মোংলা প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৬ মে ২০২৪, ০৭:২৫ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

তলিয়ে গেছে সুন্দরবন

ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রসহ নিচু এলাকা ডুবে গেছে। ছবি : কালবেলা
ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রসহ নিচু এলাকা ডুবে গেছে। ছবি : কালবেলা

ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে সুন্দরবন উপকূলে নদ-নদীর পানি। এর ফলে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রসহ নিচু এলাকা ডুবে গেছে।

রোববার (২৬ মে) দুপুর থেকে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। কয়েকটি আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে ৭ হাজার মানুষ। বন্ধ রয়েছে মোংলা বন্দরের পণ্য ওঠানামার কাজ।

জানা গেছে, সকাল ১০টার সময় হঠাৎ শুরু হওয়া দমকা হাওয়ার কবলে পড়ে মোংলা নদীতে ৩০ জন যাত্রী নিয়ে ডুবে যায় একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলার। এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় সবাই তীরে উঠতে সক্ষম হয়। নদীতে তলিয়ে যায় ট্রলারটি। তবে কেউ কেউ বলছেন, গর্ভবতী এক নারী নিখোঁজ রয়েছেন। ওই ঘটনার পর উদ্ধার অভিযান শুরু করে স্থানীয় ও কোস্টগার্ড এর ডুবুরিদল। দুপুরে তারা ট্রলারটি পানির নিচে শনাক্ত হলেও সেখানে কোনো লাশ পাওয়া যায়নি।

মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিশাত তামান্না জানান, রোববার বিকেল ৪টা পর্যন্ত জয়মনি, চিলা, সুন্দরবন ইউনিয়ন ও চাঁদপাই ইউনিয়নের বেশ কিছু সাইক্লোন সেল্টারে এবং পৌর শহরের কয়েকটি সাইক্লোন সেল্টারসহ সব মিলিয়ে প্রায় ৭ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। মোংলা উপজেলায় মোট ১০৩টি সাইক্লোন সেল্টার প্রস্তুত করা হয়েছে।

এদিকে, নদীতে স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রসহ নিচু এলাকা ডুবে গেছে। করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাওলাদার আজাদ কবির জানান, করমজল এলাকা ৪/৫ ফুট পানিতে তলিয়ে গেছে। তিনি দাবি করেন, প্রজনন কেন্দ্রের বন্যপ্রাণী অক্ষত রয়েছে।

মোংলা বন্দরের কার্যক্রম শনিবার রাত থেকে বন্ধ রয়েছে। পুরোপুরি বন্ধ রাখা হয়েছে নদীতে সব ধরনের নৌযান চলাচল। বন্দরের জেটিতে নিরাপদে রাখা হয়েছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের কয়েকটি যুদ্ধ জাহাজ।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল শাহীন রহমান জানান, কনট্রোল রুম থেকে সার্বক্ষণিক তদারকি করা হচ্ছে। নিরাপদ অবস্থানে রাখা হয়েছে সব বাণিজ্যিক জাহাজ ও লাইটারগুলো।

সুন্দরবনে দায়িত্বে থাকা বন কর্মকর্তা ও কর্চামচারীরা নিরাপদ এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন। শনিবার রাতে মোংলা বন্দরে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছিল আবহাওয়া অফিস। এরপর আজ সকালে ৭ নম্বর বিপৎসংকেত নামিয়ে ১০ নম্বর মহাবিপৎসংকেত জারি করে আবহাওয়া অফিস।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

সৌদি যুবরাজের রাজকীয় সংবর্ধনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কোটালীপাড়া থেকে রাজৈর হয়ে ঢাকায় বাস চলাচলের দাবিতে মানববন্ধন

বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাস-বাস মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১

সোনারগাঁয়ের চরাঞ্চলে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

অজি পেসারের কথায় আতঙ্কিত হন ইংলিশরা

কোচ সংকটে দুর্ভোগ রেলপথে

উত্তর কোরিয়ায় কোথায় থাকছেন পুতিন?

মন্তিয়েলের সেই পেনাল্টির সময় মেসি কী ভাবছিলেন?

সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

মেসির মন্তব্য / নেইমারকে ছাড়াই কোপা জেতার ক্ষমতা রয়েছে ব্রাজিলের

১০

এসএসসি পাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

১১

নওগাঁয় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫

১২

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে পাকিস্তানেও

১৩

এক অর্ধশতকে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি সাকিবের

১৪

ইউজিসি সদস্য হিসেবে অধ্যাপক জাকির হোসেনের যোগদান 

১৫

পাহাড়ধসের ঝুঁকিতে দেড় সহস্রাধিক রোহিঙ্গা পরিবার

১৬

৩৩৮ পদে বাংলাদেশ রেলওয়েতে বড় নিয়োগ

১৭

চীনকে সতর্ক করল যুক্তরাষ্ট্র

১৮

৪৮ ঘণ্টা পার হলেও এখনো অপসারণ হয়নি কোরবানির বর্জ্য 

১৯

একদিন পর শুরু কোপা, যা জানা প্রয়োজন

২০
X