কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:৪৫ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

সৌদিতে এক দিনে সাতজনের শিরশ্ছেদ

সৌদি আরবের পতাকা। ছবি : সংগৃহীত
সৌদি আরবের পতাকা। ছবি : সংগৃহীত

এক দিনে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরব। মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। এএফপির বরাতে ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। ২০২২ সালে এক দিনে সর্বোচ্চ ৮১ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। এরপর এক দিনে সাতজন সর্বোচ্চ সংখ্যক মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনা এটি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা ওই সাতজনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী সংগঠন তৈরি ও এগুলোকে অর্থায়নের অভিযোগ করা হয়েছে।

এএফপির তথ্যমতে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দিক দিয়ে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ দেশ সৌদি আরব। দেশটিতে চলতি বছরে এখন পর্যন্ত ২৯ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। এছাড়া ২০২৩ সালে ১৭০ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিল দেশটি। প্রায় দুই বছর আগে এক দিনে ৮১ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে দেশটি। সৌদিতে শিরশ্ছেদের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়ে থাকে।

মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা এসব ব্যক্তির জাতীয়তা প্রকাশ করা হয়নি। দবে তাদের নাম ও পদবি থেকে ধারণা করা হচ্ছে যে, তারা সৌদি আরবের নাগরিক।

সৌদি প্রেস এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রক্তপাতে উদ্ধুদ্ধকারী সন্ত্রাসী ধারণা লালন, সন্ত্রাসী প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা ও অর্থায়ন, সমাজের স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা ব্যাহতের লক্ষ্যে এসবের সঙ্গে যুক্ত থাকা ও সহায়তা এবং জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে ফেলানোর দায়ে তাদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। তবে অভিযোগের বিস্তারিত কিছু প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়নি।

দেশটিতে গত বছরের ডিসেম্বরে এক মাসেই কেবল ৩৮ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে ৩৩ জনের বিরুদ্ধেই সন্ত্রাসবাদ সংশ্লিষ্ট অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ করা হয়েছিল। এছাড়া রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে দুই সেনারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঢাবিতে পঞ্চব্রীহি ধান নিয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

তিন মামলায় মামুনুল হকের জামিন 

বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে সাবেক আর্জেন্টাইন তারকা

ঢাকার ভবন মালিকদের হুঁশিয়ারি দিলেন মেয়র তাপস

এফডিসিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন 

সেই নারী কাউন্সিলর চামেলীকে দল থেকে বহিষ্কার

বিশ্বজুড়ে শুধু গরমেই বছরে মারা যান ১৮৯৭০ শ্রমিক

আপিল বিভাগে তিন বিচারপতি নিয়োগ

যুদ্ধের মধ্যেই মন্ত্রীকে আটক করলেন পুতিন

সকালে ইসতিসকার নামাজ আদায়, রাতে নামল স্বস্তির বৃষ্টি

১০

তাপমাত্রা আরও বাড়ার শঙ্কা

১১

অফিসার নিয়োগ দেবে কাজী ফার্ম, আবেদন করুন দ্রুত

১২

হিট স্ট্রোকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের মৃত্যু

১৩

অন্তঃসত্ত্বা নারীর চিকিৎসা করলেন না ডাক্তার, সমালোচনার ঝড়

১৪

টাইগারদের সঙ্গে সিরিজের জন্য জিম্বাবুয়ে দল ঘোষণা

১৫

থাইল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

১৬

চাকরি দিচ্ছে কাজী ফার্মস, নেই বয়সসীমা

১৭

কালবেলায় প্রতিবেদন প্রকাশ / ভূমিদস্যু কামরুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ১০ আইনজীবীর আবেদন 

১৮

আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে চায় ভারত

১৯

ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনার মধ্যে / হঠাৎ ইরান সফরে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দল

২০
*/ ?>
X