলাকায় পর্যটকদের চাপ কমিয়ে আনতে ওই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

শেখেরটেক ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্রটিও কালাবগী ফরেস্ট স্টেশনের আওতাধীন। ওই স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল হাকিম বলেন, কালাবগী কেন্দ্র চালু হওয়ার আগেই গত বছর পর্যটক আসতে শুরু করে। এ বছর মৌসুম শুরু হতেই পর্যটক আসা শুরু করেছে। শেখেরটেক ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্রেও পর্যটকরা যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করছেন। তবে আরও কিছু কাজ চলমান। আগামী দুই মাসের মধ্যেই হয়তো ওই কাজ শেষ হয়ে যাবে।

খুলনা অঞ্চলের প্রধান বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো বলেন, নতুন চারটি ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্রের কাজ চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। এরই মধ্যে দুটির কাজ শেষ হওয়ায় সেখানে পর্যটক যাওয়া শুরু করেছে। ডিসেম্বরের মধ্যেই হয়তো শেখেরটেক ও আলীবান্ধা কেন্দ্র দুটি উন্মুক্ত করে দেওয়া যাবে। নতুন কেন্দ্রগুলোতে পর্যটকরা গিয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখাচ্ছেন। আশা করা যায়, এই কেন্দ্রগুলো পর্যটকদের কাছে প্রধান আকর্ষণীয় স্থান হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

জন্মের আগেই নবজাতক বিক্রি, অতঃপর...

ফরিদপুর-৩ / নৌকার প্রার্থী শামীম হকের প্রার্থিতা বাতিলে এ কে আজাদের আপিল

গণহত্যার জাতিসংঘের স্বীকৃতি দাবি জানালেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার এক হাজার প্রতিনিধি 

নবম গ্রেডে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে চাকরি

নারায়ণগঞ্জে ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকে গুলি

পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি পূর্ণ বাস্তবায়নের অপরিহার্যতা বিষয়ে সেমিনার

স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি, নৈশপ্রহরীকে হত্যা

যবিপ্রবিতে চাকরিপ্রার্থীদের আটকে মারধর, ৬ জনের নামে মামলা

ডেঙ্গুতে আরও ৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ২৫১

রাজবাড়ীতে ট্রেন আটকে দিল এলাকাবাসী

১০

জলাশয় ভরাট করে বিএডিসির ল্যাব নির্মাণ বন্ধে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি

১১

শান্তিনগর, শাহজাহানপুর ও আরামবাগে বাহাউদ্দিন নাছিমের মতবিনিময়

১২

শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা আ.লীগের সবচেয়ে বড় শক্তি : নাছিম

১৩

একই সিনেমায় অনুপম-পরমব্রত!

১৪

ইসরায়েলকে সমর্থন করার ফল ১১ কোটি টাকা লোকসান

১৫

মানবাধিকার দিবসে দেশে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চক্রান্ত হচ্ছে : তথ্যমন্ত্রী

১৬

সৌদি আরবে যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত, সব আরোহী নিহত

১৭

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ৩৩০ অভিবাসী আটক

১৮

ইসরায়েলি বিমান হামলায় বিখ্যাত ফিলিস্তিনি কবি নিহত

১৯

‘অযৌক্তিক চাপের’ অভিযোগ তুলে জাতিসংঘে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি

২০
X