ফরহাদ হোসেন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৮ মে ২০২৪, ০২:১৭ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ভুট্টা গাছের ডগা থেকে তৈরি হচ্ছে গোখাদ্য

ভুট্টা গাছ থেকে গোখাদ্য প্রস্তুতের খণ্ডচিত্র। ছবি : কালবেলা
ভুট্টা গাছ থেকে গোখাদ্য প্রস্তুতের খণ্ডচিত্র। ছবি : কালবেলা

গরু মোটাতাজাকরণে সবুজ ঘাস, খড়, ভূষিসহ বিভিন্ন পুষ্টিকর খাবার খাওয়ানো হয়। কিন্তু এবার দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গরু মোটাতাজাকরণে অধিকাংশ খামারিদের মধ্যে এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ দেখা গেছে। তাদের পালিত গরুকে সবুজ ঘাস ও খড় খাওয়ানোর পাশাপাশি ভুট্টা গাছের ৪ থেকে ৫ ফিট উপরের অংশ কেটে খড় কাটা মেশিনে কুচি কুচি করে রোদে শুকিয়ে উচ্ছিষ্ট অংশ গরু ও মহিষকে খাওয়াচ্ছেন অধিকাংশ খামারিরা।

ফলে এই গরু ও মহিষগুলো ক্রমেই মোটাতাজা হচ্ছে। এতে করে খামারিদের গরু ও মহিষের খাদ্যের খরচ অনেকটাই কমে যাচ্ছে। ফলে কম খরচে অধিক লাভবান হচ্ছেন এই এলাকার খামারিরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা মোহনপুর ইউনিয়নের খামারি রেজওয়ানুল ইসলাম (সবুজ) বলেন, আমার ৭টি গরু আছে। প্রতিদিন এই গরুগুলোকে সবুজ ঘাস ও ভূষিসহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী খাওয়াতে অনেক টাকা খরচ হয়। তাই গরুর খাদ্যের খরচ কমাতে ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করি, তা হচ্ছে ভুট্টা গাছের উপরের অংশ কেটে ছোট ছোট করে খাদ্য তৈরি করি। প্রথমে পরীক্ষামূলক অল্প করে কেটে গরু খাওয়ায়। এ সময় দেখি ভুট্টার কুড়া খুব খাচ্ছে। এরপর আমার লাগানো ২ বিঘা জমির ভুট্টা গাছের উপরের অংশ মেশিন দিয়ে কেটে সেগুলো রোদে শুকিয়ে সংরক্ষণ করে রাখি এবং সময়মতো গরুকে খাওয়াই। এই খাদ্য অল্প দিনে খাওয়ার পর মোটা হচ্ছে, সেই সঙ্গে খরচ কমে যাচ্ছে।

অপর খামারি আশরাফুল ইসলাম গরু পালনের পাশাপাশি ৬টি মহিষ পালন করেছেন। সেই সঙ্গে এ বছর প্রায় ৩ বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন তিনি। মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে তিনি তার চাষকৃত ভুট্টা ঘরে তুলবেন। কিন্তু তার এলাকার অনেকেই ভুট্টা গাছের ডগা হতে গোখাদ্য তৈরি করছেন, এটা তার জানা ছিল না। স্বচক্ষে দেখার পর তিনি ভুট্টা গাছের ডগা হতে গরুর খাদ্য সামগ্রী তৈরি করছেন। এতে প্রতি বিঘায় ১২০০ টাকার মতো খরচ হয়। সেই সবুজ ঘাস ও অন্যান্য খাদ্য সামগ্রীর উপর চাপ কম হয়, এতে তিনি মহা খুশি।

এ ব্যাপারে বীরগঞ্জ উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. ওসমান গনি বলেন, ভুট্টা গাছের উপরের অংশও পুষ্টিকর গোখাদ্য। ভুট্টা গাছের ফেলে দেওয়া উপরের অংশ খাদ্য হিসেবে গরু-মহিষকে খাওয়ালে খামারিদের খাদ্যের খরচও কমে যাবে। ফলে সবুজ ঘাস ও অন্যান্য খাদ্যের উপর চাপ কমবে। এতে খামারিরা লাভবান হবেন।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

জাবির সাবেক উপাচার্য মারা গেছেন

চিকিৎসকদের অবহেলায় সাপে কাটা রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় যুবদলের দোয়া মাহফিল

ট্রাক্টরচাপায় প্রাণ গেল দুজনের

চাঁদা চাওয়ায় কাস্টমসের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর মামলা

এবার সিরাজগঞ্জে মিলল রাসেল ভাইপারের বাচ্চা, এলাকায় আতঙ্ক

এআইইউবি ও ফিলিস্তিনের শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

সিলেটে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

১৫ লাখ টাকার একটি খাসি, কেড়ে নিল লাকীর হাসি

বিশ্বকে মহাবিপদ থেকে বাঁচাতে যে সতর্কবার্তা দিল তুরস্ক

১০

হত্যা নাকি মৃত্যু, দেড় মাস পর কিশোরের লাশ উত্তোলন

১১

কীসের বিনিময়ে মুক্তি পেলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ?

১২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৈশপ্রহরী হত্যা, দুজনের যাবজ্জীবন

১৩

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোলাইপাড়ে বিএনপির দোয়া মাহফিল

১৪

সরকারি কর্মকর্তাদের দুর্নীতি নিয়ে সংসদে ক্ষোভ

১৫

স্মার্ট নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান পলকের

১৬

মাদক-বাল্যবিবাহ-যৌতুক প্রতিরোধে ভূমিকা পালনকারীদের পুরস্কৃত করবে ছাত্রলীগ 

১৭

বিদ্যুৎস্পর্শে প্রাণ গেল কিশোরের

১৮

প্রধানমন্ত্রীকে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি

১৯

খতনা করাতে গিয়ে ঘুমের বড়ি, মৃত্যুর মুখে শিশু

২০
X