কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:৪৬ পিএম
আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:৫০ পিএম
অনলাইন সংস্করণ
লেটস টক

স্মার্ট বাংলাদেশ নিয়ে তরুণদের প্রশ্নের উত্তরে যা জানালেন সজীব ওয়াজেদ

‘লেটস টক’-এর ৫১তম পর্বে সিআরআই চেয়ারপারসন সজীব ওয়াজেদ।

২০০৮ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারণা প্রদানের পর যা মনে হয়েছিল অবিশ্বাস্য, যে বিষয়টি নিয়ে হাসিঠাট্টা করেছিলেন অনেকে। আজ ১৫ বছর পর তা করে দেখিয়েছে বাংলাদেশ। দ্রুত গতি ও স্বল্পমূল্যে ইন্টারনেট, ডিজিটাইজড সরকারি সুবিধা, দেশে তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক পণ্য তৈরির জন্য ওয়ালটনসহ আরও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠা, স্যামসং-এর মতো প্রতিষ্ঠানের বাংলাদেশে পণ্য তৈরি ও অ্যাসাম্বল কার্যক্রমসহ অসংখ্য পরিবর্তন আজ জানিয়ে দিচ্ছি কতটা সফলভাবে গড়ে তোলা হয়েছে ডিজিটাল বাংলাদেশকে। এই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার পেছনে যিনি সবচাইতে বলিষ্ঠ রেখেছেন সেই সজীব ওয়াজেদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল স্মার্ট বাংলাদেশ ও ডিজিটাল বাংলাদেশের পার্থক্য নিয়ে। সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর সিগনেচার অনুষ্ঠান ‘লেটস টক’-এর ৫১তম পর্বে তরুণদের এসব প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা সজীব ওয়াজেদ।

এবার ২০৪১ রূপকল্পে তরুণদের জন্য স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার ভিশন নিয়ে আসে আওয়ামী লীগ। আর সেই স্মার্ট বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে সজীব ওয়াজেদকে নানা রকম প্রশ্ন করেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা তরুণরা। স্মার্ট বাংলাদেশ ও ডিজিটাল বাংলাদেশের পার্থক্য কী? তরুণদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কী ভূমিকা রাখবে ভবিষ্যতের স্মার্ট বাংলাদেশ? স্মার্ট বাংলাদেশ থেকে কী পাবে তরুণরা? শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) রাত ১০টায় বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে সম্প্রচার হওয়া লেটস টক অনুষ্ঠানে সিআরআই চেয়ারপারসন সজীব ওয়াজেদ এসব প্রশ্নের উত্তর দেন।

এ সময় তিনি বলেন, এখন আমরা ডিজিটালাইজড করা নিয়ে চিন্তা করছি না। বরং ভাবছি কোন কোন ক্ষেত্রকে আমরা পরিবর্তন করব, আরও আপগ্রেড করব। যেমন আমরা টার্গেট করেছি এআই এক্সপার্টিজ তৈরির। আমরা এআই তৈরি করব, যা নিজেদের কাজে ব্যবহার করব। সেটা সরকারি কাজে কিংবা শিক্ষার ক্ষেত্রে।

তিনি বলেন, যখন শুরু করি, বাংলাদেশে ডিজিটাল বলতে কিছুই ছিল না। ইন্টারনেটই ছিল না। মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ছিল না। সরকারি কোনো কিছুই ডিজিটাল ছিল না। ডিজিটালের টার্গেট ছিল, প্রথমে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বানাতে হবে। সেটা আমরা করে ফেলেছি। এখন সবার হাতেই দেশজুড়ে ফোরজি ইন্টারনেট আছে। প্রতিটি ইউনিয়নে এখন ডিজিটাল সার্ভিস সেন্টার রয়েছে। এখানে আপনাদের সবার হাতেই স্মার্ট ফোন রয়েছে। ডিজিটাল হয়ে গেছে। এরপর আমাদের পরবর্তী ধাপে যাওয়ার পালা।

এখন গবেষণার সময় জানিয়ে সজীব ওয়াজেদ বলেন, এআই বা মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইন নিয়ে আমরা গবেষণা শুরু করব। আগে ইলেক্ট্রনিক্স যেগুলো বাংলাদেশ আমদানি করতো, যা চায়না এখন এক্সপোর্ট করছে- যেমন মাদারবোর্ড, স্মার্ট ফোন বা এ জাতীয় পণ্যগুলো বাংলাদেশ রপ্তানি করবে। এটাই হচ্ছে স্মার্ট বাংলাদেশ।

বিদেশ থেকে টেকনোলজি পণ্য আমদানি করার বদলে নিজেদের তৈরি, মাইক্রোপ্রসেসরসহ সম্পূর্ণ ভ্যালু চেইন তৈরি

বিদেশ থেকে টেকনোলজি পণ্য আমদানি করার বদলে নিজেদের দেশি তৈরি করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে জানিয়ে অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আপনাকে বুঝতে হবে, টেকনোলজি একটি টুলস। ডিজিটাল বাংলাদেশ যখন আমরা শুরু করি, সরকারি যত প্রক্রিয়া ডিজিটাইজড করা হয়েছে সে কাজটি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোই করেছে। তখন থেকেই আমরা চেষ্টা করছি, কম্পিউটার-মোবাইল কীভাবে বাংলাদেশ স্বল্প খরচে তৈরি করা যায়। এখন ওয়ালটনের মতো কোম্পানি বাংলাদেশ থেকে পণ্য উৎপাদন করছে। স্যামসাং এর মতো কোম্পানি বাংলাদেশ থেকে তাদের প্রোডাক্ট অ্যাসাম্বল করছে। আমরা কিন্তু স্টেপ বাই স্টেপ আগাচ্ছি। আমরা স্মার্ট বাংলাদেশে আরেকটি লক্ষ্য রেখেছি যে মাইক্রোপ্রোসেসর ডিজাইনে আমরা যাব। এর অর্থ হলো আরেকটি ভ্যালু চেইন বাংলাদেশেই বানাতে পারব। কিন্তু সেটা অনেক কঠিন। চায়নাও কিন্তু চেষ্টা করে কেবল সেই পর্যায়ে যাচ্ছে, পৌঁছায়নি। আমরা বিশ্বাস করি এখন চেষ্টা করে এখনই করে ফেলব তা নয়, কিন্তু এখন থেকে অন্ততপক্ষে চেষ্টাটা শুরু করলে হয়তো ২০ বছর পর আমরা মাইক্রো প্রসেসর তৈরি করতে পারব। এটা আমাদের শুরু করতে হবে এবং এটা আমরা শুরু করেছি।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা

