সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৩:৫৭ পিএম
আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:০৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

বিধবার বসতভিটা দখলের অপচেষ্টা

ভুক্তভোগী বিধবার বসতভিটা। ছবি : কালবেলা
ভুক্তভোগী বিধবার বসতভিটা। ছবি : কালবেলা

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এক বিধবার বসতভিটা দখলের অপচেষ্টা করছে আসাদুল্লাহ নামে এক প্রভাবশালী ব্যক্তি। উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বগারপাড় বড় পুকুর এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ২৫ বছর পূর্বে বগারপাড় গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিম তরফদারের ছেলে আসাদুল্লাহ ও আনোয়ার হোসেন তরফদার পোগলদিঘা বিন্যাফৈর মৌজার ১২ শতাংশ জমি ৯০ হাজার টাকায় একই গ্রামের মৃত শামছুল হকের স্ত্রী মতবানুর কাছে বিক্রি করেন।

মতবানু ওই জমির সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ করে জমি দলিল করে দিতে বললে তারা জানান, জমির দলিলাদি ব্যাংকে জমা আছে। এখন তারা জমিটি দলিল করে দিতে পারবেন না। পরে এ বিষয়টি মতবানু এলাকাবাসীকে জানিয়ে জমির দাতাগণের উপস্থিতিতে ওই জমিতে ঘর তুলে বসবাস করে আসছিলেন।

দীর্ঘ ২৫ বছর পর মতবানুর সন্তানরা ওই জমির দলিল করে দিতে বললে জমির অংশীদার আসাদুল্লাহ জানায়, সে তাদের কাছে কোনো জমি বিক্রি করেননি এবং টাকাও নেননি।

পরে মতবানুর সন্তানরা নিরুপায় হয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সালিশ বসান। সেই সালিশিতে আসাদুল্লাহ টাকা নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে উল্টো মতবানুর বিরুদ্ধে তার জমি বেদখলের অভিযোগ তুলেন এবং মামলা করার হুমকি দেন।

এদিকে আসাদুল্লাহর ভাই আনোয়ার হোসেন তরফদার বলেন, এই জমিটি আমরা দুই ভাই মিলেই বিধবা মতবানুর কাছে বিক্রি করেছি এবং টাকা নিয়েছি। জমির দলিলাদি ব্যাংকে থাকার কারণে আমরা তখন জমিটি দলিল করে দিতে পারিনি। এখন ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করে দলিলাদি ফেরত এনেছি। তাই আমার অংশটুকু আমি দলিল করে দিতে চাচ্ছি কিন্তু সে তার অংশটুকু দিতে চাচ্ছে না। উল্টো অসহায় পরিবারটিকে মামলা দিয়ে সে হয়রানি করছে। এটি একটি অমানবিক কাজ বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে আসাদুল্লাহর ভাতিজা রাশেদুল ইসলাম বলেন, আমার চাচা বিধবা মতবানুর কাছ থেকে জমির বিক্রির নামে টাকা নিয়েছেন। কিন্তু লিখে দেননি। এটা আমরা আত্মীয়-স্বজন সকলেই জানি। আজ যেটা সে করছে সেটা অমানবিক অন্যায় ও অবিচার।

এ ছাড়াও আসাদুল্লাহর ভাবি চায়না বেগম জানান, আমরা একসঙ্গেই জমি বিক্রির টাকা নিয়েছি। আজ আমাদের অংশটুকু লিখে দিতে চাচ্ছি কিন্তু সে তার অংশটুকু দেবে না। এটা গরিবের সঙ্গে অবিচার ছাড়া আর কিছু নয়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আসাদুল্লাহর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

গভীর রাতে ভোট কেনার সময় হাতেনাতে আটক ৩

বাকেরগঞ্জে ঘূর্ণিঝড়ে পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

ঘূর্ণিঝড়ে কবর থেকে বের হলো বৃদ্ধার লাশ, পাঁচ মাস পরেও অক্ষত

ঘূর্ণিঝড় রিমাল / সর্বোচ্চ রেকর্ড বৃষ্টিপাত চাঁদপুরে

চট্টগ্রামে ভালোবাসায় সিক্ত এভারেস্টজয়ী বাবর

৪১ ঘণ্টা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন আখাউড়া

আ.লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাচন / জাহেদুল হকের বিরুদ্ধে ইউএনও এবং ওসিকে টাকা দেওয়ার অভিযোগ

রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ওপর ভেঙে পড়ল গাছ

অর্থমন্ত্রী ও সচিবকে স্মারকলিপি / মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা ৫০ হাজার টাকা করার দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

১০

নিষিদ্ধ গোষ্ঠীর তালিকা থেকে তালেবানের নাম সরাচ্ছে রাশিয়া

১১

ঢাকেশ্বরী মন্দিরের দানবাক্স লুটের চেষ্টা, পুলিশের ভূমিকা রহস্যজনক

১২

বিমানে ছিল ১৪৮ যাত্রী, যান্ত্রিক গোলযোগে দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল ইঞ্জিন!

১৩

মাছ শিকারের দারুণ কৌশল দারকি

১৪

উদ্ভাবন ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয় : ঢাবি উপাচার্য

১৫

মধ্যরাতে জবির মসজিদে ছাত্রী, কী ঘটেছিল সেদিন!

১৬

বাগেরহাটে গাছচাপা পড়ে নারীর মৃত্যু

১৭

এমপি আনার হত্যা : যশোর থেকে অভিযুক্ত শিমুলের সহযোগী গ্রেপ্তার

১৮

পারমাণু বোমা তৈরির দ্বারপ্রান্তে ইরান

১৯

নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

২০
X