সিলেট ব্যুরো ও সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 8
প্রকাশ : ০৮ জুন ২০২৩, ১২:০০ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে সিলেটে ১৪ প্রাণহানি

কৃষিকাজ করে পরিবারের খরচ মেটানো যাচ্ছিল না। তাই শ্রমিক হিসেবে কাজ করে বাড়তি আয়ের মাধ্যমে পরিবারকে সহযোগিতা করতে সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়া গ্রাম থেকে সিলেটে এসেছিলেন সৌরভ। সব আশা তার শেষ হলো একটি মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায়। দুর্ঘটনায় সৌরভের মৃত্যুর খবর তার বাবা সিরাজ মিয়া পেলেন সকালে বাড়ির কাজ করার সময়। এ খবরে যেন তার মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে। ছেলে হারানোর খবর পেয়ে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন তিনি। বুধবার সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়া গ্রামে। ছবি : কালবেলা
কৃষিকাজ করে পরিবারের খরচ মেটানো যাচ্ছিল না। তাই শ্রমিক হিসেবে কাজ করে বাড়তি আয়ের মাধ্যমে পরিবারকে সহযোগিতা করতে সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়া গ্রাম থেকে সিলেটে এসেছিলেন সৌরভ। সব আশা তার শেষ হলো একটি মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায়। দুর্ঘটনায় সৌরভের মৃত্যুর খবর তার বাবা সিরাজ মিয়া পেলেন সকালে বাড়ির কাজ করার সময়। এ খবরে যেন তার মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে। ছেলে হারানোর খবর পেয়ে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন তিনি। বুধবার সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়া গ্রামে। ছবি : কালবেলা

সিলেটে ট্রাক ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। গতকাল বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার নাজিরবাজার এলাকার কুতুবপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহতদের ৯ জনই সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের, তিনজন একই জেলার শান্তিগঞ্জ উপজেলার, একজন হবিগঞ্জের এবং একজন নেত্রকোনার।

নিহতরা হলেন—সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের মো. সিজিল মিয়া, একলিম মিয়া, হারিছ মিয়া, সৌরভ মিয়া, সাজেদুর, বাদশা মিয়া, সাধু মিয়া, রশিদ মিয়া, মেহের, শান্তিগঞ্জ উপজেলার শাহীন মিয়া, দুলাল মিয়া, আওলাদ হোসেন, হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের আমিনা বেগম এবং নেত্রকোনার বারহাট্টার আওলাদ মিয়া। ফায়ার সার্ভিস ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সিলেট মহানগর থেকে পিকআপে করে প্রায় ৩০ নারী-পুরুষ নির্মাণ শ্রমিক জেলার ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজার যাচ্ছিলেন। বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দক্ষিণ সুরমার নাজিরবাজার এলাকার কুতুবপুরে পিকআপটির সঙ্গে মুন্সীগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ১১ জন নিহত হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান আরও তিনজন।

খবর পেয়ে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ এবং সিলেট ও ওসমানীনগরের ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একাধিক ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় হতাহতদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সিলেটের উপপরিচালক মনিরুজ্জামান কালবেলাকে বলেন, আমরা খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। আসার পর অন্তত ১০ জন গুরুতর আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালে পাঠাই। অবশ্য আমরা আসার আগে স্থানীয়রা আহত কয়েকজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। ঘটনাস্থলেই ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দ্বিতীয় স্বামীকেও হারালেন শারমিন

দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুরের দুলাল মিয়া। ছয় মাস আগে সুনামগঞ্জের ছাতকে বালুবাহী দুটি নৌকার সংঘর্ষে প্রাণ হারান তার বড় ভাই হেলাল আহমদ।

নিহতের চাচা গোলাম নূর জানান, হেলালের রেখে যাওয়া অসহায় দুই সন্তানের কথা চিন্তা করে তার স্ত্রী শারমিনকে দুলালের কাছে আড়াই মাস আগে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের আড়াই মাসের মাথায় দ্বিতীয় স্বামী দুলালকেও হারাল শারমিন। মেয়েটি এখন দুই সন্তান নিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছে।

বাবা-ছেলে মিলে পরিবারের সচ্ছলতা ফেরানো হলো না দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের রশিদ মিয়া। বৈশাখের ধান তুলেও তিনি ঋণের টাকা পরিশোধ করতে পারেননি। ঋণের চাপে সিলেটে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে গিয়েছিলেন। স্ত্রী ও তিন সন্তান নিয়ে তার পরিবার। সর্বশেষ নিহত রশিদের সঙ্গে গত মঙ্গলবার রাতে কথা হয় তার পরিবারের। মোবাইল ফোনে তিনি জানিয়েছিলেন, ছেলে বাপ্পীকে সিলেটে নিয়ে যাবেন। সেখানে যে কোনো দোকানে একটা চাকরি পাইয়ে দেবেন। তারপর তারা (বাবা-ছেলে) মিলে পরিবারের সচ্ছলতা ফেরানোর চেষ্টা করবেন। কিন্তু তাদের সে স্বপ্ন পূরণ হলো না।

