ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ০২ জুন ২০২৪, ০১:২৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

কলেজছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে বন্ধুদের নিয়ে ‘ধর্ষণ’ করলেন প্রেমিক

ডামুড্যা থানা, শরীয়তপুর। ছবি : কালবেলা
ডামুড্যা থানা, শরীয়তপুর। ছবি : কালবেলা

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় নিখোঁজের একদিন পর হাত-পা, মুখ ও চোখ বাঁধা অবস্থায় এক কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৩১ মে) রাতে উপজেলার সিঁধুলকুড়া কাঠের ব্রিজের ওপর থেকে কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়।

ওই কলেজছাত্রীর অভিযোগ, প্রেমের সম্পর্ক ছিন্ন করায় প্রেমিক সিয়াম ও তার সঙ্গীরা সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে ব্রিজের নিচে ফেলে গেছে।

সিয়াম পেদা ডামুড্যা উপজেলার সিঁধুলকুড়া ইউনিয়নের ছোট সিঁধুলকুড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি গোসাইরহাটের সরকারি শামসুর রহমান কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, সিয়াম পেদার সঙ্গে সম্পর্ক ছিল ওই কলেজছাত্রীর। কিছুদিন আগে তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। এরপর বৃহস্পতিবার (৩০ মে) ওই কলেজছাত্রী থেকে বাড়ি ফেরার পথে ডামুড্যার ফরাজি টেক এলাকা থেকে সিয়াম পেদা ও তার চার সঙ্গী তুলে নিয়ে পরিত্যক্ত একটি ঘরে ধর্ষণ করেন। এদিকে ওই কিশোরী বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করতে থাকেন।

পরিবারের লোকজন তাকে কোথাও না পেয়ে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি ডামুড্যা থানা পুলিশকে জানায়। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে কিশোরীর বাবা জানতে পারেন ডামুড্যার সিঁধুলকুড়া কাঠের ব্রিজের ওপর হাত-পা, চোখ মুখ বাঁধা অবস্থায় এক কিশোরীকে পাওয়া গেছে। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কিশোরীকে শনাক্ত করেন তিনি। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বলেন, আমার মেয়ে নিখোঁজের সংবাদ থানায় জানিয়ে আমরা বাড়িতে ফিরছিলাম। এমন সময় খবর পাই এক মেয়েকে সিঁধুলকুড়া ব্রিজের ওপর হাত-পা বাঁধা অবস্থায় পাওয়া গেছে। এরপর ওই ব্রিজে গিয়ে আমি আমার মেয়েকে চিনতে পারি। পরে পুলিশ গিয়ে আমার মেয়েকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে চিকিৎসার জন্য। এ ঘটনায় আমি আইনের আশ্রয় নেব।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মিতু আক্তার বলেন, ধর্ষণের শিকার এক কিশোরীকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়েছিল। ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য আলামত সংগ্রহ করে ওই কিশোরীকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

ডামুড্যা থানার ওসি এমারত হোসেন কালবেলাকে বলেন, হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক কিশোরীকে সিঁধুলকুড়া ব্রিজের ওপর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। কিশোরীকে ব্রিজের ওপর থেকে উদ্ধার করার আগে তার পরিবার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছিল থানায়। তবে অভিযোগটি নথিভুক্ত করার আগেই আমরা জানতে পেরেছি কিশোরীকে ব্রিজের ওপর পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন, স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

গাজীপুরে খুলে দেওয়া হয়েছে পোশাক কারখানা

পর্যটকশূন্য কাপ্তাই পর্যটনকেন্দ্রগুলো

ফিফার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ

পেন্টাগনের ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ

৪ বিভাগে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস

মোবাইলে অব্যবহৃত ইন্টারনেট প্যাকেজ সম্পর্কে যা জানা গেল

আর্জেন্টিনায় হতে পারে পরবর্তী কোপা

ঢাকার রাস্তায় তীব্র যানজট

নেপালে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত, প্রায় সব আরোহী নিহত 

চাকরির প্রজ্ঞাপনে যা আছে

১০

কারফিউ বিরতিতে চলবে দূরপাল্লার বাস

১১

অলিম্পিকে নামার আগেই স্বর্ণপদকের স্বপ্ন মাসচেরানোর

১২

সুষ্ঠু তদন্তে দায়ীদের শাস্তির দাবি সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াবের

১৩

আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শন করবেন

১৪

৩ দিনে জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল আসে সোয়া লাখেরও বেশি

১৫

বিয়ের দাবিতে আ.লীগ নেতার বাড়িতে কলেজছাত্রী

১৬

ইথিওপিয়ায় ভয়াবহ ভূমিধস, মৃত্যু ২২৯

১৭

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরু

১৮

পদ্মা সেতুতে সর্বোচ্চ সতর্কতায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

১৯

সেমিফাইনাল নিশ্চিতের মিশনে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

২০
X