কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩৬ পিএম
আপডেট : ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার কোথায় তাপমাত্রা কম ও তীব্র

প্রতীকী ছবি।
প্রতীকী ছবি।

চারদিকে গরমে হাঁসফাঁস। আগুনে রৌদে অতিষ্ঠ জনজীবন। এমন পরিস্থিতিতে বাহিরে বের হওয়ার জোঁ নেই। গ্রামে বের হওয়া গেলেও কংক্রিটের এই শহরে তা ভাবাই যায় না।

গ্রামের তুলনায় রাজধানীতে গাছপালা নেই বললেই চলে। যে কারণে গরমের অনুভূতি দিন দিন তীব্র হচ্ছে। এতে করে বাড়ছে ভ্যাপসা গরম, যা রাতেও থাকছে।

আবহাওয়াবিদদের মতে, গত কয়েক বছরে তাপমাত্রা বাড়লে তা বেশিরভাগ সময় মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের ছিল। কিন্তু জলাভূমি ও জলাধার কমে যাওয়ায় ঢাকার কিছু এলাকা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি উত্তপ্ত হয়ে পড়ছে।

ঢাকা শহরের তাপমাত্রার পার্থক্য নিয়ে গবেষণা করেছে বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস)। ২০১৭ থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত এপ্রিলের কয়েক দিনের তাপমাত্রা পার্থক্য মূল্যায়ন করেছে।

এপ্রিলকে ধরে করা হয়েছে কারণ এই মাসকে বলা হয় বছরের উষ্ণতম মাস। এ সময় স্বাভাবিকের চেয়ে তাপমাত্রা বেশি থাকে।

গবেষণায় দেখা গেছে, ঢাকা শহরে সবচেয়ে কম তাপমাত্রা ছিল বোটানিক্যাল গার্ডেন ও জাতীয় চিড়িয়াখানায়। দ্বিতীয় কম তাপমাত্রা ছিল রমনা পার্ক, ধানমণ্ডি লেকপাড়, ক্যান্টনমেন্টসহ কিছু এলাকায়। অন্যদিকে সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রার এলাকা ছিল তেজগাঁও, মতিঝিল, মিরপুর, যাত্রাবাড়ীসহ কিছু বাণিজ্যিক এলাকা। এগুলোতে ৩ থেকে সাড়ে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রার তারতম্য ছিল।

গত ৬৩ বছরে ঢাকা শহরের আবহাওয়া বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় এ সময়ের মধ্যে তীব্র থেকে অতি তীব্র তাপমাত্রা উঠেছিল চার দিন। প্রথম সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৯৬০ সালের ৩০ এপ্রিল। সেদিন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এরপর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২০১৪ সালে ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পরবর্তী সময়ে ২০২৩ সালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ৪০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চলতি বছরেও গত ২০ এপ্রিল ৪০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, অতি তীব্র তাপমাত্রা স্থায়িত্ব বেশিদিন থাকে না। তিন থেকে সাত দিন পর্যন্ত স্থায়ী হয়। কিন্তু ঢাকায় বেশিরভাগ সময় মৃদু থেকে মাঝারি আকারে তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। প্রতি বছরই এ তাপমাত্রা ছিল।

অনেক বিশেষজ্ঞ আবার বলছে, ঢাকা একটা হিট আইল্যান্ড হিসেবে কাজ করে। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘ঢাকা একটি জনবহুল শহর। এখানে বিপুল মানুষের জায়গা ও কর্মসংস্থান করতে গিয়ে প্রচুর অবকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে। গাছপালা কমেছে। গরম থেকে বাঁচতে মানুষ এসি ব্যবহার করছে। দূষণের দিক থেকেও ঢাকা এগিয়ে রয়েছে। ফলে তাপমাত্রা মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের থাকলেও গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের হিসাব অনুসারে, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ থেকে ৩৭ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে মৃদু তাপপ্রবাহ, ৩৮ থেকে ৩৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে মাঝারি তাপপ্রবাহ, ৪০ থেকে ৪১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার বেশি হলে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

১৫ ঘণ্টার তাণ্ডবে লন্ডভন্ড বরগুনা

গ্যাসের চুলায় বানাচ্ছিলেন মদ

কার্বন নিঃসরণে উন্নত দেশগুলোই মূল অপরাধী : মেয়র আতিক

মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান ভাসানী পরিষদের 

গোলটেবিলে বক্তারা / জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় চাই বাস্তবসম্মত ও বিজ্ঞানভিত্তিক কৌশল

ধাক্কা দিয়ে ৭০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

পরিবেশ রক্ষা করেই বাস্তবায়িত হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরী

প্রাণে বাঁচতে সবাই পালালেও সংসার ছাড়েন না ‘মা’

প্রত্যয় স্কিম বাতিলের দাবিতে ঢাবি শিক্ষকদের কর্মবিরতি 

১০

ভোলায় ভেসে গেল কোটি টাকার মাছ

১১

চুয়াডাঙ্গায় আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

১২

রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ককে অব্যাহতি

১৩

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভরসা মোমবাতির আলো

১৪

ঘূর্ণিঝড় রিমাল / লন্ডভন্ড পিরোজপুর উপকূল, শত কোটির ক্ষয়ক্ষতি

১৫

চট্টগ্রামে আ.লীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাত করে খুন

১৬

২০ টাকায় মোবাইলের ফুল চার্জ!

১৭

প্রভাবশালীদের দখলে রংপুরের কাফ্রিখাল বিল

১৮

মৌমাছি ‘গণহত্যার’ বিচার চাই

১৯

ঘূর্ণিঝড়ের রাতে ব্যাংকে ঢুকে পড়ল ডাকাতদল, অতঃপর...

২০
X