নোয়াখালী ব্যুরো
প্রকাশ : ১৫ মে ২০২৪, ০৭:৫৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

‘ঘুম থেকে উঠে দেখতাম আমাদের দিকে অস্ত্র তাক করা’

সন্তানকে পেয়ে বুকে জড়িয়ে ধরেন মা। ছবি : কালবেলা
সন্তানকে পেয়ে বুকে জড়িয়ে ধরেন মা। ছবি : কালবেলা

‘রাতে আমরা জাহাজের ব্রিজে ঘুমাতাম। যখন কোনো নেভি শিপ যেত তখন জলদস্যুরা আরও সতর্ক হয়ে যেত। তখন তারা স্পেশালি আমাদের দিকে অস্ত্র তাক করে রাখত। যার কারণে নেভি শিপ গেলে আমাদের আরও সমস্যা হতো। ট্রিগার টেনে অস্ত্র আমাদের দিকে তাক করত। সবচেয়ে ভয়ংকর বিষয় হচ্ছে ঘুম থেকে উঠে চোখ খুললেই দেখতাম অস্ত্র আমার দিকে তাক করা।’

বুধবার (১৫ মে) দুপুরে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া জাহাজ এমভি আবদুল্লাহর নাবিক আনোয়ারুল হক রাজু এসব কথা জানান।

রাজু নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের আজিজুল হক মাস্টারের ছেলে।

জিম্মি থাকা ৩৩ দিনের স্মৃতিচারণ করে রাজু বলেন, শেষ যখন ওরা জেনেছে আমরা মুসলিম ছিলাম, তখন আমরা কিছুটা ছাড় পেয়েছি। মুসলিম হিসেবে ঈদের দিন ওরা আমাদেরকে ঈদুল ফিতরের নামাজ পড়ার সুযোগ দিয়েছে। ঈদের দিন জলদস্যুরা আমাদের ইঙ্গিত দেয় দুই এক দিনের মধ্যে আমাদের মুক্তিপণ আসবে। এরপর সহসায় আমাদের মুক্তি মিলবে।

ভারত মহাসাগরে সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্ত এমভি আবদুল্লাহর নাবিক রাজু প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস পর ১৪ মে রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ি ফেরেন। ওই সময় এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সাড়ে পাঁচ মাসের বেশি সময় পর রাজুকে ফিরে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন মা-বাবা। কেউ কেউ খুশিতে কাঁদতে থাকেন।

ছেলের ফিরে আসার দিনক্ষণ আগেই জানা ছিল মা-বাবার। রাজুর বন্ধুরা চট্রগ্রাম থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। এ সময় ফুল দিয়ে তাকে বরণ করে নেন মা-বাবাসহ স্বজনরা।

ভারত মহাসাগরে বাংলাদেশি পণ্যবাহী একটি জাহাজ এবং ২৩ নাবিক ও ক্রু সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাতে জিম্মি ছিলেন। মঙ্গলবার (১৪ মে) বিকেল পৌনে ৪টার দিকে সোমালিয়ায় জলদস্যুর কবল থেকে মুক্ত হওয়া এমভি আবদুল্লাহর ২৩ নাবিক দেশের মাটিতে পা রাখেন।

উল্লেখ্য, মোজাম্বিক থেকে ৫৫ হাজার টন কয়লা নিয়ে দুবাই যাওয়ার পথে গত ১২ মার্চ সোমালিয়ার দস্যুরা ২৩ নাবিকসহ জাহাজটি জিম্মি করেছিল। দেশটির উপকূল থেকে ৬০০ নটিক্যাল মাইল দূরে ভারত মহাসাগর থেকে জাহাজটি জিম্মি করেছিল সশস্ত্র জলদস্যুরা। ১৪ এপ্রিল ভোরে জাহাজটি দস্যুমুক্ত হয়।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে পাকিস্তানেও

এক অর্ধশতকে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি সাকিবের

ইউজিসি সদস্য হিসেবে অধ্যাপক জাকির হোসেনের যোগদান 

পাহাড়ধসের ঝুঁকিতে দেড় সহস্রাধিক রোহিঙ্গা পরিবার

৩৩৮ পদে বাংলাদেশ রেলওয়েতে বড় নিয়োগ

চীনকে সতর্ক করল যুক্তরাষ্ট্র

৪৮ ঘণ্টা পার হলেও এখনো অপসারণ হয়নি কোরবানির বর্জ্য 

একদিন পর শুরু কোপা, যা জানা প্রয়োজন

মৌলভীবাজারে ভয়াবহ বন্যায় পানিবন্দি অর্ধলাখ মানুষ দিশাহারা

তেজগাঁওয়ে জমি পেয়েছি, ট্রাক স্ট্যান্ড শিগগিরই : মেয়র আতিক

১০

হারিসের সঙ্গে তর্কে জড়ানো সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ!

১১

৯৯৯ নম্বরে ফোন, কার্নিশে আটকে পড়া কিশোরী উদ্ধার

১২

সাইবার ক্রাইমে যাচ্ছেন রাজস্বের সেই মতিউর

১৩

তিস্তার পানি বিপৎসীমার ১৫ সেন্টিমিটার ওপরে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

১৪

হজে ২১ বাংলাদেশির মৃত্যু, ফিরতি ফ্লাইট শুরু বৃহস্পতিবার

১৫

অপ্রাপ্ত বয়সে চুলে পাক ধরলে করণীয়

১৬

ফিমেল ৪-এর রেকর্ড 

১৭

মিরনজিল্লা পল্লিতে উচ্ছেদ চালালে আত্মাহুতির হুমকি

১৮

বুবলীর চিকিৎসা করা দরকার : অপু বিশ্বাস

১৯

আরেক দেশে সর্বাত্মক হামলার জন্য প্রস্তুত ইসরায়েল

২০
X