পাবিপ্রবি প্রতিনিধি
প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:৪৭ পিএম
আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:৫৪ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

পাবিপ্রবিতে ‘স্যার’ না বলায় ছাত্রীকে শাসালেন কর্মকর্তা!

পাবিপ্রবিতে প্রশাসনিক ভবনের সামনে শিক্ষার্থীরা। ছবি : কালবেলা

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তাকে ‘স্যার’ না বলে ‘ভাই’ বলায় এক ছাত্রীকে শাসানোর অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের ৩য় বর্ষের ঐ ছাত্রী তার রেজিস্ট্রেশন কার্ডে সংশোধন করতে রেজিস্টার অফিসের একাডেমিক শাখায় গেলে সেখানে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তা হলেন শেখ মাহমুদ কানন। তিনি দাবি করেন, তাকে স্যার না বললে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষকদেরও স্যার বলা যাবে না।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে প্রশাসনিক ভবনের সামনে ভুক্তভুগী শিক্ষার্থী ও তার সহপাঠীরা অবস্থান নেন। এ সময় তারা দাবি করেন, তিনি একজন কর্মকর্তা হয়ে শিক্ষককে কোনো যুক্তিতে ভাই সম্বোধন করতে বললেন তার সুস্পষ্ট ব্যাখা এবং তাকে কেন ভাই বলে সম্বোধন করা যাবে না তার যথাযথ ব্যাখ্যা প্রদান করতে হবে।

যে শিক্ষার্থীর সামনে স্যারকে ভাই সম্বোধন করতে বলছেন, সেই শিক্ষার্থীসহ বিভাগের সকল শিক্ষার্থীদের ও শিক্ষকদের কাছে ওই কর্মকর্তাকে ভুল স্বীকার করতে হবে। আবস্থান কর্মসূচি শেষে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগপত্র জমা দেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পক্ষে বিভাগের সব শিক্ষার্থীদের দেওয়া অভিযোগপত্রে তারা উল্লেখ করেন, গত ৪ ডিসেম্বর তাদের সহপাঠী মোছা. আতিয়া সানজিদা রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সংশোধন করতে রেজিস্টার অফিসের একাডেমিক শাখায় গেলে সেকশন অফিসার শেখ মাহমুদ কানন তাকে হেনস্তা করে এবং স্যার বলতে বাধ্য করেন। তিনি (সেকশন অফিসার) বলেন তাকে স্যার না বললে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষকদেরও স্যার বলা যাবে না। এমন হেনস্তার শিকার হওয়ায় আমাদের সহপাঠী মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই আমরা এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে তাকে হেনস্তা এবং শিক্ষক অবমাননার প্রতিকার ও সুষ্ঠ বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কালবেলাকে বলেন, ওই দিন এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। বিষয়টা ওনি হয়তো অন্যভাবে বুঝেছেন। আমি হয়তো তাকে বুঝাইতে ব্যর্থ হয়েছি। আমার ১২ বছর কর্মজীবনে কারো সঙ্গেই আমি কখনো খারাপ ব্যাবহার করিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা ড. মো. নাজমুল হোসেন বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি। শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে অভিযোগপত্র পেয়েছি। উপাচার্যের উপস্থিতিতে আগামী শনিবার সুষ্ঠু তদন্ত করে যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঘুষ-দুর্নীতির আখড়া জাজিরার বড়কান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিস

মীন রাশিতে কাজে সফল হওয়ার দিন আজ

২৭ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

মঙ্গলবার রাজধানীর যেসব এলাকায় যাবেন না

কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

প্যারিসে ভাষা দিবস উপলক্ষে পঞ্চ কবির গানের সন্ধ্যা

বাবাকে কুপিয়ে জখম, ছেলে গ্রেপ্তার

আধিপত্য বিস্তারে দুই গ্রুপের ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৩

পথ হারানো ৩১ দর্শনার্থীকে উদ্ধার করল পুলিশ

শিক্ষা সফরে মদপান, দুই শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

১০

মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা!

১১

রাতের ঢাকায় নতুন মাদক

১২

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

১৩

রংপুরকে উড়িয়ে ফাইনালে লিটনের কুমিল্লা

১৪

যুগান্তরের অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে

১৫

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

১৬

যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

১৭

করোনায় আক্রান্ত ডিবি প্রধান হারুন

১৮

‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ নামকরণের প্রস্তাব বাতিল

১৯

বর্ণাঢ্য আয়োজনে চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের নবীনবরণ

২০
X