কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:৪৫ এএম
আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:৫৪ এএম
অনলাইন সংস্করণ

পরমাণু অস্ত্র চায় আফগানিস্তান!

ছবি : সংগৃহীত

দুই দশকের দখলদার যুক্তরাষ্ট্রকে হটিয়ে গত দুই বছর ধরে আফগানিস্তান শাসন করছে সশস্ত্রগোষ্ঠী তালেবান। এখন পর্যন্ত প্রত্যাশার চেয়ে বেশ ভালোভাবেই পরিস্থিতি সামলে নিচ্ছে পশ্চিমা দুনিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন এই শাসকগোষ্ঠী। প্রভাবশালী এই সশস্ত্রগোষ্ঠীর রয়েছে সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধেও লড়াইয়ের ইতিহাস। ক্ষমতা সুসংহত করতে আঞ্চলিকভাবে শক্তিশালী এ গোষ্ঠীর মনোযোগ এখন পারমাণবিক বোমায়। ধারণা করা হচ্ছে শিগগিরিই গণবিধ্বংসী এই অস্ত্র অর্জন করতে যাচ্ছে তালেবান, তবে কীভাবে?

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ইনডিপেন্ডেন্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানে নিজেদের ক্ষমতা শক্তিশালী করতে পরমাণু অস্ত্রের খোঁজ করছে তালেবান সরকার। সাবেক আফগান সরকারের গোয়েন্দাপ্রধান রাহমাতুল্লাহ নাবিল এমন দাবি করেছেন। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা পরিষেবা বিভাগের সাবেক এ প্রধান জানান, আধুনিক সামরিক শক্তির প্রতীক হিসেবে পারমাণবিক অস্ত্র অর্জনে উত্তর কোরিয়া, ইরান, চীন এবং রাশিয়াকে অনুসরণ করতে চায় তালেবান।

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট পশ্চিমা বাহিনী প্রত্যাহারের পর ক্ষমতায় আসা তালেবান আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য মরিয়া হয়ে আছে। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির পরমাণু অস্ত্র পাওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে রাহমাতুল্লাহ নাবিল জানান, তালেবানের একটি দল পরমাণু অস্ত্রের মালিকান অর্জনে কাজ করে যাচ্ছে। হয়তো তারা এগুলো পাকিস্তান থেকে পাবে অথবা প্রকৌশলীদের দিয়ে অর্থের বিনিময়ে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করিয়ে নিতে পারে। এমনটা হলে তা ভয়াবহ বিপর্যয়। আফগানিস্তানের পরিস্থিতির ওপর তাজিকিস্তানের দুশানবেতে অনুষ্ঠিত হেরাত সিকিউরিটি ডায়ালগে অংশ নিয়ে এমনটা জানান তিনি।

যদিও সম্মেলনে উপস্থিত বিশেষজ্ঞরা তালেবান কর্তৃক কৌশলগত পরমাণু অস্ত্র অর্জনের ক্ষমতা, সংযোগ বা প্রকৃত ইচ্ছা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু রাহমাতুল্লা নাবিল বলেন, এমন সম্ভাবনা উপেক্ষা করা খুব বিপজ্জনক। তারা যুদ্ধাবাজ, তাদের ইচ্ছা আছে। অন্যরা কীভাবে এ ধরনের অস্ত্র অর্জন করেছে তা নিয়ে তারা আলোচনা করছে। বর্তমানে তারা যে মনোযোগ আকর্ষণ করছে সামনে তাদের আরও মনোযোগ প্রয়োজন।

যুক্তরাষ্ট্রের মদদপুষ্ট এই আফগান কর্মকর্তা তালেবানকে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী সম্বোধন করে জানান, গত দুই বছরে তালেবান কৌশলগত গভীরতা অর্জন করেছে। তাদের হাতে ন্যাটোর সর্বাধুনিক অস্ত্র রয়েছে। এমনকি তাদের কাছে অত্যাধুনিক গোয়েন্দা সরঞ্জাম ও নজরদারি ব্যবস্থা রয়েছে। এগুলো তারা আফগান জনগণের বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে। বর্তমান বিশ্ব তালেবানের সামরিক কার্যক্রমের ওপর তেমন গুরুত্ব দিচ্ছে না দাবি করে রাহমাতুল্লা নাবিল সতর্ক করে বলেন, এর জন্য ভবিষ্যতে মূল্য দিতে হতে পারে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বুয়েটে স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তির প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

অভিনব পন্থায় ইয়াবা পাচারকালে গ্রেপ্তার

মহাসমাবেশের ডাক দিল বেকার যুবকরা

তৃতীয় বছরে যুদ্ধ, চাপে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা

এশিয়া কাপ আর্চারিতে পদক পেল বাংলাদেশ

রেস্টুরেন্টে অগ্নিকাণ্ড, কলেজছাত্রী আহত

চলন্ত বাসে ইবি শিক্ষার্থীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

বশির-হার্টলির ঘূর্ণিতে কাবু ভারত

জাতীয় পার্টি ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়েছে : জি এম কাদের

সরকারের ভুলনীতি-দুর্নীতিতে বাড়ছে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম : এবি পার্টি

১০

দীপংকরের সিনেমায় প্রফুল্লনলিনীর অজানা গল্প

১১

‘ভুল তথ্য প্রতিরোধে যৌথভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ-তুরস্ক’

১২

মজুতদার ও সিন্ডিকেটদের বিএনপি পৃষ্ঠপোষকতা করছে : ওবায়দুল কাদের

১৩

উল্টে গেল যাত্রীবোঝাই বাস

১৪

আবারও রুশ গোয়েন্দা বিমান ভূপাতিতের দাবি ইউক্রেনের

১৫

জলাবদ্ধতায় তলিয়ে গেছে দুইশ একর বোরো জমি

১৬

অবশেষে কথা রাখলেন শচীন

১৭

রমজানে সেহরি ও ইফতারের বিষয়ে নির্দেশনা দিল সৌদি

১৮

তিন সদস্যের কমিটি গঠন / উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ৮ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

১৯

সম্প্রতি বাংলাদেশের গোলটেবিল আলোচনা / ‘ভাষাকে শক্তিশালী করতে অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে হবে’

২০
X