বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
আসিফ পিনন, চট্টগ্রাম
প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৫৫ পিএম
আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০০ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যপাড়ায় উৎকণ্ঠা, কর্মবিরতির ঘোষণা

চমেক হাসপাতালের সামনে জড়ো হয়ে মানববন্ধন করেছেন চিকিৎসকদের বিভিন্ন সংগঠন। ছবি : কালবেলা
চমেক হাসপাতালের সামনে জড়ো হয়ে মানববন্ধন করেছেন চিকিৎসকদের বিভিন্ন সংগঠন। ছবি : কালবেলা

চিকিৎসকদের ওপর দুই দফায় হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উতপ্ত হয়ে উঠেছে চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যপাড়া। চট্টগ্রামে পৃথক দুটি ঘটনার জের ধরে কঠোর অবস্থানে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ‘বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতি’। অন্যদিকে ২ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখা।

চিকিৎসকদের এমন হুঁশিয়ারিকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যসেবা বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি রোগীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম উৎকণ্ঠা।

জানা গেছে, গত ১০ এপ্রিল চট্টগ্রামের পটিয়ায় ‘পটিয়া জেনারেল হাসপাতালে’ দুর্ঘটনায় আহত এক রোগীকে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ার অভিযোগ এনে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রক্তিম দাশকে বেধড়ক মারধর করা হয়। ডা. রক্তিম দাশ বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পটিয়ার ঘটনার রেশ না কাটতেই গত ১৪ এপ্রিল চট্টগ্রাম মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে এনআইসিইউতে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে এক শিশুর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রিয়াজ উদ্দিন শিবলুর ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ডা. রিয়াজ উদ্দিন শিবলুর সাবকনজাংটিভাল হেমোরেজ (চোখে তীব্র রক্তক্ষরণ) হয়েছে। ডা. রিয়াজ বর্তমানে চমেক হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা স্থিতিশীল হলেও এখনো তিনি শঙ্কা মুক্ত নয়। তাছাড়া এ ঘটনায় হাসপাতালের কয়েকজন কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মারাত্মকভাবে জখম হয়েছেন।

এ দুই ঘটনার জের ধরে সবশেষ বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) চমেক হাসপাতালের সামনে জড়ো হয়ে মানববন্ধন করেছেন চিকিৎসকদের বিভিন্ন সংগঠন। চট্টগ্রাম মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে যোগ দেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) ও পেডিয়াট্রিক্স ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন, ইর্টান ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশেন এবং বেসরকারি হাসপাতাল সমিতির নেতারা।

মানববন্ধন থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, দুই চিকিৎসকের ওপর হামলায় জড়িতদের শিগগিরই গ্রেপ্তার করা না হলে আগামী ২০ এপ্রিল (শনিবার) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে দুই ঘণ্টা কর্মবিরতি ও ২৩ এপ্রিল দিনব্যাপী সর্বাত্মক প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধের কর্মসূচি দেওয়া হয়।

বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি মুজিবুল হক বলেন, ঘটনার ৫ দিন পর বিএমএর পক্ষ থেকে কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে। আমরা অপেক্ষা করছিলাম সুষ্ঠু বিচার পাব। কিন্তু কোনো অগ্রগতি না থাকায় আমাদের বাধ্য হয়ে রাস্তায় নামতে হয়েছে। দুটি ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

এর আগে বুধবার (১৮ এপ্রিল) এক সংবাদ সম্মেলনে নানা দাবি জানিয়ে নিজেদের অবস্থান জানান দিয়েছেন চট্টগ্রামের চিকিৎসকরা। ‘বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতির’ ব্যানারে আয়োচিত এ সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া হয়েছে আল্টিমেটাম।

এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে আগামী ২৪ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছে সংগঠনটি। দাবি আদায় না হলে সর্বাত্মক কর্মবিরতিসহ নানা কঠোর কর্মসূচি আসতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে সংগঠনটির পক্ষ থেকে।

সংগঠনের সভাপতি ডা. মোহাম্মদ শরীফ বলেন, চিকিৎসকদের ওপর হামলার ঘটনায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শান্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করা না হলে সর্বাত্মক কর্মবিরতির মতো কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে।

এদিকে তীব্র গরমে চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, ব্রঙ্কাইটিসসহ নানা রোগব্যাধি নিয়ে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এমন অবস্থায় চিকিৎসকরা কর্মবিরতির ঘোষণায় উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যপাড়ায়।

চট্টগ্রামের বাসিন্দা নজরুল ইসলাম বলেন, তীব্র গরমে নানা ধরনের রোগব্যাধি বাড়ছে। এ অবস্থায় চিকিৎসকরা যদি কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দেন তাহলে রোগীরা যাবে কোথায়?

নাম প্রকাশ না করা শর্তে এক চিকিৎসক নেতা কালবেলাকে বলেন, পটিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসককে মারধরের ঘটনার পরপরই থানা মামলা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত পুলিশ রহস্যজন কারণে আসামিদের গ্রেপ্তারের পদক্ষেপ নেয়নি। অথচ ঘটনার পর থেকেই আসামিরা নির্বিঘ্নে চলাফেরা ও বিভিন্ন সভা-সমাবেশ ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন। কে বা কারা আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছেন সবাই সেটা জানেন। কারও নাম বলে বিপদে পড়তে চায় না। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পটিয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসককে মারধরের ঘটনার মামলায় মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) রাতে রফিক হাসান নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাছাড়া নগরীতে চিকিৎসককে মারধরের ঘটনায় গত রোববার রাতে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করা হয়েছে মেডিকেল সেন্টারের পক্ষ থেকে। সেখানে শিশুটির বাবা এবং অজ্ঞাত আরও ১৮-২০ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার পর অভিযান চালিয়ে মোট ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাঁচলাইশ থানার ওসি সন্তোষ কুমার চাকমা।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

মাছ শিকারের দারুণ কৌশল দারকি

উদ্ভাবন ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয় : ঢাবি উপাচার্য

মধ্যরাতে জবির মসজিদে ছাত্রী, কী ঘটেছিল সেদিন!

বাগেরহাটে গাছচাপা পড়ে নারীর মৃত্যু

এমপি আনার হত্যা : যশোর থেকে অভিযুক্ত শিমুলের সহযোগী গ্রেপ্তার

পারমাণু বোমা তৈরির দ্বারপ্রান্তে ইরান

নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

ঘূর্ণিঝড় রিমালের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড মনপুরা

চাঁদপুরে ফের দেখা মিলল ভয়ংকর রাসেল ভাইপারের

মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে লাঠির আঘাতে কিশোরের মৃত্যু

১০

পুলিশ ডাকলে ডিএনএ স্যাম্পল দিতে কলকাতা যাব : আনারকন্যা ডরিন

১১

চ্যাম্পিয়ন বিকেএসপি, সেরা সাঁতারু তোফায়েল–অ্যানি

১২

ঘূর্ণিঝড় রিমাল / শ্রমে ঘামে এবার অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই

১৩

১৫ ঘণ্টার তাণ্ডবে লন্ডভন্ড বরগুনা

১৪

গ্যাসের চুলায় বানাচ্ছিলেন মদ

১৫

কার্বন নিঃসরণে উন্নত দেশগুলোই মূল অপরাধী : মেয়র আতিক

১৬

মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কর্মশালা অনুষ্ঠিত

১৭

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান ভাসানী পরিষদের 

১৮

গোলটেবিলে বক্তারা / জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় চাই বাস্তবসম্মত ও বিজ্ঞানভিত্তিক কৌশল

১৯

ধাক্কা দিয়ে ৭০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

২০
X