কালবেলা প্রতিবেদক, গাজীপুর
প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:৩৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরে বৈধ প্রার্থী ২৬ জন, সাবেক সচিবের প্রার্থিতা বাতিল

গ্রাফিক্স : কালবেলা।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনের মধ্যে তিনটি আসনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষ হয়েছে। রোববার সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম যাচাই-বাছাই শেষে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ২৬ জনের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেন। এ ছাড়া ঋণখেলাপির অভিযোগে জাতীয় পার্টির নেতা ও সাবেক স্বাস্থ্য সচিব এম এম নিয়াজ উদ্দিনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।

এর আগে গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্রসহ মোট ৪৪ জন প্রার্থী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম দাখিল করেন। তাদের মধ্যে মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগের বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্যও রয়েছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার পর ৫টি সংসদীয় আসনের মধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র মিলিয়ে ৪৪ প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তাদের মধ্যে রোববার গাজীপুর-১, গাজীপুর-২ ও গাজীপুর-৩ আসনের ২৭ জন প্রার্থীর দাখিল করা কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। পরে এসব প্রার্থীর মধ্যে ২৬ জনের প্রার্থিতা বৈধ এবং ঋণখেলাপির অভিযোগে জাতীয় পার্টির এম এম নিয়াজ উদ্দিনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়। সোমবার গাজীপুর-৪ ও গাজীপুর-৫ আসনের প্রার্থীদের তথ্য বাচাই-বাছাই করা হবে।

এদিকে নির্বাচনে প্রার্থিতা বৈধতা ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়ায় অবাধ ও সুষ্ঠু এবং অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন প্রত্যাশা করেন প্রার্থীরা। এ ব্যাপারে গাজীপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেল বলেন, এখন যিনি নৌকার প্রার্থী হয়েছেন তিনি উপজেলা ও পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার বিরোধিতা করছেন। এজন্য এ আসনের জনগণ তাকে সাড়া দেবে না। নৌকাপ্রেমিক জনগণ তাদের সেই ক্ষত মনে রেখে আমাকে বেছে নেবেন।

গাজীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, গাজীপুর-২ আসনের মানুষ বিশেষত তরুণরা একটি অর্থবহ পরিবর্তন চায় ‌। সেই জন্য তারা এবার আমাকে বেছে নিবেন বলে আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।

জাসদের প্রার্থী জহিরুল হক মন্ডল বলেন, গাজীপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে বিরোধ চরমে। তাই শান্তিপ্রিয় মানুষ জাসদকে বেছে নেবেন।

তৃণমূল বিএনপির আব্দুল জব্বার সরকার বলেন, যদি আমার এবং আমার কর্মীদের নিরাপত্তা দেওয়া হয় এবং সুষ্ঠু ভোট হয় তবে ৭ জানুয়ারি ভোটে নির্বাচিত হব বলে আমি আশাবাদী।

নির্বাচনের তপশিল সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল ও নিষ্পত্তি হবে ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। আর প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৮ ডিসেম্বর। ৫ জানুয়ারি প্রচার শেষ করে ৭ জানুয়ারি ভোট। গাজীপুরের ৫টি আসনে এবার মোট ভোটার সংখ্যা ২৬ লাখ ১৩ হাজার ৬২৯। তাদের জন্য মোট ভোট কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৩৫টি।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঘুষ-দুর্নীতির আখড়া জাজিরার বড়কান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিস

মীন রাশিতে কাজে সফল হওয়ার দিন আজ

২৭ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

মঙ্গলবার রাজধানীর যেসব এলাকায় যাবেন না

কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

প্যারিসে ভাষা দিবস উপলক্ষে পঞ্চ কবির গানের সন্ধ্যা

বাবাকে কুপিয়ে জখম, ছেলে গ্রেপ্তার

আধিপত্য বিস্তারে দুই গ্রুপের ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৩

পথ হারানো ৩১ দর্শনার্থীকে উদ্ধার করল পুলিশ

শিক্ষা সফরে মদপান, দুই শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

১০

মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা!

১১

রাতের ঢাকায় নতুন মাদক

১২

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

১৩

রংপুরকে উড়িয়ে ফাইনালে লিটনের কুমিল্লা

১৪

যুগান্তরের অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে

১৫

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

১৬

যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

১৭

করোনায় আক্রান্ত ডিবি প্রধান হারুন

১৮

‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ নামকরণের প্রস্তাব বাতিল

১৯

বর্ণাঢ্য আয়োজনে চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের নবীনবরণ

২০
X