কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২৫ আগস্ট ২০২৩, ০২:২৩ পিএম
আপডেট : ২৫ আগস্ট ২০২৩, ০৫:১২ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

শামা ওবায়েদ-সানজিদা খানমের মধ্যে বাগবিতণ্ডা, ভিডিও ভাইরাল

বাঁ থেকে শামা ওবায়েদ ও সানজিদা খানম। ছবি: সংগৃহীত
বাঁ থেকে শামা ওবায়েদ ও সানজিদা খানম। ছবি: সংগৃহীত

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়েছে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট সানজিদা খানমের।

সম্প্রতি (২২ আগস্ট) বেসরকারি টেলিভিশন এটিএন নিউজের ‘নিউজ আওয়ার এক্সট্রা’ শিরোনামের এক টকশোতে অংশ নেন এই দুই নেত্রী। এ সময় সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে আলাপকালে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তারা। এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

ভিডিওতে দেখা যায়, টকশো উপস্থাপক শামা ওবায়েদের কাছে জানতে চান, আওয়ামী লীগ যদি তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেয়, সেই তত্ত্বাবধায়কের অধীনে বিএনপি যদি পরাজিত হয়, তা হলে এ ফল বিএনপি মেনে নেবে কিনা?

জবাবে শামা ওবায়েদ বলেন, বিএনপি তো বিগত দিনে তত্ত্বাবধায়কের অধীনে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল। সেখানে কি ফল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল? এখন মানা না মানার নিয়ে প্রশ্ন কেন? বিএনপি মূলত সুষ্ঠু ভোট ও মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য আন্দোলন করছে।

অন্যদিকে সানজিদা খানমকে উপস্থাপকের পক্ষ থেকে কথা বলার সুযোগ দেওয়া হলে তিনি বলেন, দেশে অর্থনৈতিক অবস্থা যদি এতটাই খারাপ হতো তা হলে ব্রিকসের সম্মেলনে কেন প্রধানমন্ত্রী গেলেন? কোনো দেউলিয়া দেশকে তো সেখানে ডাকা হয়নি। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে ডেকেছে। বাংলাদেশ যদি দেউলিয়া হতো তা হলে তারা ডাকত না। আসলে চোরের মার গলা বড়।

এমন বক্তব্যে ক্ষিপ্ত হয়ে শামা ওবায়েদ বলেন, আপনারা তো ডাকাত, তারেক রহমানের নামে যে বিচারক রায় দিয়েছিলেন, সে বিচারককে আপনারা বিদেশে পাঠিয়েছেন। শুধু তাই নয়, প্রধান বিচারপতিকে বিদেশে যেতে বাধ্য করেছে আওয়ামী লীগ।

একপর্যায়ে দুজনই রেগে যান, জড়িয়ে পড়েন বাগবিতণ্ডায়। যার কারণে টকশো স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় শেষ করা সম্ভব হয়নি। এক প্রকার টকশো শেষ করতে বাধ্য হয় উপস্থাপক।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বিপিএলে যে রেকর্ডের সামনে তামিম

গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের

যাদের বিপক্ষে মাঠে নামছে ব্রাজিল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পূর্ব-বিরোধে দুপক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫০

গাজীপুরে কারখানায় বিস্ফোরণ, নিহত ১

মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি উলফাতের মুক্তি দাবি ফখরুলের 

আতঙ্কে আবারও গ্রেপ্তার শুরু করেছে সরকার : রিজভী

মিশিগানে জয় পেলেও স্বস্তিতে নেই বাইডেন

হলমার্কের তানভীরসহ ১৮ জনের মামলার রায় থেকে সাক্ষীতে

খুরশীদ আলম ও ড. হাবিব হচ্ছেন ডেপুটি গভর্নর

১০

বউ-শাশুড়ি লাইব্রেরি গড়তে বই নিয়ে শ্বশুরবাড়ি নববধূ

১১

ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার নিবন্ধ / অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনে সব দুরভিসন্ধি দূরে ঠেলে এগিয়ে যাওয়ার এখনই সময়

১২

ডিআইজি মিজানের ১৪ বছরের সাজা বহাল

১৩

৪ হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযানে ৩৬ দালাল আটক

১৪

সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন আগামী ২ এপ্রিল

১৫

ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে এবার আরেক ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ 

১৬

‘অর্জনে বেঁচে থাকবেন পঙ্কজ উদাস’

১৭

স্বামীকে জিম্মি করে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

১৮

ভিকারুননিসার ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল

১৯

‘নির্বাচনের সব কার্যক্রম ডিজিটাল করার প্রক্রিয়া চলছে’

২০
X