সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৫৪ পিএম
আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:০৭ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ওসির নেতৃত্বে ৯ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

পুলিশ ইন্সপেক্টর মো. শিহাব হোসেন। ছবি : কালবেলা
পুলিশ ইন্সপেক্টর মো. শিহাব হোসেন। ছবি : কালবেলা

সাতক্ষীরায় পুলিশের ইন্সপেক্টর (ওসি) মো. শিহাব হোসেনের নেতৃত্বে মৎস্য ঘেরের অফিসে ঢুকে বেধড়ক মারধর করে অফিস ব্যাগের মধ্যে থাকা সাড়ে ৯ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। পুলিশের এ কর্মকর্তা ঈদের ছুটিতে বাড়িতে গিয়েছিলেন। সোমবার (১৫ এপ্রিল) সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আখড়োখালা বাজার ব্রিজ সংলগ্ন বিসমিল্লাহ মৎস্য ঘেরের অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) ওসি মো. শিহাব হোসেন পল্টু ও তার ভাই সাইফুর রহমান হিল্টুর বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মো. মহিদুল ইসলাম মিলনের বড় ভাই মো. আব্দুল হক।

অভিযুক্ত ওসি মো. শিহাব হোসেন সম্প্রতি একটি ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ১নং ফাঁড়িতে কর্মরত অবস্থায় ক্লোজড হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত রয়েছেন।

লিখিত অভিযোগে আব্দুল হক বলেন, আমার আপন ছোট ভাই মো. মহিদুল ইসলাম মিলন শিরনগর টুংকিরবিলে বিসমিল্লাহ মৎস্য ঘের প্রজেক্টে ২৪০ বিঘা মৎস্য ঘেরের শেয়ার হিসাবে মৎস্য চাষাবাদ করে আসছে। ওসি মো. শিহাব হোসেনও ওই মৎস্য ঘেরের শেয়ারে আছে। ঘের পরিচালনার বিভিন্ন খরচের জন্য অফিস ফান্ডে ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা অফিস কক্ষে রাখা ছিল। অভিযুক্তরাও খুঁটিনাটি বিষয় ও মৎস্য ঘেরের হারির টাকা নিয়ে আমার ভাইসহ অন্যান্য মৎস্য ঘেরের শেয়ারকৃত মালিকদের সঙ্গে অহেতুক ঝগড়া বিরোধ করে আসছিল।

অভিযোগে তিনি আরও উল্লেখ করেন, ওসি মো. শিহাব হোসেন প্রায় সময় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আমার ছোট ভাইকে হুমকি-ধমকি দিচ্ছিল। সোমবার রাত ৮টার দিকে মৎস্য ঘেরের হারির টাকাকে কেন্দ্র করে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আখড়োখালা বাজার ব্রিজ সংলগ্ন বিসমিল্লাহ মৎস্য ঘেরের অফিসে হামলা চালানো হয়। শিহাবের নেতৃত্বে বাঁশের লাঠিসোটা নিয়ে অফিসে ঢুকে আমার ভাইকে বেধড়ক মারধর করে গুরুতর জখম করে। ওই সময় আমার ছোট ভাই ঘটনাস্থলে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে অভিযুক্তরা অফিস ব্যাগে থাকা মৎস্য ঘেরের চারা, মাছ ক্রয় বাবদ সর্বমোট ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। আহত মহিদুল ইসলাম মিলন বর্তমানে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এসব বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ওসি মো. শিহাব হোসেন মোবাইলে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি (তদন্ত) নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়ে পেয়েছি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। প্রাথমিকভাবে সেখানে চড়-থাপ্পড়ের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ওসি মো. শিহাব হোসেন ঈদের ছুটি নিয়ে বাড়িতে গিয়েছিল। সেখানে গিয়ে মারধরের ঘটনা ঘটিয়েছে এমন অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ছয় বছরে দুই পিলার

লজ্জাজনক এ হারের দায় কার?

শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে বুদ্ধের শিক্ষা অনুসরণ করা প্রয়োজন : প্রধানমন্ত্রী 

উপজেলা নির্বাচন / দ্বিতীয় ধাপে চেয়ারম্যান হলেন যারা

বুদ্ধ পূর্ণিমা আজ

সাঁকো নির্মাণ নিয়ে বিরোধ, যুবককে কুপিয়ে হত্যা

স্মার্ট বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা নিয়ে সভা আজ

বুধবার ঢাকার যেসব এলাকায় যাবেন না

ইতিহাসের এই দিনে স্মরণীয় যত ঘটনা

২২ মে : নামাজের সময়সূচি

১০

অবসরের পরেও চেয়ারে তিনি, ৩ দিনে ৩৪ কোটি টাকার ঘুষ

১১

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় শিক্ষার্থী নিহত

১২

বিনা টিকিটে ১২ বছর রেল ভ্রমণ, অতঃপর...

১৩

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারী শ্রমিককে যৌন হয়রানি

১৪

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের প্রথম জার্নাল প্রকাশিত

১৫

প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটিতে ‘সেমিস্টার ডে ২০২৪’ উদ্‌যাপন

১৬

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শ্রাবণের ওপর হামলার অভিযোগ

১৭

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিলেন ফখরুল

১৮

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ধরাশায়ী হলো বাংলাদেশ

১৯

রাজধানীতে বিটিআরসির অভিযান, সরঞ্জামাদি জব্দ

২০
X