কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৮ মে ২০২৪, ০১:৩৮ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামীদের ধ্বংস চান মাহমুদ আব্বাস?

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস (বাঁয়ে) ও ইসরায়েলি সেনা। ছবি : সংগৃহীত
ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস (বাঁয়ে) ও ইসরায়েলি সেনা। ছবি : সংগৃহীত

রোম যখন পুড়ছিল, নিরো তখন বাঁশি বাজাচ্ছিলেন। বহুল প্রচলিত এ প্রবাদটি শুনলেই মনের কোনো উঁকি দেয় চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন, লোভি ও চরিত্রহীন কোনো শাসকের কথা। ঠিক এ প্রবাদের মতোই গাজায় যখন ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচার হামলায় অকাতরে মরছে ফিলিস্তিনিরা, তখন অবরুদ্ধ উপত্যকা শাসনের স্বপ্নে বিভোর হয়ে আছেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

ইসারয়েল ও পশ্চিমা শক্তির পদলেহন করে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখা আব্বাস চাইছেন ফিলিস্তিনিদের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে নিজের ক্ষমতাকে আরও দীর্ঘ করতে। তারই নগ্ন নজির সামনে তুলে ধরলেন আব্বাস প্রশাসনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ মোস্তফা।

রুশ গণমাধ্যম আরটির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ শেষে গাজা উপত্যকার শাসনভার পশ্চিম তীরে ক্ষমতাসীন সরকার ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের কাছে ফিরে আসবে বলে মন্তব্য করেছেন ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ মোস্তফা। এমনকি এ ব্যাপারে এখন থেকেই পিএ জোটকে প্রস্তুতি নেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

রোববার বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মোহাম্মদ মোস্তফা বলেন, ‘মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে স্থায়ী শান্তি স্থাপনের একমাত্র পথ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠা এবং পশ্চিম তীরে ক্ষমতাসীন পিএ জোটকে অবশ্যই গাজার জনগণকে সহযোগিতা করার জন্য দ্রুত তৎপরতা চালাতে হবে। সেই সঙ্গে গাজার ভবিষ্যৎ শাসন ক্ষমতা গ্রহণের জন্যও প্রস্তুতি নিতে হবে।

ফিলিস্তিনি এ নেতা জানান, ফিলিস্তিনকে একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা, গাজা-পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমের বাসিন্দা ফিলিস্তিনিদের প্রয়োজনীয় নাগরিক পরিষেবা প্রদান, ফিলিস্তিনি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করা এবং গাজার জনগণের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পিএ জোট প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এক সময় অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ক্ষমতায় ছিল পশ্চিম তীরের ক্ষমতাসীন পিএ জোট। ২০০৬ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে গাজার ক্ষমতায় আসে স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। এরপরই রাজনৈতিক নির্লিপ্ততা ও ইসরায়েলি দালালির কারেণে পিএ জোটকে গাজা ভূখণ্ড থেকে বিতাড়িত করে গাজার জনগণ। ফলে ২০০৬ সালের পর থেকে ইসরায়েল ও পশ্চিাম শক্তির সমর্থনে পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমের ক্ষমতায় রয়েছে পিএ জোট।

জর্ডান নদীর পশ্চিম তীর, গাজা এবং পূর্ব জেরুজালেম— এই তিন ভূখণ্ডের সমন্বয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায় ফিলিস্তিন; কিন্তু ১৯৬৭ সালে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে এ তিন ভূখণ্ড ইসরায়েলের দখলে আছে। ওই যুদ্ধে জয়ী হয়েছিল ইসরায়েল।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ফুটবল বিশ্বকাপের এক দিনে ৬ ম্যাচ

রোহিঙ্গা যুবককে জন্মনিবন্ধন করানো সেই ইউপি সচিব কারাগারে

সিলেটে বন্যাদুর্গত এলাকায় ওষুধ-চিকিৎসায় মেডিকেল টিম

নৌকাডুবিতে রংপুর মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীসহ দুজনের মৃত্যু

দেশে দেশে ঘুরে চুক্তি করে লাভ হবে না : খসরু 

রথযাত্রার দিন এইচএসসি পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তনের দাবি বিএসপির

মৌলভীবাজারে বন্যা, খাদ্য সংকটে বিপাকে মানুষ

সিলেটে বন্যা / পানিবন্দি ১০ লাখ মানুষ, আশ্রয়কেন্দ্রে পৌঁছায়নি পর্যাপ্ত ত্রাণ

স্ত্রীকে হত্যা করে মসজিদের সিঁড়ির নিচে লুকানো মুয়াজ্জিন আটক

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ 

১০

শামিকে বিয়ে করছেন সানিয়া? কী বললেন টেনিস সুন্দরীর বাবা

১১

বন্যা ও ভারি বর্ষণে শাবিপ্রবির ক্লাস-পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত

১২

নোয়াখালীতে অপহরণের ১৩ দিন পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার

১৩

বিশ্বনাথে বন্যা / উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আশ্রয় পায়নি অর্ধশত বানভাসী

১৪

নয়াদিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীকে লালগালিচা অভ্যর্থনা

১৫

কালবেলায় সংবাদ প্রকাশের পর বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের হল থেকে দুজন আটক

১৬

হাঁড়িভাঙা আম দেখলেই মায়া লাগে : কৃষিমন্ত্রী

১৭

পাবনায় ‘ঢালারচর এক্সপ্রেস’ ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু

১৮

ন্যাটোর পরবর্তী প্রধান হচ্ছেন মার্ক রুটে

১৯

বারবার কারা নির্যাতনেই মাখনের মৃত্যু, অভিযোগ রিজভীর

২০
X