বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১১ এএম
অনলাইন সংস্করণ

‘থানা পুলিশ দিয়ে সবসময় সবকিছু হয় না’

জায়েদ খান ও তানজিন তিশা। ছবি : কালবেলা
জায়েদ খান ও তানজিন তিশা। ছবি : কালবেলা

থানা পুলিশ দিয়ে সবসময় সবকিছু হয় না, ছোট পর্দার অভিনেত্রী তানজিন তিশা ইস্যুতে চিত্রনায়ক জায়েদ খান এমন মন্তব্য করেছেন। শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর মিরপুর-১ নম্বরে একটি শোরুম উদ্বোধনে এসে সংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় জায়েদ খান বলেন, আমি শিল্পীদের নেতা তিন তিনবারের সাধারণ সম্পাদক শিল্পীদের ভোটে। আমি নায়ক রাজ রাজ্জাক, সোহেল রানা, আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, কবরী আপা এদের ভোটে নির্বাচিত। আমার সঙ্গেও অনেক সময় অনেক সাংবাদিকের সাথে মনোমালিন্য হয়েছে সেটা আমি সমাধান করেছি। আমার কাছে মনে হয়েছে মেয়েটি ইমম্যাচিউর, আমি বলেছি যে, বোকা টাইফের, কে বুদ্ধি দেয়, একটা ম্যাসেজ যদি ও (তামিম) দেয়ও তার সিনিয়র বস ছিল তার সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন ছিল, তার কাছে বিচার দেওয়ার প্রয়োজন ছিল।

জায়েদ খান আরও বলেন, সবসময় সবকিছু থানা পুলিশ দিয়ে হয় না। বিনোদন সাংবাদিক আর অভিনয়শিল্পীরা একে অন্যের পরিপূরক। সবাই সবার সাথে মিলে মিশে থাকব, সবাই সবার ভালোবাসায় থাকব, সবাই সবার বিপদেআপদে পাশে দাঁড়াব। সাংবাদিকরাই আমাদের বিপদে পাশে দাঁড়ায়। এদের সাথে দূরত্ব থাকাটা বোকামি। ওর যে (তানজিন তিশা) সংগঠনগুলো আছে তারা কেন এতদূর আসতে দিল আমি জানি না। অভিনয়শিল্পী সংঘ বা বড় বড় প্রডিউসার সংগঠনগুলো রয়েছে তারাও কেন এটাকে এতদূর আসতে দিল আমি জানি না। এটা আরও আগেই সমাধান করা উচিত ছিল। কেন সাংবাদিকরা রাস্তায় নামবে একটা শিল্পীর জন্য।

তিনি বলেন, আমাকে মানুষ এমনি বলে আমি ফালতু কথা বলে বেড়াই। এগুলো আসলে কী সেটা আমি জানিও না। সে তো আমার মিডিয়ার কেউ না, ছোট পর্দার মানুষজনের সাথে আমার যোগাযোগও কম। আমি সিনেমার মানুষ, সিনেমা নিয়ে থাকি, সিনেমার মানুষদের ভোটে নির্বাচিত। আর কার কী হয়েছে- এ বিষয়গুলো না মন্তব্য করা অশিক্ষিত, অবুদ্ধিমানের কাজ।

তিনি আরও বলেন, জায়েদ খান সৎ, অনেস্ট, স্বচ্ছ্ জায়েদ খানের মধ্যে কোনো লুকোচুরি আর ছলচাতুরি নেই। শিল্পীরা মোমের মতো হবে, উদার হবে, মানুষ ভালোবাসবে। আমাকে কত মানুষ হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। আমি তাদের সম্মান দিয়ে হাত বাড়িয়ে দিয়েছি- এটা হচ্ছে শিল্পী। শিল্পী হচ্ছে একটা মানুষের আইডল, স্বপ্নের জায়গা, মোমের মতো নরম। একে দেখে মানুষ ভালোবাসবে, একে আদর করে কাছে যাবে,এর ব্যবহারও হবে পরিমিত, খুব নমনীয়। রাগ কিন্তু মানুষের সামনে দেখানো যাবে না, এর ব্যক্তি লাইফ মানুষের সামনে আশা যাবে না।

পর্দার অন্তরালে রাখতে হয় অনেক বিষয়। এখন এমন ট্রেন্ড হয়েছে সবাই ফেসবুকে লিখে, সবাইকে জানায়। এটা খারাপ দিক বলেও জানান তিনি। সব শিল্পীকে ব্যক্তি লাইফ নিয়ন্ত্রিত হওয়া উচিত বলেও জানান তিনি।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

কর্ণফুলীর বালুচরে সবুজের বিপ্লব

বেড়া পাউবো / ৩৭ কর্মকর্তার বদলির আবেদনে তোলপার

সুনামগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে নিঃস্ব ২০ পরিবার

জীবিকা নির্বাহের একমাত্র সম্বল ভ্যান হারিয়ে দিশেহারা পরিবার

নিউটনের ‘ভয়ংকর’ যৌন নিপীড়নের তথ্য দিল র‍্যাব

যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক নিহত

ট্রাক্টর চাপায় প্রাণ গেল শিশুর

ঢাকায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের মিছিল শেষে শিক্ষার্থী খুন

ছাত্রলীগ কর্মীকে বেধড়ক কোপাল প্রতিপক্ষরা

মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষকে আল্টিমেটাম

১০

অবশেষে লালমনিরহাটে কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টি

১১

মিষ্টি বিতরণের ধুম / চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

১২

উত্তরা ইউনিভার্সিটিতে রিসার্চ অ্যান্ড পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত

১৩

টানা কয়েকদিন বৃষ্টির আভাস

১৪

পৃথিবীর যে স্থানে কেউ যেতে পারে না

১৫

সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় মামলা

১৬

সংগঠনের অবস্থা জানতে জেলা সফর শুরু করছে যুবদল

১৭

সৌদিতে প্রথমবার সাঁতারের পোশাকে নারী ফ্যাশন শো

১৮

তিস্তা নদীতে গোসল করতে গিয়ে কিশোরের মৃত্যু

১৯

সমুদ্রপাড়ে সিডিএ প্রকৌশলীদের ‘বারবিকিউ পার্টি’

২০
X