জাজিরা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১০ জুলাই ২০২৪, ১১:০১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

হাতের সঙ্গে উঠে আসছে দুই কোটি টাকার রাস্তা

হাতের টানে উঠে আসছে রাস্তার কার্পেটিং। ছবি : কালবেলা
হাতের টানে উঠে আসছে রাস্তার কার্পেটিং। ছবি : কালবেলা

শরীয়তপুরের জাজিরার পশ্চিম নাওডোবা ইউনিয়নের সিকদার মার্কেট থেকে আবেদ আলী মুন্সি কান্দির আড়াই কিলোমিটার সড়কের কার্পেটিংয়ের কাজ গত ২৮ জুন শেষ হয়েছে। এরইমধ্যে কার্পেটিংয়ের পাথর ঝরঝরা হয়ে উঠে যাচ্ছে। এ ছাড়াও হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিংয়ের পুরো অংশ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, শুরু থেকে সড়কটিতে নিম্নমানের ও প্রয়োজনের চেয়ে কম নির্মাণসামগ্রী দিয়ে কাজ করা হচ্ছিল। এলাকাবাসী বাধা দিলে তা উপেক্ষা করে ঠিকাদার কাজ অব্যাহত রাখেন।

শরীয়তপুর জেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২০২২-২৩ অর্থবছরে জাজিরা উপজেলার নাওডোবা হাট থেকে পশ্চিম নাওডোবা সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয় এলজিইডি। ২ হাজার ৫২৫ মিটার দীর্ঘ এ সড়কের উন্নয়নকাজে ব্যয় ধরা হয় ২ কোটি ১০ লাখ ১৫ হাজার ৩৬১ টাকা। কাজটি বাস্তবায়নের দায়িত্ব পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স মোস্তফা অ্যান্ড সন্স।

২০২৩ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি কাজটি শুরু হয়ে সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিল চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি। তবে মেয়াদ উত্তীর্ণ হলেও যথাসময়ে কাজটি সম্পন্ন করতে পারেনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এদিকে এ প্রকল্পের বিল বাবদ ১ কোটি ৪৫ লাখ ৩৮ হাজার ২৮ টাকা তুলে নিয়েছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানটি।

সরেজমিনে ওই সড়কে গিয়ে দেখা যায়, সড়কটির পশ্চিম নাওডোবার সিকদার মার্কেট থেকে আবেদ আলী মুন্সী কান্দি পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গেছে। এ ছাড়াও বিটুমিনের পরিমাণ কম হওয়ায় সড়কের মাঝে মাঝে কার্পেটিংয়ের পাথর ঝরঝরা হয়ে উঠে যাচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা মনির হোসেন মুন্সি অভিযোগ করে কালবেলাকে বলেন, ঠিকাদার সড়কটির কার্পেটিং করার সময় পুরোনো ইটের খোয়া ও নিম্নমানের বিটুমিন ব্যবহার করেছেন। এ ছাড়াও সড়কটি সংস্কারের সময় সঠিকভাবে রোলিং ও মজবুতিকরণ না করে তড়িঘড়ি করে কাজ শেষ করেছে। ফলে কয়েকদিন না যেতেই কার্পেটিং উঠে গিয়ে আগের মতো খানাখন্দের সৃষ্টি হচ্ছে।

ভ্যানচালক আয়নাল শেখ কালবেলাকে বলেন, ঠিকাদার এখানে চরম দুর্নীতি ও কাজে অবহেলা করেছে। তাই এই রাস্তার কাজ শেষ না হতেই এমন বেহাল অবস্থা হচ্ছে। সরকারের কাছে আবেদন আমাদের এই রাস্তাটি সঠিকভাবে কাজ করে দেওয়া হোক।

ইউপি সদস্য জুলফিকার আলী কালবেলাকে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় পদ্মা সেতুর উছিলায় আমরা এ অঞ্চলের মানুষ নতুন সংযোগ সড়ক পেয়েছি। কয়েকদিন আগে এ রাস্তার কার্পেটিং শেষ হয়েছে। কাজ শেষ হওয়ার পরে কিছুদিন না যেতেই বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের যে ধারা সেটি ঠিকাদারের গাফিলতিতে ব্যাঘাত ঘটেছে। আমাদের দাবি, সড়কটি পুনরায় সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হোক।

এ সড়কের সংস্কার কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি আবু বেপারী কালবেলাকে বলেন, ১০ দিন হয়েছে ঐ সড়কের কার্পেটিংসহ সব কাজ শেষ হয়েছে। এখন কোনো সমস্যা হয়ে থাকলে তা ঠিক করে দেওয়া হবে। ১০ দিনের মাথায় কার্পেটিং উঠে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, কাজ করার সময় বৃষ্টি ছিল তাই ঠিকমতো বিটুমিন মেশেনি।

জাজিরা উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) মো. ইমন মোল্লা বলেন, এখনো রাস্তার কাজ শেষ হয়নি। তাছাড়া যেসব জায়গায় কার্পেটিং উঠে গেছে তা ঠিক করে দেবে ঠিকাদার।

শরীয়তপুর জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী এস এম রাফেউল ইসলাম কালবেলাকে বলেন, সড়কটি আমি পরিদর্শন করেছি। সড়কের কয়েকটি স্থানে সমস্যা পেয়েছি। ঠিকাদারকে পুনরায় ওই সড়কের ওপরে আরেকটি লেয়ার দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রকল্পের কাজের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরেও কাজ শেষ না হওয়ার বিষয়ে তাদের পদক্ষেপ কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়াদের বাইরে সময় বেশি লাগার বিষয়ে ঠিকাদার যদি যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারেন তবে তাকে প্রকল্পের সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধ করা হবে। নয়তো জরিমানা করা হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

চার্জশিট পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মোবাইল ইন্টারনেট চালুর বিষয়ে জানাল গ্রামীণফোন

‘ভিক্ষা লাগবে না একটা পত্রিকা দেন, দেশের খবর জানি’ 

প্যারিস অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যা থাকছে

যেভাবে দেখবেন অলিম্পিকে আর্জেন্টিনার ম্যাচ

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে খুলবে ঢাবি

স্থানীয় সরকারের ২২৩ পদে নির্বাচন স্থগিত

ভালো নেই মুরগি ব্যবসায়ীরা

গাজীপুরে খুলে দেওয়া হয়েছে পোশাক কারখানা

পর্যটকশূন্য কাপ্তাই পর্যটনকেন্দ্রগুলো

১০

ফিফার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ

১১

পেন্টাগনের ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ

১২

৪ বিভাগে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস

১৩

মোবাইলে অব্যবহৃত ইন্টারনেট প্যাকেজ সম্পর্কে যা জানা গেল

১৪

আর্জেন্টিনায় হতে পারে পরবর্তী কোপা

১৫

ঢাকার রাস্তায় তীব্র যানজট

১৬

নেপালে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত, প্রায় সব আরোহী নিহত 

১৭

চাকরির প্রজ্ঞাপনে যা আছে

১৮

কারফিউ বিরতিতে চলবে দূরপাল্লার বাস

১৯

অলিম্পিকে নামার আগেই স্বর্ণপদকের স্বপ্ন মাসচেরানোর

২০
X