কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৯:২৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ
অনলাইন প্রতারণা

৪৯ টাকায় ৪৮টি ডিম কিনতে গিয়ে খোয়ালেন ৬৫০০০ টাকা

ছবি : সংগৃহীত
৪৯ টাকায় ৪৮টি ডিম কিনতে গিয়ে খোয়ালেন ৬৫০০০ টাকা

তথ্যপ্রযুক্তির উৎকর্ষ সাধন হওয়ায় ঘরে বসেই খুব সহজেই অনলাইনে কেনাকাটা করা যায়। অনলাইনে কেনাকাটায় কোম্পানিগুলো প্রায়ই অফার দিয়ে থাকে। তবে, অনেক অসাধু চক্রও রয়েছে। তারা বিভিন্ন ধরনের লোভনীয় অফারের প্রলোভন দেখায়। তাদের ফাঁদে পড়ে অনেকেই আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। এবার তেমনি এক অফার নিতে গিয়ে এক নারী খোয়ালেন প্রায় ৬৫ হাজার টাকা। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বেঙ্গালুরুতে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে অনলাইনে মানুষকে প্রতিনিয়তই প্রতারিত করা হচ্ছে। সম্প্রতি ৪৮ হাজার ১৯৯ রুপি (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৬৫ হাজার টাকা) খোয়ানোর পর ওই নারী পুলিশের দ্বারস্থ হলে বিষয়টি সামনে আসে।

অভিযোগ সূত্রে বেঙ্গালুরু পুলিশ জানায়, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি বসন্তনগরের এক নারী অনলাইনে বিভিন্ন সামগ্রীর দরদাম দেখছিলেন। কোন সংস্থা কী ছাড় দিচ্ছে তা ঘেঁটে দেখতে দেখতে একটি চমৎকার বিজ্ঞাপনে চোখ আটকে যায় তার। লোভনীয় ‘অফারে’ ডিম দেওয়া হচ্ছে বলে সেই বিজ্ঞাপনে দাবি করা হয়েছিল।

ভুক্তভোগী নারীর দাবি, ওই বিজ্ঞাপনে লেখা ছিল ৪ ডজন ডিম কেনা যাবে মাত্র ৪৯ রুপিতে। যেখানে এক একটি ডিমের দাম ভারতে সাড়ে ছয় থেকে ৭ রুপি, সেখানে ৪৮টি ডিমের দাম ৩০০ রুপির বেশি হওয়ার কথা। যদি ডিমগুলো আসলেই ৪৯ টাকায় পাওয়া যায়, এই ভেবে ওই বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেন তিনি।

ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, লিঙ্কে ক্লিক করতেই আমাকে নতুন একটি পাতায় নিয়ে যায়। সেখানে মুরগি পালন, ডিম কীভাবে সংগ্রহ করতে হয় এবং বিক্রিসংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ছিল। ওই পাতার নিচের দিকে নামতেই দেখি সেখানে বলা রয়েছে ৯৯ রুপিতে ৪ ডজন ডিম পাওয়া যাচ্ছে। তার সঙ্গে আরও কয়েকটি ‘অফার’ও ছিল। আমি ৪৯ রুপির ৪ ডজন ডিমের ‘অফার’টিতেই ক্লিক করেছিলাম। ওই পাতায় ক্লিক করতেই আমাকে আরও একটি নতুন পাতায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ডিমসংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য দেওয়া ছিল। সেখানে আমার ব্যাংক কার্ডের তথ্য চাওয়া হয়।

ওই নারীর দাবি, তিনি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের তথ্য নির্ধারিত জায়গায় দেন এবং অর্ডারের জন্য ক্লিক করেন। তারপর সেটি নতুন একটি পাতায় নিয়ে যায় তাকে। সেখানে পেমেন্টসংক্রান্ত ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, সিভিভি নম্বর দেন তিনি। এরপর টাকার পরিমাণ লিখে ক্লিক করতেই একটি ওটিপি আসে। সেই ওটিপি দেওয়ার আগেই অ্যাকাউন্ট থেকে ৪৮ হাজার ১৯৯ রুপি নিয়ে যায় প্রতারক চক্র। এরপরেই তিনি ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কিন্তু ততক্ষণে তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফাঁকা হয়ে যায়।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঝালকাঠিতে বজ্রপাতে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

নরসিংদীতে বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু, ২ নারী আহত

উপজেলা ভোটে লড়তে ইউপি চেয়ারম্যানের পদত্যাগ 

ঘরের মাঠে বিধ্বস্ত হয়ে বিদায় বার্সার

ঈদ করতে এসে পানিতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু

চকরিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কৃষককে গুলি করে হত্যা

যুবলীগ কর্মীর পায়ের রগ কাটল যুবদল নেতা 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জের দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ২০

সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা

৮ মাসে সর্বজনীন পেনশন সদস্য ৫৪ হাজার

১০

‘ওরাকল ক্লাউড ওয়ার্ল্ড ট্যুর সিঙ্গাপুর’ এ স্মার্ট বাংলাদেশের রূপরেখা তুলে ধরলেন পলক

১১

সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে ২ কৃষকের মৃত্যু

১২

পাবনায় সাংবাদিককে পিটিয়ে পা ভেঙে দিল সন্ত্রাসীরা

১৩

ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের জন্যে বিরাট সুখবর

১৪

গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বিস্ফোরণে চীনা নাগরিক নিহত

১৫

প্রেমিকাকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

১৬

লামায় উৎসবের দিনে আগুনে পুড়ল বৌদ্ধ বিহার

১৭

চট্টগ্রামে এখনও ঈদের আমেজ

১৮

রাবির জনসংযোগ দপ্তরের নতুন প্রশাসক অধ্যাপক প্রণব কুমার

১৯

অনৈতিক সম্পর্কের মামলায় শিক্ষকের কারাদণ্ড

২০
*/ ?>
X