ভোলা প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৮ মে ২০২৪, ০৪:৪৪ পিএম
অনলাইন সংস্করণ
ঘূর্ণিঝড় রিমাল

ভোলায় নিহত ৩

ঘূর্ণিঝড় রিমালে ভেঙে যাওয়া ঘর। ছবি : কালবেলা
ঘূর্ণিঝড় রিমালে ভেঙে যাওয়া ঘর। ছবি : কালবেলা

ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাতে ভোলার ৭ উপজেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উপরে পড়েছে গাছপালা, বিধ্বস্ত হয়েছে বাড়িঘর, পানিতে ভেসে গেছে পুকুর ও ঘেরের কোটি কোটি টাকার মাছ। ঘর ও গাছচাপা পড়ে প্রাণ গেছে ৩ জনের। বসতঘর হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে মানবেতর দিন কাটাচ্ছে অনেক পরিবার।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে জেলার ৬০টি ইউনিয়নকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫২৩টি ওয়ার্ডে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা যায়।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা এবিএম আকরাম হোসেন জানান, বিভিন্ন স্থানে ৭ হাজার ৬২৩টি ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এর মধ্যে আংশিক ৫ হাজার ১৫৮টি ও ২ হাজার ৪৬৫টি সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. হাসান ওয়ারিসুল কবির জানান, জেলার চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন উপজেলায় মোট ৩ হাজার ৭৬ হেক্টর জমির ২৫ হাজার ৮১৫ টন আউশ বীজতলা ও আউশ আবাদসহ বিভিন্ন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মোট ৫১ শতাংশ ধান ও বিভিন্ন মৌসুমি ফসল পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য ৪৮ কোটি ৫২ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ভোলা সদর, দৌলতখান ও মনপুরা উপজেলার বিভিন্ন স্থানের বেড়িবাঁধ আশংকাজনক অবস্থায় রয়েছে। নদীর ঢেউ ও পানির স্রোতে ভেঙে গিয়ে বৃহৎ এলাকা পানিতে প্লাবিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। ওই এলাকাগুলোতে জরুরি জিও ব্যাগ ডাম্পিং করে ভাঙন প্রতিরোধ করার চেষ্টা করা হলেও ৪ বছর আগে ব্লক স্থাপনের টেন্ডারের কাজ আজও করা হয়নি।

এ বিষয়ে ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানান, আপাতত বেড়িবাঁধ ভাঙার কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে ওই এলাকার ব্লকের কাজটি চলমান রয়েছে। আগামী ২০২৫ সালের জুন মাসে কাজটি সম্পন্ন হবে বলে তিনি জানান।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার দেব জানান, জেলায় প্রায় ৯৫ হেক্টর জমিতে থাকা ৯৫০টি মাছের ঘের ও ৬০০ হেক্টর জমিতে থাকা ৫ হাজার ৮৬০টি পুকুরের মাছ পানিতে ভেসে গেছে। যার মূল্য ৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা। পানিতে ভেসে গেছে এবং প্রায় দুই কোটি টাকার অবকাঠামো বিধ্বস্ত হয়েছে।

এ ছাড়াও ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ভোলা সদর, দৌলতখান, বোরহানউদ্দিন ও লালমোহনে ঘরচাপায় ও গাছের চাপায় নিহত হয়েছে ৩ জন। নিহতরা হলেন, দৌলতখান পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের মনিরের মেয়ে মাইশা (৪), বোরহানউদ্দিন উপজেলার সাচড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের জাহাঙ্গীর (৫০) এবং ঘরের নিচে চাপা পড়ে লালমোহন উপজেলার চরউমেদ ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মনেজা খাতুন (৫০)।

ভোলা ওয়েস্টার্ন পাওয়ার প্লান্ট ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইউসুফ বলেন, ঘূর্ণিঝড় রিমালের কারণে জেলার বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে। অনেক স্থানে গাছ পড়ে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে যাওয়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহে বিভ্রাট ঘটেছে। সচল করতে আমরা কাজ করছি। তবে শহরের কিছু কিছু এলাকায় সকাল থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ রয়েছে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: ঘূর্ণিঝড় রিমাল
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

সেলস ম্যানেজার নিচ্ছে ওয়ালটন, থাকছে নানা সুবিধা

বাঙালির সব অর্জনেই আ.লীগ জড়িত : প্রধানমন্ত্রী

টানা ৮ বছর বসন্তে পালিত হবে হজ, এরপর শীতেও

খালেদা জিয়ার কিছু হলে দায় সরকারের : জাগপা

সিলেটে বিপুল পরিমাণ আতশবাজি উদ্ধার

আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা

অষ্টম শ্রেণি পাসে মিনিস্টার গ্রুপে নিয়োগ, পদসংখ্যা ২০

খুলল সিলেটের পর্যটনকেন্দ্র, আছে শর্ত

আফগানদের যেভাবে হারালে সেমিতে খেলবে শান্তরা

বাসের ধাক্কায় নারীসহ নিহত ২

১০

খোঁজ মিলল বিলাসী ভেড়ার, দাম ৮০ লাখ

১১

ছেলেকে বাঁচাতে যাওয়ায় বাবাকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

১২

ইসরায়েলের স্পর্শকাতর লক্ষ্যবস্তুর ফুটেজ প্রকাশ করল লেবাননের যোদ্ধারা

১৩

খুলে দেওয়া হলো তাহিরপুরের পর্যটন স্পট

১৪

সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন ওয়াকার-উজ-জামান

১৫

এসিআইয়ে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ, কর্মস্থল ঢাকা

১৬

আ.লীগ মানুষের কল্যাণে রাজনীতি করে : এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী

১৭

ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল

১৮

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় মোহাম্মদপুরে দোয়া মাহফিল 

১৯

খালেদা জিয়া জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে : ফখরুল

২০
X