মিঠু দাস জয়, সিলেট প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০২৪, ০৩:১২ এএম
অনলাইন সংস্করণ

কপাল পুড়ল সিলেটের ২ মন্ত্রীর

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং সাবেক প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ। ছবি : সংগৃহীত
সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং সাবেক প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ। ছবি : সংগৃহীত

সারা দেশে উৎসব মুখর পরিবেশে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হলেও উৎসাহ ছিল না সিলেট-১ ও সিলেট-৪ নির্বাচনী এলাকায়। ভোটার উপস্থিতি ছিল একেবারে কম। আসন দুটিতে বিগত সরকারে দুজনই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ছিলেন। প্রায় নিশ্চিত ছিল আবারও মন্ত্রী হচ্ছেন তারা। কিন্তু কাকতালীয়ভাবে সদ্য ঘোষিত মন্ত্রীসভায় তারা দুজনই বাদ পড়েছেন। সিলেটে সাবেক এই দুই মন্ত্রী নতুন মন্ত্রীসভায় না থাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে বিভাগজুড়ে। পক্ষে-বিপক্ষে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

সিলেট-১ বরাবরই মর্যাদাপূর্ণ আসন। স্বাধীনতার পর এখানে গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীরা দায়িত্ব পালন করে সিলেটের মুখ উজ্জল করেছেন। গত সরকারে পররাষ্টমন্ত্রী ছিলেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন। কিন্তু এবারই প্রথম মন্ত্রী পাননি সিলেট-১ আসনের মানুষ।

অন্যদিকে সীমান্তবর্তী জৈন্তাপুর-গোয়াইনঘাট্-কোম্পানীগঞ্জ নিয়ে গঠিত সিলেট-৪ আসন থেকে বারবার নির্বাচিত হয়েছেন ইমরান আহমদ। গত সরকারে তিনি প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ছিলেন। এবার তিনিও বাদ পড়েছেন।

সাধারণ মানুষের ধারণা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে নিয়ে গত পাঁচ বছরে নানা রকম সমালোচনা ছিল। লাগামহীন কথাবার্তা ও অকূটনৈতিক সুলভ বক্তব্য দিয়ে তিনি নানাভাবে সমালোচিত হয়েছিলেন। সরকারকে অনেক বক্তব্য দিয়ে বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে ফেলেছিলেন। অন্যদিকে, সিলেট ৪ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদও সফলতা দেখাতে পারেননি। নতুন শ্রমবাজার সৃষ্টি, বাণিজ্যিক সম্পর্ক, শ্রমিক পাঠাানোতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন।

সৌদি প্রবাসী রিপন আহমদ কালবেলাকে বলেন, প্রবাসী মন্ত্রী আমাদের সিলেটের থাকার পরও আমরা প্রবাসীরা কোনো সুবিধা পায়নি। সিলেট আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া না জানালেও অনেকেই মুখ খুলতে রাজি হননি।

তবে, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলেন, মন্ত্রী কে হবেন না হবেন এটা নির্ধারণ করেন আমাদের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা সকলেরই নেত্রীর সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো উচিত।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান কালবেলাকে বলেন, মন্ত্রী পরিষদের এই তালিকায় শেষ নয়, আশা করি আমরা মন্ত্রী পাবো। দেশের প্রয়োজনে নেত্রীর যখন যাকে দরকার তাকেই নিবেন। আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ কালবেলাকে বলেন, বিষয়টি খুব সেনসেটিভ, এই মুহুর্তে কিছু বলা সম্ভব হবে না।

সিলেট মহানগর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় সদস্য নজরুল ইসলাম কালবেলাকে, আমরা সিলেটে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মন্ত্রী না থাকা দুঃখজনক। মন্ত্রী মান্নান সাহেব বেশ উন্নয়ন করেছেন। তাকে বাদ দেওয়ায় উন্নয়ন থেমে। তবে, মন্ত্রী ইমরান প্রবাসী কিংবা এলাকাবাসীর জন্য খুব একটা কাজ করেননি। পররাষ্টমন্ত্রী অনেক কাজ করেছেন। আশা করা যায় তাকে মূল্যায়ন করা হবে।

বাসদ সিলেট জেলার আহ্বায়ক আবু জাফর কালবেলাকে বলেন, আমাদের দল গত ৭ জানুয়ারি প্রহসনের নির্বাচন বর্জন করেছে। আমরা স্পষ্ট বলছি, ভোট বর্জনের গণ রায় মেনে সরকারের পদত্যাগ করে সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনকালীন দল নিরেপক্ষ তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচন আয়োজন করা। তারপরও সরকারের নতুন করে মন্ত্রীপরিষদ গঠনে নামের তালিকা দেখে সিলেটবাসী হতাশ।

