আতাউর রহমান, ব্রাহ্মণপাড়া (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৫ মে ২০২৪, ০৪:০২ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বাগানে নজর কাড়ছে গোলাপি জবা

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে গোলাপি জবা। ছবি : কালবেলা
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে গোলাপি জবা। ছবি : কালবেলা

অতি পরিচিত একটি ফুল জবা। শোভাবর্ধনকারী ফুল হিসেবে জবার নিজস্ব সক্রিয়তা রয়েছে। জবার সৌন্দর্যে দৃষ্টি আটকায় না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। এমনই দৃষ্টি আটকানো গোলাপি জবা নজর কাড়ছে কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ফুল বাগানে। গোলাপি জবার মন ভোলানো সৌন্দর্যে বিমোহিত হচ্ছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা নিতে আসা রোগীসহ স্থানীয়রা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ফটকের পাশের ফুল বাগানে নিজেদের সৌন্দর্যের জানান দিচ্ছে গোলাপি জবা। এ ফুলের সৌন্দর্যে বিমোহিত হচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দাসহ হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগী ও রোগীর স্বজনরা। নয়নাভিরাম এ ফুলের সৌন্দর্য ক্যামেরাবন্দি করছেন অনেকেই। আবার কেউ কেউ এ ফুলের সঙ্গে তুলছেন সেলফি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবেশে গোলাপি জবা নতুন মাত্রা যোগ করেছে। ফুলপ্রেমীদের কাছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ফুলবাগান এখন দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে।

জানা গেছে, জবার অনেক প্রজাতি রয়েছে। এদের মধ্যে রক্তজবা, ঝুমকাজবা, জবা কুসুম, গোলাপি জবা ও মরিচা জবা উল্লেখযোগ্য। তবে সাধারণত গোলাপি জবা খুব একটা দেখা যায় না। গোলাপি জবা হাইব্রিড জাতের জবা। এর ইংরেজি নাম হিবিসকাস। জবা ফুল আকারে বড় হয়। এ ফুল পঞ্চমুখি ও থোকা আকারের হয়ে থাকে। জবা মালভেসি গোত্রের অন্তর্গত চিরসবুজ পুষ্পধারী গুল্ম। এর আদি নিবাস পূর্ব এশিয়াতে। এটিকে চিনা গোলাপও বলা হয়। এর নানা রঙের ফুলের জন্য বাগানের শোভাবর্ধনে লাগানো হয়।

তবে শুধু শোভাবর্ধনই নয়, জবার রয়েছে ভেষজ গুণ। আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় জবার ভূমিকা অপরিসীম। মানবদেহের নানা রোগ নিরাময়ে এটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

আয়ুর্বেদ শাস্ত্রমতে, চুল দীর্ঘ ও উজ্জ্বল করতে জবার কার্যকরী ভূমিকা রয়েছে। শরীরের ক্ষত নিরাময়ে জবা ব্যবহার করা হয়। জবার অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও প্রদাহ বিরোধী ধর্ম থাকায় এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। জবা অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা তানভীর হাসান রাসেল কালবেলাকে বলেন, ‘এ উপজেলায় আমরা সচরাচর রক্তজবা ও ঝুমকা জবা দেখতে পাই। গোলাপি জবা খুব একটা দেখা যায় না। হাসপাতালের বাগানে ফোটা গোলাপি জবা তাই মানুষকে আকৃষ্ট করছে।’

স্থানীয় বাসিন্দা মোশাররফ হোসেন অনিক কালবেলাকে বলেন, ‘হাসপাতালে আসা রোগীরা ছাড়াও এই গোলাপি জবা দেখতে অনেকেই আসছেন। এই ফুলের সৌন্দর্য মানুষকে সহজেই আকৃষ্ট করছে। অনেকেই এই গোলাপি জবা ফুলের ছবি তুলে নিচ্ছেন নিজেদের মোবাইলে।'

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইউনানি চিকিৎসক সোহেল রানা কালবেলাকে বলেন, ‘আমাদের বাগানে ফোটা নয়ন জুড়ানো গোলাপি জবার সৌন্দর্য উপভোগ করছেন অনেকেই। তবে জবা শুধু সৌন্দর্যই বিলায় না, এর রয়েছে ভেষজ গুণ। বিশেষ করে এ গাছের ফুল মানবদেহের নানা রোগে বহু আগে থেকেই ভেষজ ঔষধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। জবার অনেক প্রজাতি রয়েছে।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু হাসনাত মো. মহিউদ্দিন মুবিন কালবেলাকে বলেন, ‘আমাদের ফুল বাগানে বিভিন্ন ধরনের ফুলের আবাদ করা হয়েছে। এরমধ্যে গোলাপি জবার চারাও বপন করা হয়েছিল। এসব গাছে ফুল এসেছে। ই জবার সৌন্দর্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবেশেও পরিবর্তন এসেছে। এসব ফুলের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হচ্ছেন নানা বয়সী মানুষ।’

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

সিলেটে ৮ লাখ টাকার চিনিসহ ট্রাক জব্দ

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি, বাড়ছে নানা রোগবালাই

জাবির সাবেক উপাচার্য মারা গেছেন

চিকিৎসকদের অবহেলায় সাপে কাটা রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় যুবদলের দোয়া মাহফিল

ট্রাক্টরচাপায় প্রাণ গেল দুজনের

চাঁদা চাওয়ায় কাস্টমসের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর মামলা

এবার সিরাজগঞ্জে মিলল রাসেল ভাইপারের বাচ্চা, এলাকায় আতঙ্ক

এআইইউবি ও ফিলিস্তিনের শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

সিলেটে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

১০

১৫ লাখ টাকার একটি খাসি, কেড়ে নিল লাকীর হাসি

১১

বিশ্বকে মহাবিপদ থেকে বাঁচাতে যে সতর্কবার্তা দিল তুরস্ক

১২

হত্যা নাকি মৃত্যু, দেড় মাস পর কিশোরের লাশ উত্তোলন

১৩

কীসের বিনিময়ে মুক্তি পেলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ?

১৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৈশপ্রহরী হত্যা, দুজনের যাবজ্জীবন

১৫

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোলাইপাড়ে বিএনপির দোয়া মাহফিল

১৬

সরকারি কর্মকর্তাদের দুর্নীতি নিয়ে সংসদে ক্ষোভ

১৭

স্মার্ট নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান পলকের

১৮

মাদক-বাল্যবিবাহ-যৌতুক প্রতিরোধে ভূমিকা পালনকারীদের পুরস্কৃত করবে ছাত্রলীগ 

১৯

বিদ্যুৎস্পর্শে প্রাণ গেল কিশোরের

২০
X