কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ৩০ জুলাই ২০২৩, ০৯:২২ পিএম
আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২৩, ০৯:২৩ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

গণতন্ত্রের নামে আওয়ামীতন্ত্র চলছে : জি এম কাদের

বগুড়ার টিটু মিলনায়তনে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের। ছবি : কালবেলা

গণতন্ত্রের নামে আওয়ামীতন্ত্র চলছে উল্লেখ করে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, জাতীয় রাজনীতি এখন সংঘাতময়। সরকার গায়ের জোরে, সংবিধান সংশোধন করে কিছু আইন করেছে। নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ সরকার কুক্ষিগত করেছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ সরকারের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। নিজস্ব লোক নিয়োগ দিয়ে তারা নির্বাচন ব্যবস্থা এমনভাবে সাজিয়েছে, তাদের ইচ্ছের বাইরে নির্বাচনের ফলাফল অসম্ভব। এ কাজে সরকারে বিভিন্ন পেশার পছন্দের মানুষ যুক্ত করা হয়েছে যাদের আমরা বলছি আওয়ামী লীগ প্লাস।

রোববার (৩০ জুলাই) দুপুরে বগুড়ার টিটু মিলনায়তনে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।

গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, নিজস্ব লোক দিয়ে নির্বাচন ব্যবস্থা ঢেলে সাজিয়েছে। সরকার যে ফল চাইবে, নির্বাচন কমিশন তাই ঘোষণা করবে। সাজানো নির্বাচন ব্যবস্থায় শুধু সিলেকশন হতে পারে।

তিনি বলেন, আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। আর বিএনপি বলেছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা দরকার। আর সরকার বলছে, তারা সংবিধানের বাইরে এবং অনির্বাচিত সরকারের অধিনে নির্বাচন করবে না। যারা আন্দোলন করবে, তাদের প্রতিহত করা হবে। সরকার সাজানো নির্বাচন করতে চায়। শুধু আওয়ামী লীগ ছাড়া সবাই বলছে, সঠিক নির্বাচন হচ্ছে না। তারপরও সরকার বলছে, তারা সুষ্ঠু নির্বাচন দেবে। যখন বিদেশিরা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পর্যবেক্ষক পাঠাতে রাজধানীতে কাজ করছে তখন ঢাকা-১৭ আসনের নির্বাচনে প্রমাণ হয়েছে বর্তমান সরকারে অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। ঢাকা ১৭ আসনে সব অনিয়মই হয়েছে।

আরও পড়ুন : ২ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করল গণতন্ত্র মঞ্চ

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, ঢাকা ১৭ আসনে বস্তির লোক এনে সিল মারা হয়েছে। লজ্জা-শরম থাকলে এই সরকার আর সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা মুখে আনতে পারে না। বাংলাদেশে অসাংবিধানিক ও অনির্বাচিত সরকারের অধিনে নির্বাচনের জন্য দুবার আন্দোলন হয়েছে। সেই আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। ১৯৯০ সালে একটি হয়েছিল সাংবিধানিকভাবে বৈধ জাতীয় পার্টি সরকারের বিরুদ্ধে। তখন আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও বাম দলগুলোর জোট অসাংবিধানিক সরকারের দাবিতে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

গ্রিজমানদের খালি হাতেই ফেরত পাঠালো ইন্টার মিলান  

একটি হুইল চেয়ারের আকুতি প্রতিবন্ধী সিয়ামের

ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে চবিতে ফুলের দাম বেড়েছে ৩ গুন

সীমান্তে শেষবারের মতো বোনের লাশ দেখলো স্বজনেরা

‘উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে কর্মসংস্থান তৈরি করতে চাই’-প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

‘ডাল ভাত খেয়েও যুদ্ধ করতে পারি’

ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

কোম্পানি রিটার্নের মেয়াদ ২ মাস বাড়ানোর দাবি এফবিসিসিআইর

ন্যায্যতা সম্পর্কিত সংসদীয় ককাস / উন্নয়নমূলক পদক্ষেপে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহ্বান 

এমপিদের থোক বরাদ্দের আগে জবাবদিহিতা নিশ্চিতের দাবি টিআইবির

১০

চাকরি গেল জাবির আলোচিত সেই শিক্ষকের

১১

পঞ্চগড়ে বন্যহাতির আক্রমণে যুবক নিহত

১২

অনলাইনে ভিডিও দেখে গামছা বিক্রেতার ছেলের মেডিকেলে চান্স

১৩

বাড়ছে বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম

১৪

‘দুই-তিনটা লাশ ফেলে দেব’- ছাত্রলীগ নেতার হুমকি

১৫

বোরকা পরে বোনের পরীক্ষা দিতে এসে আটক ভাই

১৬

ভক্তদের বিরাট-আনুশকার সুখবর

১৭

নতুন এমপিওভুক্ত মাদ্রাসায় রমরমা ‘ব্যাকডেট’ নিয়োগ বাণিজ্য

১৮

রাসেল ঝড়ে রংপুরকে হারাল কুমিল্লা

১৯

উত্তর বলে দেয় নাবিলা, খাতায় লিখে রহিমা

২০
X