সিলেটের নাগরিক আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক আব্দুল করিম কিম কালবেলাকে বলেন, সিলেট থেকে গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী থাকা না থাকা নিয়ে হতাশার কিছু নেই। বিগত দিনে যারা সিলেট থেকে মন্ত্রী হয়েছেন, সিলেটের উন্নয়নে তাদের অর্থবহ কোনো ভূমিকা ছিল না।

সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত তরফদার কালবেলাকে বলেন, সিলেট-১ মর্যাদাপূর্ণ আসন। মন্ত্রীসভা বর্ধিত করা হলে সিলেটের শূণ্যস্থান পূরণ হবে বলে তিনি মনে করেন।

সাংবাদিক মুক্তাদীর আহমদ কালবেলাকে বলেন, মন্ত্রীসভায় সিলেটের প্রতিনিধিত্ব এবার কমেছে এতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রতিটি এলাকার সুষম উন্নয়নে কাজ করছেন। মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ করেন, দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখেন। এবারও এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হবে না। যারাই মন্ত্রীসভায় আসবেন তারা দেশের জন্য কাজ করবেন। এতে করে সিলেট পিছিয়ে যাবে এমনটা ভাবার কারণ নেই। তবে এটা ঠিক মন্ত্রীদের নিজের এলাকার প্রতি বিশেষ মনোযোগ থাকে। এক্ষেত্রে সিলেট কিছুটা বঞ্চিত হতে পারে। মন্ত্রী পরিষদ থেকে সিলেট-৪ আসন থেকে নির্বাচিত সাংসদ ইমরান বাদ পড়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন তার এলাকার লোকজন।

এলাকাবাসী মনে করেন, আমাদের বঞ্চিত করা হয়েছে। উন্নয়নের স্বার্থে আরও একবার ইমরান আহমদকে মন্ত্রী করা হলে সীমান্ত উপজেলা তিনটিতে ব্যাপক উন্নয়ন হতো।

গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শাহ আলম বলেন, সিলেট ৪ আসন থেকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন ইমরান আহমদ, তিনি একজন দক্ষ, সৎ ও স্বচ্ছ মানুষ।

গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কোম্পানিগঞ্জের মানুষ সতস্ফুর্ত অংশগ্রহণ করে বিপুল ভোটের মাধ্যমে ইমরান আহমদকে বিজয় করেছেন। আমরা আশা করি নেত্রী অবশ্যই ইমরান আহমদকে মূল্যায়ন করবেন।

বগাইয়া হাওর গ্রামের ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন কালবেলাকে বলেন, সিলেট ৪ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য এক বারের মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। গোয়াইনঘাট জৈন্তাপুর কোম্পানিগঞ্জের উন্নয়নের রূপকার। এই নির্বাচনে আমরা বিপুল ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছি। আমরা আশা করছি বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের এই বৃহত্তর সিলেট ৪ আসেন নবনির্বাচিত এমপিকে গুরুত্বপূর্ণ একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়ে পূণরায় মন্ত্রী বানিয়ে আমাদের মূল্যায়ন করবেন।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপজেলা ভোটে লড়তে ইউপি চেয়ারম্যানের পদত্যাগ 

ঘরের মাঠে বিধ্বস্ত হয়ে বিদায় বার্সার

ঈদ করতে এসে পানিতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু

চকরিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কৃষককে গুলি করে হত্যা

যুবলীগ কর্মীর পায়ের রগ কাটল যুবদল নেতা 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জের দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ২০

সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা

৮ মাসে সর্বজনীন পেনশন সদস্য ৫৪ হাজার

‘ওরাকল ক্লাউড ওয়ার্ল্ড ট্যুর সিঙ্গাপুর’ এ স্মার্ট বাংলাদেশের রূপরেখা তুলে ধরলেন পলক

সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে ২ কৃষকের মৃত্যু

১০

পাবনায় সাংবাদিককে পিটিয়ে পা ভেঙে দিল সন্ত্রাসীরা

১১

ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের জন্যে বিরাট সুখবর

১২

গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বিস্ফোরণে চীনা নাগরিক নিহত

১৩

প্রেমিকাকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

১৪

লামায় উৎসবের দিনে আগুনে পুড়ল বৌদ্ধ বিহার

১৫

চট্টগ্রামে এখনও ঈদের আমেজ

১৬

রাবির জনসংযোগ দপ্তরের নতুন প্রশাসক অধ্যাপক প্রণব কুমার

১৭

অনৈতিক সম্পর্কের মামলায় শিক্ষকের কারাদণ্ড

১৮

নদীতে নিখোঁজ ২ বোনের মরদেহ উদ্ধার

১৯

সড়ক দুর্ঘটনায় ১৪ জনের মৃত্যুতে প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর শোক

২০
*/ ?>
X