কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২১ নভেম্বর ২০২৩, ০১:২০ পিএম
আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২৩, ০১:৪৭ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

আমাদের লড়াই গণতান্ত্রিক অধিকারের জন্য : কর্নেল অলি 

এলডিপির প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। ছবি : সংগৃহীত
এলডিপির প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। ছবি : সংগৃহীত

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ (বীরবিক্রম) বলেছেন, ‘১৫ বছর ধরে ক্ষমতা আঁকড়ে রাখা সরকার আজ জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। কোথাও কোনো জবাবদিহি নেই। আইন ও বিচারব্যবস্থা জনসাধারণের স্বার্থরক্ষায় ব্যর্থ। প্রশাসনের প্রতিটি ক্ষেত্রে দুর্নীতি। ক্ষমতার লোভ সকল মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। দেশে বাকস্বাধীনতা নেই। বিভিন্ন কালো আইনের ভয়ে জনগণ জিম্মি হয়ে আছে। তারপরও আমরা সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকারের জন্য লড়াই করে যাচ্ছি। কারণ, জনগণের মঙ্গলের জন্য রাজনীতি, রাজনীতির জন্য জনগণ নয়।’

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) এলডিপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন রাজ্জাক প্রেরিত এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন কর্নেল অলি আহমদ।

তিনি বলেন, ‘সরকার আমাদের দমন করার জন্য সমগ্র প্রশাসনকে লেলিয়ে দিয়েছে। আইন-প্রয়োগকারী পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, আদালত ও জেলহাজতের পেছনে শত শত কোটি টাকা খরচ করছে। এই টাকা শ্রমিকের কর্মসংস্থানে ব্যয় করা যেত। কেন রাষ্ট্রীয় সম্পদ এভাবে লুটিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এর সদুত্তর কে দেবে?’

কর্নেল অলি বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনীতি আজ হুমকির মুখে। শ্রমিকরা আন্দোলনে নেমেছে, শত শত গার্মেন্টস বন্ধ হয়ে রয়েছে। ডলার রিজার্ভ সংকটাপন্ন। দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতিতে মানুষ তার আত্মসম্মান নিয়ে বাঁচবার লড়াইয়ে পর্যুদস্ত। তাই আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই, বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধ করুন, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা প্রত্যাহার করে নিন এবং অন্যায়ভাবে শাস্তি দেওয়া বন্ধ করুন। বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের অবৈধ জেল-জুলুম-শাস্তি থেকে মুক্ত করুন।’

কর্নেল অলি আরও বলেন, ‘জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছাড়া, নিশিরাতে বা বন্দুকের জোরে নির্বাচন করা হলে, তা বর্তমান সংকটকে আরও ঘণীভূত করবে। দেশের জনগণকে জিম্মি করে দেশে কি শান্তি ও শৃঙ্খলা ফিরে আসবে? ইতিহাস তা সাক্ষী দেয় না। দেশের সার্বভৌমত্বকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। সাংবিধানিক অধিকার, মানবাধিকার ও সকলের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে হবে। দেশের অর্থনীতি ও গরিব মেহনতি মানুষের সমস্যাগুলো বিবেচনায় নিন। দেশকে ধ্বংস থেকে রক্ষা করার ব্যাপারে ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের ছোট-বড় সকল রাজনৈতিক দলসমূহের প্রতি আবেদন করছি, নিজ নিজ জায়গা থেকে আমাদের সকলকে লোভ লালসার ঊর্ধ্বে উঠে গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে। প্রশাসনিক শক্তির অপব্যবহার করে ভাগ-বাটোয়ারার নির্বাচন করার চিন্তা পরিহার করতে হবে। দেশের সকলের প্রতি আমি আবেদন করছি, সাহসিকতার সাথে আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিগুলোতে অংশগ্রহণ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পথ সুগম করুন। ভয় পেলে চলবে না। মানুষের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ অর্জন হলো তার আত্মসম্মান। সেই সম্মান হারিয়ে কী হবে, একবার ভেবে দেখুন। আপনাদের নীরবতা দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেবে। নিজের নাগরিক অধিকার আদায়ে সোচ্চার হোন। অন্যথায় কেউ এই সমস্যা থেকে বের হওয়ার পথ পাবেন না। দেশের নিপীড়িত ও মেহনতি মানুষের দীর্ঘশ্বাসে সব কিছু ধ্বংস হয়ে যাবে। মহান আল্লাহর বিচার থেকে কারো রক্ষা হবে না।’

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: হরতাল-অবরোধ
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিলেন ফখরুল

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ধরাশায়ী হলো বাংলাদেশ

রাজধানীতে বিটিআরসির অভিযান, সরঞ্জামাদি জব্দ

৫৪ মণ ওজনের গরু প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে চান হামিদা

নরসিংদীতে বিদ্যুৎস্পর্শে ঝলসে গেছে দুই শিক্ষার্থী

হবিগঞ্জে খড়ের গাদা থেকে পড়ে কৃষকের মৃত্যু

কুমিল্লায় শিশু হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

মৌলভীবাজারে গরম মসলার বাজারে অভিযান

শাবি কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রমজান, সম্পাদক জাবেদ

নরসিংদীতে নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন

১০

আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন মোস্তাকিম 

১১

চসিকে যুক্ত হলো ময়লার ৪০ কন্টেইনার

১২

ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে রিকশাচালকের আত্মহত্যা

১৩

ক্রিকেট খেলায় পাওয়ারপ্লে কি? কখন এবং কেন পাওয়ারপ্লে দেখানো হয়?

১৪

চবি ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

১৫

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে আইসিসির গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে কী প্রভাব পড়বে?

১৬

‘উন্নত দেশগুলো জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়নে ব্যর্থ’

১৭

শাবিপ্রবিতে গবেষণা নিবন্ধবিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

১৮

মেম্বারদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

১৯

কম দামের পণ্যে দামি ব্র্যান্ডের লোগো, জরিমানা

২০
X