মোহাম্মদ যায়েদ, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২১ মে ২০২৪, ১২:৪৯ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের রাবার ড্যাম এখন কৃষকের জন্য অভিশাপ

লোহাগাড়ার সরাই খালে কৃষক থেকে জোর করে আদায় করা চাঁদার রশিদ। ছবি : কালবেলা
লোহাগাড়ার সরাই খালে কৃষক থেকে জোর করে আদায় করা চাঁদার রশিদ। ছবি : কালবেলা

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার সরাইখালের উপর নির্মিত রাবার ড্যাম নিয়ে কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যবসা শুরু করে দিয়েছেন। কৃষকের জন্য রাবার ড্যামটি এখন আশীর্বাদের পরিবর্তে অভিশাপে পরিণত হয়েছে।

জানা গেছে, ভূ-উপরিস্থ পানি ব্যবহার করে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিএডিসির পক্ষ থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে স্থানীয় প্রান্তিক চাষীদের জন্য পুটিবিলা ইউনিয়নের সরাই খালে একটি রাবার ড্যাম নির্মাণ করা হয়। ড্যামের আওতাধীন চাষযোগ্য জমির পরিমাণ প্রায় ৫২৬ কানি। পদাধিকার বলে ড্যাম পরিচালনা পরিষদের সভাপতি নির্বাচিত হন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ ইউনুছ।

২০২০ সালে হাজী মোহাম্মদ ইউনুছ চেয়ারম্যান থাকাকালীন প্রায় ৫২৬ কানি জমির চাষ হয়েছিল। ড্যাম পরিচালনা পরিষদ তখন গড়ে কানি প্রতি পানি খরচ নির্ধারণ করেছিলেন ৩ হাজার টাকা।

প্রান্তিক চাষিরা তাদের নির্ধারিত পানি খরচ মেনে নিতে না পেরে কৃষক নেতা মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট পানি খরচ কমানোর আবেদন করলে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেলা প্রশাসকের পরামর্শক্রমে ৫০০ টাকা কানী প্রতি পানি খরচ নির্ধারণ করে দেন। এই আদেশ বলে ২০২১ ও ২২ সাল পর্যন্ত কানি প্রতি পানি খরচ ৫০০ টাকা নির্ধারিত ছিল। বিগত ইউপি নির্বাচনে পুটিবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক কথিত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

পদাধিকার বলে তিনি ২০২৩ সালে রাবার ড্যাম কমিটির সভাপতি হন। পাশাপাশি কমিটিতে প্রকৃত কৃষকদের না রেখে স্থানীয় প্রভাবশালীদের অন্তর্ভুক্ত করেন। তারপর কানি প্রতি পানি খরচ নির্ধারণ করেন ৩০০০ টাকা। সেই থেকে কৃষকদের ৩ হাজার টাকা দিতে হচ্ছে। টাকা দেওয়া না হলে পানি বন্ধ করে দেওয়াসহ মামলা হামলার ভয় দেখান।

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, আগে আমরা নিজ উদ্যোগে খালে বাঁধ দিয়ে জমিতে পানি সেচের ব্যবস্থা করতাম। তখন আমাদের কানি প্রতি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা খরচ হতো। এখন খালে সরকারি ড্যাম হয়ে যেন আমাদের উপর অভিশাপ নেমে এসেছে।

কৃষক নেতা জনাব ফারুক উদ্দিন বলেন, জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ড্যামের ফুলানো পানিতে স্কিন দিয়ে অন্যত্র পানি বিক্রি করায় ২০২৩ সালে প্রান্তিক চাষিরা ধান উৎপাদনের জন্য চাষ করতে পেরেছেন মাত্র ৩০০ কানি জমিতে। অপর ২০০ কানি অনাবাদি থেকে যায়। ২০২৪ সালে প্রান্তিক চাষীদের নিকট থেকে কানি প্রতি পানি খরচ আদায় করেন ৩৫০০ টাকা।

তিনি আরও বলেন, কৃষকদের নিকট থেকে প্রাপ্ত পানি খরচ বাবদ টাকা থেকে বিপদ মোকাবেলা করার জন্য একটি অংশ রিস্ক ফান্ড বাবদ ব্যাংকে জমা রাখার কথা থাকলেও সব টাকা আত্নসাৎ করে ফেলেছে ড্যাম পরিচালনা পরিষদ। ২০২৩ সালের কোনো হিসাব এখনো পর্যন্ত কৃষকদের নিকট দিতে পারে নাই ড্যাম পরিচালনা পরিষদ।

এদিকে ২০২৪ সালে জমিতে পানি দেওয়ার জন্য ড্যামটি ফুলানোর সময় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোনো লোকজনকে উপস্থিত না রেখে ড্যাম পরিচালনা পরিষদ ফুলানোর চেষ্টা করলে ড্যামটি ফুটো হয়ে যায় বলে লোকজন অভিযোগ করেছেন। ফলে স্বাভাবিক নিয়মে খালের পানি চাষের জন্য উপরে তুলতে না পেরে শ্যালো মেশিনের মাধ্যমে চাষ করতে হয়েছে।

এ ব্যাপারে ড্যাম পরিচালনা পরিষদের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেনের মানিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইউএনও ও কৃষি অফিসার মিলে সেচমূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছেন। এখানে আমার কোনো হাত নেই।

লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইনামুল হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মিটিংয়ে আছি, আগামীকাল অফিসে আসেন।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমেরিকা প্রবাসী মামার জন্য ছাগল কেনেন ইফাত

ইসরায়েলি গণমাধ্যমের বিশ্লেষণ / হামাসের সঙ্গে যুদ্ধে কি ইসরায়েল হেরে যাচ্ছে?

আওয়ামী লীগ দলে বাড়ছে তরুণনির্ভরতা

অস্ট্রেলিয়ায় নেমেসিসের তিন কনসার্ট

নানা আয়োজনে বাগেরহাটে কবি রুদ্রের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

তীব্র গরমে সৌদিতে এক হাজারের বেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

এবার বাবরের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ

তারা সুতারিয়ার স্বপ্ন

উজানের পানিতে গাইবান্ধায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত

নেত্রকোনায় পানিতে ডুবে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

১০

সড়ক দুর্ঘটনায় লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ইরান আহত 

১১

‘জামায়াতের সর্বস্তরের জনশক্তি বন্যার্তদের পাশে রয়েছে’ 

১২

ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার নিবন্ধ / ‘প্রতিবেশী কূটনীতিতে বাংলাদেশ’

১৩

যার ওপর বাংলাদেশ দাঁড়িয়ে

১৪

বাংলাদেশের অর্থনীতি যেন ‘কৈ মাছের প্রাণ’

১৫

চট্টগ্রামে পাহাড়ি ঝরনা থেকে পড়ে পর্যটক আহত

১৬

‘প্রধানমন্ত্রী এবার কী নিয়ে আসেন, জনগণ তা দেখার প্রতীক্ষায়’

১৭

বন্যা থেকে সিলেটবাসীকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

১৮

এবার মানব বীর্যে মাইক্রোপ্লাস্টিকের উপস্থিতি শনাক্ত

১৯

সাংবাদিক মুজাহিদ মসির বিরুদ্ধে হয়রানি মামলা, তদন্তে মন্ত্রিপরিষদের নির্দেশনা

২০
X