বাপ্পী বলল, মঙ্গলবার বাবা ফোন দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, আমাকে সিলেটে নিয়ে উনার কাছে রাখবেন, আমাকে একটা চাকরির ব্যবস্থাও করে দেবেন। কিন্তু ঘুম থেকে উঠেই শুনি বাবা আর নেই।

এদিকে রশিদের স্ত্রী রাসিবা বেগমের আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে ঘরের আশপাশ। কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, আমার পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী আমার স্বামী। তাকে ছাড়া আমি বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে কেমনে জীবন কাটাব।

ভাড়া বাঁচাতে পিকআপে করে নেওয়া হচ্ছিল শ্রমিকদের দিরাই ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বদরুল আলম চৌধুরী মিফতাহ বলেন, নিহত সবাই ঢালাই শ্রমিক। বেশিরভাগ পরিবারই সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম মানুষ হারিয়েছেন। ভাড়া বাঁচাতেই নির্মাণ শ্রমিকদের পিকআপে করে নেওয়া হচ্ছিল। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের দুর্ঘটনা না ঘটে সেজন্য প্রশাসনকে এদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। এ ঘটনায় দোষীদের বিচারের জন্য ব্যবস্থা নিতে হবে।

ওসমানী হাসপাতালে স্বজনদের আহাজারি দুর্ঘটনার পর থেকেই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গের সামনে ভিড় বাড়তে থাকে। যারাই জড়ো হয়েছেন তাদের চোখেমুখে লেগে আছে কান্নার ছাপ। কেউ বিলাপ করছেন আবার কেউ কাঁদছেন। কারণ তাদের মধ্যে কেউ হারিয়েছেন বাবা, কেউ স্বামী আবার কেউ হারিয়েছেন ভাই কিংবা সন্তান। এ সময় আপনজন হারানোর আর্তনাদে ভারি হয়ে ওঠে হাসপাতাল চত্বর।

বাবাকে হারিয়ে বিলাপ করতে করতে দুর্ঘটনায় আহত মিজান বলেন, বাবাকে নিয়ে সকালে কাজের জন্য ওসমানীনগরের তাজপুর যাচ্ছিলাম। দুর্ঘটনায় আমাদের গাড়ির লোকজন ছিটকে গিয়ে ট্রাকের নিচে এবং রাস্তার ওপর পড়ে যান। ঘটনাস্থলে আমার বাবাসহ ১১ জন মারা যান। কীভাবে কী হয়ে গেল তা বুঝতে পারিনি।

দুর্ঘটনায় আহত ঠিকাদার শের ইসলাম বলেন, আমার বড় ভাই মারা গেছেন। আমি আছি অথচ আমার ভাই নাই। আর কোনোদিন ভাইয়ের সঙ্গে কাজে যাওয়া হবে না।

কান্না করতে করতে রাজিয়া বেগম বলছিলেন, আমার সব শেষ হয়ে গেল। এভাবে চলে যাবেন জানলে ভাইকে কাজে পাঠাতাম না।

চাচাতো ভাইকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মর্তুজ আলী বলেন, ভাই আর নেই। আজ থেকে আমার আর কেউ আপন রইল না।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানিয়েছেন, নিহতদের স্বজনরা তাদের নাম-পরিচয় নিশ্চিত করেছেন। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহগুলো তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের দেখতে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান সিলেট সফররত নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। এ সময় প্রতিমন্ত্রী আহতদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। তিনি সরকারের পক্ষ থেকে নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ২০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দেন। প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। তিনি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে হতাহতদের পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে অনুদান দেন। এ সময় ছিলেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন মৃৎশিল্পীদের

মধ্যপ্রাচ্যে টিকে থাকতে ইসরায়েলকে যা করতে বললেন বাইডেন

রাজপথ দখলে আবারও মাঠে নামছে ইমরান খানের পিটিআই

আ.লীগ নেতার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার

এক শর্তে জাহাজে হামলা বন্ধের বিষয়টি বিবেচনা করবে ইয়েমেন

গাজীপুরে মার্কেটে আগুন

শিক্ষার্থীকে শাসন করায় শিক্ষককে বেধড়ক মারধর

প্যারিসে একুশের কবিতা পাঠ ও আলোচনা সভা

রাশিয়ার ভয়ে পিছু হটল ন্যাটো

নসিমন-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

১০

২৮ ফেব্রুয়ারি : কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

১১

বুধবার রাজধানীর যেসব এলাকায় যাবেন না

১২

২৮ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

১৩

কর্ণফুলী নদীতে ৩ দিন বন্ধ থাকবে ফেরি চলাচল

১৪

মিয়ানমার সীমান্ত এখন শান্ত, ফের গোলাগুলি শুরুর আশঙ্কায় আতঙ্ক

১৫

বোনাস দাবিতে সার কারখানা শ্রমিকদের মানববন্ধন

১৬

সিলেটে পরিবহন শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু আজ

১৭

হাসপাতালে রেখে তরুণ-তরুণী উধাও, ছোটমণি নিবাসে ঠাঁই হলো নবজাতকটির

১৮

চট্টগ্রামে শাস্তির মুখে ৮ ল্যাব-হাসপাতাল

১৯

এবার বাড়ছে সব ধরনের ছোলা ও ডালের দাম

২০
X