শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রকাশ : ৩০ জুলাই ২০২৩, ০৪:৩৪ পিএম
আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২৩, ০৪:৪১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির কর্মসূচিতে হামলায় ঢাবি সাদা দলের উদ্বেগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

গতকাল শনিবার ঢাকার প্রবেশপথে বিএনপি ও সমমনা দল এবং জোটগুলোর পূর্বনির্ধারিত শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচিতে পুলিশ ও সরকারদলীয়দের ন্যক্কারজনক আক্রমণ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং ঢাকা উত্তরের আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানসহ নেতাকর্মীদের নির্যাতন এবং নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাদা দল।

সংগঠনের আহ্বায়ক অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান ও মো. আবদুস সালাম রোববার (৩০ জুলাই) এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, বিগত দুটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ বর্তমান আওয়ামী লীগ দলীয় সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনসমূহে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে না পারার তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে এ দেশের মানুষ আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি করছে। গণমানুষের এ প্রাণের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে বিএনপি এবং সমমনা রাজনৈতিক দল ও জোট যুগপৎভাবে ১ দফাভিত্তিক আন্দোলন করে যাচ্ছে। এই ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত শনিবার রাজধানী ঢাকার প্রবেশপথে শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে পুলিশ ও সরকারদলীয়রা হামলা করে।

তারা বলেন, সভা-সমাবেশ করা মানুষের মৌলিক ও নাগরিক অধিকার। পাল্টা রাজনৈতিক কর্মসূচি দিয়ে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে এ নাগরিক অধিকার প্রয়োগে বাধা এবং ন্যক্কারজনক হামলা ও নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের মাধ্যমে সরকারের অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসিবাদী চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এ ধরনের ফ্যাসিবাদী ও একগুঁয়েমি আচরণ দেশে নতুনভাবে সংঘাতের পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে বলে আমরা আশঙ্কা করছি। দেশ ও জাতির স্বার্থে এটি কোনোভাবেই কাম্য নয়।

ঢাবি সাদা দলের শিক্ষক নেতারা বলেন, অগণতান্ত্রিক আচরণ, মানবাধিকার লঙ্ঘন, সীমাহীন দুর্নীতি ইত্যাদির ফলে বর্তমান সরকার কেবল দেশের জনগণের কাছেই নয়, আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে। একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের দাবিতে সরকারের ওপর দেশি-বিদেশি চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকার অস্বস্তিতে পড়েছে। এ অবস্থায় সরকারি দল রাষ্ট্রীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাহায্যে বিরোধী রাজনৈতিক দলসমূহের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমনের পথ বেছে নিচ্ছে। আরেকটি প্রহসনের নির্বাচন আয়োজনের মাধ্যমে আবারও ক্ষমতায় থাকার চক্রান্ত করছে।

আরও পড়ুন : ডিবিপ্রধানের বাসার খাবার খেয়েছি : গয়েশ্বর

তারা আরও বলেন, আমরা মনে করি, এবার তাদের এ অপচেষ্টা সফল হবে না। কাজেই দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে জনদাবির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সরকারের পদত্যাগ এবং একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন আয়োজনের ঘোষণা প্রদানের জন্য আমরা সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বান্দরবান ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করছে প্রশাসন

গরুর ঘাস খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৩৫

ভাসানটেকে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৬ জনের অবস্থাই আশঙ্কাজনক

নেইমারকে নিয়েই ট্রফি উদযাপন আল হিলালের

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তির জেরে দুপক্ষের সংঘর্ষ

৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই ইসরায়েলে হামলা চালাতে পারে ইরান

আ.লীগের মতো ককটেল পার্টিতে বিশ্বাসী নয় বিএনপি : রিজভী

শাকিবকে বেচতে ব্যস্ত বুবলী

ঈদের পরে বদহজম থেকে বাঁচার উপায়

ইরান-ইসরায়েল দ্বন্দ্ব : মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা

১০

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

১১

সুখবর দিলেন সালমান খান 

১২

হাজারীবাগের বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে 

১৩

তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকবে, বাড়বে গরম

১৪

টেকনাফে আবারও গোলাগুলি ও মর্টার শেলের শব্দ

১৫

অন্তরঙ্গ ছবি দিয়ে তোপের মুখে শোয়েব

১৬

হাজারীবাগের বস্তিতে আগুন

১৭

ভাইয়ের মৃত্যুর খবর শুনে মারা গেলেন বোন 

১৮

বন্দুক হাতে ঈদের খুতবায় ইরানের সর্বোচ্চ নেতা

১৯

হ্রদের জলে ভাসল বিজুর ফুল

২০
*/ ?>
X