নাজমুল ইসলাম
প্রকাশ : ১১ জুন ২০২৩, ১২:০০ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

রঙে মোড়া পাবিপ্রবি দিবস

ছবি : নাঈম উল আবেদিন বিশ্বাস

৫ জুন দিনটি ছিল পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ওরফে পাবিপ্রবি দিবস। সকালে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটক পেরোতেই পায়ের কাছে চোখ আটকে গেল রঙিন চিত্রকর্মে। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে কারুকাজটি করেছে বিশ্ববিদ্যালয়েরই চিত্রকলা সংগঠন ‘চিত্র’।

সকাল সাড়ে ১০টা। অনুষ্ঠানও শুরু। প্রথমে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন করা হলো। এ পর্বে রোভার স্কাউট ও ক্যাম্পাসের আনসার সদস্যদের একটি অসাধারণ প্যারেড হয়ে গেল। শুরু হলো আনন্দ শোভাযাত্রা। মুহূর্তে রঙিন হয়ে উঠল কেন্দ্রীয় মাঠের পশ্চিমপাশ। গানের তালে মিনিট দশেক চলল ফ্লাশমব। পাশেই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের আয়োজনে চলছে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ও ব্লাড ডোনেশন কার্যক্রম। সেখানে কাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন—উৎসর্গ ও জোনাকি।

নাজমুস শাকীব সিজান ও সঞ্চিতা মহন্তের সঞ্চালনায় বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের আলোচনা সভা শুরু হলো। একে একে বক্তারা তথ্যবহুল ও মজার বক্তৃতা দিলেন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন ঘোষণা দিলেন, ২০২৪ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন হবে। এ ছাড়াও দুটি অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরি (ফার্মেসি ও কম্পিউটার) তৈরির প্রত্যাশা জানালেন।

গবেষণায় বিশেষ অবদান রাখায় সম্মাননা স্মারক পেলেন গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. হারুনুর রশিদ, ইলেকট্রিক্যাল ইলেকট্রনিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইসিই) বিভাগের সহকারী অধ্যাপক লিটন চন্দ্র পাল এবং একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. ফাতিন ইশরাক। গত এক বছরে বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত আর্টিকেল সংখ্যা, ইমফ্যাক্ট ফ্যাক্টর, বাইরের ফান্ডিং এবং সাইটেশনের ওপর ভিত্তি করে এ তিন সেরা গবেষককে নির্বাচিত করা হয়েছে।

এদিকে স্নাতকে কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল অর্জনের স্বীকৃতি হিসেবে ডিনস অ্যাওয়ার্ড পেলেন বিভিন্ন বিভাগের ১৪ শিক্ষার্থী। ওই কৃতী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২০১৪-১৫ সেশনের আছেন—ইইই বিভাগের মো. মেহেদী হাসান তানিম, আইসিই বিভাগের মো. মারুফ হোসেন ও একই বিভাগের তাহসীনা নাজনীন, ব্যবসায় প্রশাসনের নাজমুল হক সাগর। ২০১৫-১৬ সেশনের শিক্ষার্থীরা হলেন—ফার্মেসি বিভাগের মো. সেলিম উদ্দিন, মোছা. সোহেলী আক্তার নিফা ও একই বিভাগের সুমি খাতুন, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের মো. নাদিম মাহমুদ নবীন ও একই বিভাগের শারমিন আক্তার, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের হাসিবুল ইসলাম, লোকপ্রশাসন বিভাগের মো. রিপন হোসাইন, সমাজকর্ম বিভাগের অপর্ণা রানী, একই বিভাগের মোছা. মঞ্জিলা পারভীন এবং ইইসিই বিভাগের মোছা. মার্জিয়া খাতুন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিশেষ অনুদান প্রদান করা হয়।

সাংস্কৃতিক পর্ব

বিকেল গড়াতেই ক্যাম্পাসে সাজ সাজ রব। সিনিয়র-জুনিয়র ও প্রিয়জনদের নিয়ে সবাই সেজেগুজে সাংস্কৃতিক পর্ব উপভোগ করতে হাজির। কেউ মাঠে আড্ডায় মেতেছে, কেউ মুক্তমঞ্চের সিঁড়িতে। স্নিগ্ধতার স্পর্শ পেতে কেউ বসেছে আনন্দ সরোবরের সিঁড়িতে। ক্যাম্পাসজুড়ে উৎসবের আমেজ। সাংস্কৃতিক পর্বের সঞ্চালনায় ছিল সৈয়দ ইয়ানুর শাহ ও ফাইরুজ ফারিহা। সঙ্গে প্রথম পর্বের সিজান ও সঞ্চিতা। শুরুতে পাস্ট ডিবেটিং সোসাইটির আয়োজনে ছিল ছাত্র-শিক্ষক বিতর্ক। বিতর্কের বিষয়— ‘বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের সেকাল নয়, একালই সেরা’।

উৎসব আরও জমজমাট হলো অনিরুদ্ধ নাট্যদল, কণ্ঠস্বর আবৃত্তিদল ও পাস্ট ড্যান্স ক্লাব সদস্যদের পরিবেশনায়। ছিল ছোট্ট নাটিকা ও রম্য অভিনয়। শেষ আকর্ষণ ছিল ক্যাম্পাসের ব্যান্ডদল ডেসট্রয়েডের পারফরম্যান্স।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বঙ্গবন্ধুর দুঃসময়ের বন্ধু, কিংবদন্তি রাজনীতিক শওকত আলী

১৩০ টাকায় শুরু করা নার্সারির বাজারমূল্য ২০ লাখ

যশোরে ভাষা শহীদদের স্মরণে ৫২শ মোমবাতি প্রজ্বলন

শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের ঢল

সাভারে খঞ্জনকাঠি খাল উদ্ধার করল উপজেলা প্রশাসন

শোক ও গৌরবের একুশে আজ

২১ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

ইতিহাসের এই দিনে যত ঘটনা

গ্রিজমানদের খালি হাতেই ফেরত পাঠাল ইন্টার মিলান  

একটি হুইল চেয়ারের আকুতি প্রতিবন্ধী সিয়ামের

১০

ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে চবিতে ফুলের দাম বেড়েছে ৩ গুণ

১১

সীমান্তে শেষবারের মতো সরুকজানের লাশ দেখল স্বজনরা

১২

‘উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে কর্মসংস্থান তৈরি করতে চাই’- প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

১৩

সৌদি বসে ঢাকায় ডাকাত দল চালায় ইলিয়াস

১৪

‘ডাল ভাত খেয়েও যুদ্ধ করতে পারি’

১৫

ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

১৬

কোম্পানি রিটার্নের মেয়াদ ২ মাস বাড়ানোর দাবি এফবিসিসিআইর

১৭

ন্যায্যতা সম্পর্কিত সংসদীয় ককাস / উন্নয়নমূলক পদক্ষেপে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহ্বান 

১৮

এমপিদের থোক বরাদ্দের আগে জবাবদিহিতা নিশ্চিতের দাবি টিআইবির

১৯

চাকরি গেল জাবির আলোচিত সেই শিক্ষকের

২০
X