কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২১ মে ২০২৪, ০৪:৩৩ এএম
অনলাইন সংস্করণ

ইরানে ঘটে যাওয়া বড় বড় বিমান দুর্ঘটনা

দুর্ঘটনাকবলিত বিমানের ধ্বংসাবশেষ। ছবি : সংগৃহীত
দুর্ঘটনাকবলিত বিমানের ধ্বংসাবশেষ। ছবি : সংগৃহীত

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। তার নিহতের ঘটনায় আবারও সামনে এসেছে ইরানের দুর্বল বিমান ব্যবস্থা। দেশটিতে অনেক আগে থেকেই বিমানখাতে দুর্বলতার প্রমাণ রয়েছে। এর আগেও বেশকিছু বড় বড় দুর্ঘটনার স্বাক্ষী হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটি।

সোমবার (২০ মে) কাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, ১৯৭৯ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ২৫৩টি বিমান দুর্ঘটনার স্বাক্ষী হয়েছে ইরান। এতে দেশটির তিন হাজার ৩৩৫ জন নিহত হয়েছেন। জেনেভাভিত্তক ব্যুরো অব এয়ারক্রাফট এক্সিডেন্ট আর্কাইভসের বরাতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

১৯৮০ সালের ২১ জানুয়ারি ইরান এয়ারের একটি বোয়িং ৭২৭-১০০ বিমান তেহরানের আলবোর্জ রেঞ্জের একটি পাহাড়ের ঢালে আঘাত হানে। এ দুর্ঘটনায় ১২৮ জন যাত্রী নিহত হন।

দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে বলা হয়, অকার্যকর ইন্সট্রুমেন্ট ল্যান্ডিং সিস্টেম (আইএলএস) এবং রাতের কারণে দৃশ্যমানতা কমে যাওয়া ও প্রতিকূল আবহাওয়া।

১৯৮৬ সালের ৩ নভেম্বর ইরানের বিমানবাহিনীর একটি লকহিড সি-১৩০ হারকিউলিস দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ওই সময় বিমানটি নূন্যতম নিরাপদ উচ্চতা থেকে সাড়ে ছয় হাজার ফিট থেকে নিচে চলে আসে এবং সিস্তান বেলুচিস্তান প্রদেশে এটি পাহাড়ের ঢালে আঘাত করে। এতে ১০৩ জন যাত্রীসহ সকলে মারা যান। এ সময় বিমানে ৯৬ জন সেনা ছিলেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, উচ্চতা পরিমাপ করতে ব্যবহৃত অল্টিমিটারে একটি ত্রুটির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

১৯৮৮ সালের ১৩ জুলাই ইরানের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটে। এদিন ইরান এয়ার পরিচালিত একটি এ৩০০ এয়াবাসে মার্কিন নৌবাহিনীর ক্রুজার ইউএসএস ভিনসেনেস থেকে ভুলক্রমে সামরিক বিমান ভেবে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে করে বিমানের ২৯০ জন যাত্রী নিহত হন।

২০০২ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি ইরান এয়ারটুরের একটি টুপোলেভ টিইউ-১৫৪ বিমান খোরমাবাদে একটি পাহাড়ের ঢালে আঘাত হানে। বিমানটি তার গতিপথ থেকে ছিটকে পড়ায় বিষয়টি ক্রুরা বুঝতে না পারার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ১১৯ আরোহী নিহত হন। তাদের মধ্যে চারজন স্প্যানিশ নাগরিক ছিলেন। প্রতিকূল আবহাওয়ায় দৃশ্যমানতা কমে যাওয়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ।

এরপর ২০০৩ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি) পরিচালিত ইলুশিন II-৭৬ সিরিজের একটি বিমান অবতরণের সময় পাহাড়ে আঘাত হানে। এ সময় বিমানের ২৭৫ জন যাত্রী নিহত হন।

২০০৯ সালের ১৫ জুলাই ক্যাস্পিয়ান এয়ারলাইন্স পরিচালিত একটি টুপলোভ টিইউ-১৫৪ বিমান অস্বাভাবিকভাবে নিচে নামতে থাকে এবং কাজভিনের একটি খোলা মাঠে বিধ্বস্ত হয়। এ সময় বিমানের ১৬৮ যাত্রী নিহত হন। যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে দুঘটনার কবলে পড়ে এ বিমান।

এছাড়া ২০২০ সালের ৪ জানুয়ারি ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স পরিচালিত একটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমান উড্ডয়নের কয়েক মিনিটির মধ্যে ভূপাতিত হয়। ওই সময় বিমানটিতে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানো হয়। এতে বিমানের ১৭৬ যাত্রী নিহত হন। পরে এ ঘটনায় ভূল স্বীকার করে ইরান।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনা
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

খোঁজ মিলল বিলাসী ভেড়ার, দাম ৮০ লাখ

ছেলেকে বাঁচাতে যাওয়ায় বাবাকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

ইসরায়েলের স্পর্শকাতর লক্ষ্যবস্তুর ফুটেজ প্রকাশ করল লেবাননের প্রতিরোধ যোদ্ধারা

খুলে দেওয়া হলো তাহিরপুরের পর্যটন স্পট

সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন ওয়াকার-উজ-জামান

এসিআইয়ে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ, কর্মস্থল ঢাকা

আ.লীগ মানুষের কল্যাণে রাজনীতি করে : এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী

ছাত্রলীগ নেত্রীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় মোহাম্মদপুরে দোয়া মাহফিল 

খালেদা জিয়া এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে : ফখরুল

১০

মতিউরের দুর্নীতি তদন্তে দুদকের ৩ সদস্যের টিম গঠন

১১

থানচি ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

১২

হোটেলে নারী পুলিশের সঙ্গে ধরা, ডেপুটি সুপার হলেন কনস্টেবল

১৩

বিশ্বকাপে আফগানদের জয় আর অঘটন নয়, সাধনার ফল!

১৪

হাসপাতালে যাওয়ার পথে ট্রাকচাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু

১৫

স্নাতক পাসে ব্র্যাক ব্যাংকে চাকরি

১৬

বিএনপি স্বাধীনতাবিরোধীদের তোষণ না করলে দেশ আরও এগিয়ে যেত : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

১৭

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ ও ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ২ পরীক্ষা স্থগিত

১৮

বুয়েটে কেন্দ্রীয় মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

১৯

অর্জনে পরিপূর্ণ আওয়ামী লীগের ৭৫ বছর

২০
X