এ সময় এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার চ্যালেঞ্জ নিয়ে করা এক প্রশ্নের উত্তরে সজীব ওয়াজেদ বলেন, এআই কিন্তু এখনো সেই স্টেজে যায়নি, যেই স্টেজে গেলে তা দুনিয়া দখল করে ফেলবে। একেবারেই শেখার একটা পর্যায়ে রয়েছে। বিশ্বের অনেক বিশেষজ্ঞদের থেকেই এআই নিয়ে আমার মতামত একটু ভিন্ন। আমি মনে করি এআই শুধু একটি টুলস। এটি আমাদের চাকরি, কাজ-কর্ম সব দখল করে নেবে এমন নয়। এটা আমাদের নিজেদের জীবনে, নিজেদের টেকনোলজিকে উন্নত করার জন্য ব্যবহৃত একটি টুল। এখন সোশ্যাল পরিবর্তন সম্পর্কে জানতে বা কৃষি বিষয়ে জানতে ও অ্যানালাইসিস করতে এই টুলসটি আমাদের সাহায্য করে। তাই বর্তমানে আমি এআইকে মনে করি একটা গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় টুলস হিসেবে। আর এ কারণেই স্মার্ট বাংলাদেশে আমরা ৪টি বিষয়কে টার্গেট করেছি। তার মধ্যে একটি সেক্টর হলো এআই। বাংলাদেশ এআই-তে এক্সপার্টিজ ডেভলোপ করবে। এটা একটা লক্ষ্য।

গবেষণায় গুরুত্বারোপ

আইসিটি মন্ত্রণালয় থেকে অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে গবেষণা কার্যক্রমের জন্য পার্টনারশিপ করা হয়েছে জানিয়ে সজীব ওয়াজেদ বলেন, শেখ কামাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট বানানো হয়েছে দেশজুড়ে গবেষণার জন্যই। গবেষণাকে কেন্দ্র করেই মূলত আমি আইসিটিবিষয়ক পরিকল্পনা করেছি। ভবিষ্যতে যেন আমরাই আইসিটি বিশেষজ্ঞ তৈরি করতে পারি এবং টেকনোলজিতে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারে। সেটা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স হোক বা কোয়ান্টাম কম্পিউটার।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মানোন্নয়নে গবেষণার বিকল্প নেই জানিয়ে তিনি বলেন, আমি যেটাকে গুরুত্ব দিয়েছি বিশেষত আইসিটি সেক্টরে। সেই লেভেলে পৌঁছাতে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গবেষণায় আরও গুরুত্ব দিতে হবে। এমআইটি বলেন বা হার্ভার্ড বলেন। তারা এত ভালো করেছে দুর্দান্ত সব গবেষণা কার্যক্রমের কারণে। আমাদেরও গবেষণার সুযোগ বাড়াতে হবে, ফান্ডিং বাড়াতে হবে। এমনটা করতে থাকলে নিশ্চয়ই একদিন আমাদের দেশেও হার্ভার্ডের মতো একটি বিশ্ববিদ্যালয় একদিন গড়ে উঠবে।

দেশের নীতি-নির্ধারকদের সঙ্গে তরুণদের সেতুবন্ধন গড়ে দিতে ২০১৪ সাল থেকে ইয়াং বাংলা ‘লেটস টক’ শিরোনামে এ আয়োজন করছে। ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়েও আয়োজন করা হয় লেটস টক যেখানে দেশ নিয়ে তরুণদের ভাবনার কথা শোনেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে তরুণদের নিয়ে তার ভাবনার কথাও জানান এই অনুষ্ঠানে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

শীতে খুশকির সমস্যা সমাধান করুন ঘরে বসেই

ঘুষ-দুর্নীতির আখড়া জাজিরার বড়কান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিস

মীন রাশিতে কাজে সফল হওয়ার দিন আজ

২৭ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

মঙ্গলবার রাজধানীর যেসব এলাকায় যাবেন না

কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

প্যারিসে ভাষা দিবস উপলক্ষে পঞ্চ কবির গানের সন্ধ্যা

বাবাকে কুপিয়ে জখম, ছেলে গ্রেপ্তার

আধিপত্য বিস্তারে দুই গ্রুপের ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৩

পথ হারানো ৩১ দর্শনার্থীকে উদ্ধার করল পুলিশ

১০

শিক্ষা সফরে মদপান, দুই শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

১১

মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা!

১২

রাতের ঢাকায় নতুন মাদক

১৩

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

১৪

রংপুরকে উড়িয়ে ফাইনালে লিটনের কুমিল্লা

১৫

যুগান্তরের অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে

১৬

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

১৭

যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

১৮

করোনায় আক্রান্ত ডিবি প্রধান হারুন

১৯

‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ নামকরণের প্রস্তাব বাতিল

২০
X