কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ৩১ জুলাই ২০২৩, ০৭:০০ পিএম
আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২৩, ০৭:২৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

পরিস্থিতি যাই ঘটুক, আমরা নির্বাচনে অংশ নেব : বিএনএফ সভাপতি

বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদে বিএনএফের চতুর্থ জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত। ছবি : কালবেলা

যেকোনো পরিস্থিতিতে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের (বিএনএফ) প্রেসিডেন্ট এস এম আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, জাতীয় আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি যাই ঘটুক না কেন আমরা নির্বাচনে অংশ নেব।

সোমবার (৩১ জুলাই) বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদে দলের চতুর্থ জাতীয় কাউন্সিল- ২০২৩ এ অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ ঘোষণা দেন।

কাউন্সিলে ঢাকা-১৭ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম আবুল কালাম আজাদ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ড. মাওলানা মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম আল মারুফ পুননির্বাচিত হন।

কাউন্সিলে বিভিন্ন জেলার নেতারা দলকে শক্তিশালি করার তাগিদ দিয়ে বলেন, আগামী নির্বাচনে পার্টি থেকে ৩০০ আসনে প্রার্থী দিতে হবে। কারণ ভোটারদের কাছে দলের গ্রহণযোগ্যতা অনেক বেশি। তাই অনেক আসনে বিএনএফের প্রার্থীদের বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন পরিচালনা করবে একথা উল্লেখ করে আবুল কালাম আজাদ বলেন, তখন ইসিকে সর্বাত্মক সহযোগিতা দিবে রাষ্ট্রপতি ও নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী। নতুন সংসদ গঠন না হওয়া পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার পরিচালিত হবে।

সাংবিধানিকভাবে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাইলে এ সরকারে বিএনএফ অংশ নেবে। প্রধানমন্ত্রী চাইলে নির্বাচনকালীন সরকারে যেকোনো মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিতেও আমরা প্রস্তুত আছি।

সংবিধান সম্মতভাবে সংসদের ভেতরে ও বাইরে দেশে কোনো বিরোধী দল নেই এমন মন্তব্য করে সাবেক এই সংসদ সদস্য বলেন, আগামী দিনে বিএনএফ বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করবে।

কোনো রাজনৈতিক দল অংশ না নিলে আগামী নির্বাচনে ৩০০ আসনে একক প্রার্থী দেওয়া ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, এখন কোনো দলের সঙ্গে বিএনএফ জোটে যাবে না। নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে এলে জোটে যাওয়ার বিষয়ে চিন্তা করব। তবে প্রধানমন্ত্রী চাইলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটে যেতে আপত্তি নেই বলেও জানান তিনি।

বিএনএফ কোনো আন্দোলনে যাবে না জানিয়ে আবুল কালাম আজাদ বলেন, আন্দোলনের দায়িত্ব বিএনপি নিয়েছে। তথাকথিত জাতীয় পার্টিও বিভিন্ন বক্তব্যে আন্দোলন চায়। আমরা আন্দোলন চাই না।

সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, মমতাজ শিল্পী, মজিবুর রহমান, শফিউল্লাহ চৌধুরী (আন্দোলন) প্রমুখ। কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতাদের শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর কাউন্সিল অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

২১ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

ইতিহাসের এই দিনে যত ঘটনা

গ্রিজমানদের খালি হাতেই ফেরত পাঠাল ইন্টার মিলান  

একটি হুইল চেয়ারের আকুতি প্রতিবন্ধী সিয়ামের

ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে চবিতে ফুলের দাম বেড়েছে ৩ গুণ

সীমান্তে শেষবারের মতো বোনের লাশ দেখলো স্বজনেরা

‘উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে কর্মসংস্থান তৈরি করতে চাই’-প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

‘ডাল ভাত খেয়েও যুদ্ধ করতে পারি’

ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

কোম্পানি রিটার্নের মেয়াদ ২ মাস বাড়ানোর দাবি এফবিসিসিআইর

১০

ন্যায্যতা সম্পর্কিত সংসদীয় ককাস / উন্নয়নমূলক পদক্ষেপে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহ্বান 

১১

এমপিদের থোক বরাদ্দের আগে জবাবদিহিতা নিশ্চিতের দাবি টিআইবির

১২

চাকরি গেল জাবির আলোচিত সেই শিক্ষকের

১৩

পঞ্চগড়ে বন্যহাতির আক্রমণে যুবক নিহত

১৪

অনলাইনে ভিডিও দেখে গামছা বিক্রেতার ছেলের মেডিকেলে চান্স

১৫

বাড়ছে বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম

১৬

‘দুই-তিনটা লাশ ফেলে দেব’- ছাত্রলীগ নেতার হুমকি

১৭

বোরকা পরে বোনের পরীক্ষা দিতে এসে আটক ভাই

১৮

ভক্তদের বিরাট-আনুশকার সুখবর

১৯

নতুন এমপিওভুক্ত মাদ্রাসায় রমরমা ‘ব্যাকডেট’ নিয়োগ বাণিজ্য

২০
X