মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশ : ০৫ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৮ এএম
অনলাইন সংস্করণ

কর্তৃপক্ষের সমন্বয়হীনতায় পরিস্কার পানি থেকে বঞ্চিত লক্ষাধিক মানুষ

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ভূ-পৃষ্ঠস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্পটি। ছবি : কালবেলা
মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ভূ-পৃষ্ঠস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্পটি। ছবি : কালবেলা

তিনদফা মেয়াদ বাড়িয়ে গত বছর শেষ করা হয়েছিল মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ভূ-পৃষ্ঠস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্পটির কার্যক্রম। কাজ শেষে কয়েক মাস পরিক্ষামূলক পানি শোধনের কাজও চলে। তবে প্রকল্পটি হস্তান্তর নিয়ে ঠিকাদার, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ও পৌরসভার মধ্যে সমন্বয়হীনতা দেখা দিয়েছে। এতে শুরু হওয়ার আগেই বন্ধ হয়ে গেছে সোয়া ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত পানি শোধনাগারটি। পরিস্কার সুপেয় পানি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে লক্ষাধিক মানুষ।

প্রকল্পের ঠিকাদার ও মুন্সিগঞ্জ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ৩৭ জেলা শহরে পানি সরবরাহ প্রকল্পের অধীনে ২০১৮ সালের ১১ এপ্রিল ইউনুস অ্যান্ড ব্রাদার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে শহরের হাটলক্ষীগঞ্জ এলাকায় এ পানি শোধনাগার নির্মাণের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এতে ব্যয় ধরা হয় ১০ কোটি ২৬ লাখ ৯০ হাজার ২৩৭ টাকা। ২০১৯ সালের মে মাসে কাজ শেষে প্রকল্পটি বুঝিয়ে দেওয়ার কথা ছিল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের। তবে জমি জটিলতার কারণে ঠিকাদার কাজই শুরু করে ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর। পরবর্তীতে আরও ১৩ মাস বাড়িয়ে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে। তবে নির্মাণের শুরুতেই নিম্নমানের পাইপ ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

পরে আরেক দফায় সময় বাড়িয়ে ২০২১ সালের জুলাই পর্যন্ত সময় নেয় ঠিকাদার। অবশেষে ২০২৩ সালের জুলাইয়ে প্রকল্পের কাজ শেষ হয়। সে বছর আগস্ট থেকে পানির নমুনা পরীক্ষার জন্য পরবর্তী তিন মাস সচল ছিল। তবে ঠিকাদারদের থেকে প্রকল্পের কাজ বুঝে না নেওয়ায় পড়ে আছে পানি বিশুদ্ধকরণ কার্যক্রম।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ৩৩০০ বগর্ফুট জায়গাজুরে নির্মিত পানি শোধনাগারটির কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। শোধনাগারটি অচল হয়ে পড়ে থাকায় প্রকল্পের পানি পঁচে দুর্ঘন্ধ ছড়াচ্ছে। কাঠামো ও পানিতে ভারি শ্যাওলা জমে আছে। সে পানিতে ভ্যাঙ দৌড়াচ্ছে।

এ সময় শোধনাগারটি দেখবালের দায়িত্বে থাকা পাহারাদার অনিল বর্মণ জানান, কয়েক মাস আগে পরিক্ষামূলক পানি উঠানো হয়েছিল। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল কাজ বুঝে না নেওয়ায় ঠিকাদার পানি শোধনের কাজ বন্ধ রেখেছে। তাই হাউজের পানিতে ব্যাঙে বাসা বেধেঁছে। শেওলা জন্মেছে। ময়লা হয়ে আছে।

পরিকল্পনা ছিল শোধনাগারটির মাধ্যমে পাশের ধলেশ্বরী নদী থেকে পানি উত্তোলন করে প্রতিঘণ্টায় তিন লাখ ৫০ হাজার লিটার পানি বিশুদ্ধ করা হবে। যা সরবরাহ করা হবে পৌরবাসীর মধ্যে।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. চঞ্চল বলেন- ধলেশ্বরী পানি শোধন করে খাবার পানি সরবাহ করবে। কিভাবে করবে তা আমার বোধগম্য হচ্ছে না। কারন সিমেন্ট ফ্যাক্টরি আর কলকারখানার বর্জ্যে ধলেশ্বরীর পানি দুর্গন্ধে ভরা এই অবস্থা ধলেশ্বরী পানি শোধন করেও কাজ হবে না। পাশাপাশি এই প্রকল্পের যেই অবস্থা তা দেখে এর ভবিষ্যৎ হতাশাজনক।

এদিন হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার বেশ কয়েকজন নারী-পুরুষের সঙ্গে কথা হয়। তারা জানান, ৮-১০ বছর আগে নদী ও অগভীর নলকুপের পানি দিয়ে গৃহস্থালীর কাজ চলত। কয়েক বছর ধরে ধলেশ্বরী তীরের সিমেন্ট ফ্যাক্টরি ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের দূষণে নদীর পানি পঁচে ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে গেছে। নলকূপ দিয়েও ঠিকমত পানি পাওয়া যাচ্ছেনা। যে সব নলকূপে পানি উঠে সেগুলোও আর্সেনিকে ভরা। তাই পানি শোধনাগারটি পৌরবাসীর জন্য খুব প্রতীক্ষিত ছিল। সরকারের কোটি কোটি টাকা খরচ করে পৌবাসীর সুবিধার জন্য পানি শোধনাগার স্থাপন করা হলো। শুনছি, জনস্বাস্থ্য প্রকৌল অধিদপ্তর পানি শোধনাগারের কাজ বুঝে নিচ্ছে না।তাই ঠিকাদার পানি শোধন বন্ধ রেখেছে।

মুন্সিগঞ্জ নাগরিক সমন্বয় পরিষদের আহবায়ক এড. সুজন হায়দার জনি বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়নে দীর্ঘ সময়ে মানুষ সেবা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। যা-ই কাজ শেষ হলো, এখন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গাফিলতির কারণে প্রকল্পটি আলোর মুখ দেখছে না। প্রকল্পটি পৌরবাসীর কোন কাজে লাগছে না। সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর খামখেয়ালিপনার নিরসন করে প্রকল্পের সেবা শহরবাসীর কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য পানি শোধনাগারটি শুরু করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার সাকিব আহমেদ বাপ্পি বলেন, কয়েকমাস পানি শোধনাগারটি চালিয়েছিল। আমরা বিশুদ্ধ পানির পাবো আশা করছিলাম। আবার বন্ধ এখন, তাহলে এত টাকা দিয়ে এটি করে লাভ কী?

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক মোহাম্মদ মাসুদুর রশিদ জানান, প্রকল্পের কাজ শুরু করতে গিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মোটা অংকের টাকা দিতে হয়েছে। প্রকল্পের জায়গা ও নকশা জটিলতা থাকায় কাজ শুরু করতে কিছুটা দেরি হয়। গত বছর কাজ শেষ করে শিডিউল অনুযায়ী তিন মাস পানি সরবরাহ করি। এর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরকে কাজ বুঝে নিতে একাধিকবার লিখিত ও মৌখিকভাবে জানালেও পৌরসভা প্রকল্পটি নিতে পারবে না। এমনিতেই এ কাজে দেড় কোটি টাকার বেশি লোকসান গুনেছি। এক মাস পানি শোধন করতে এক লাখ টাকা খরচ হয়। তাই কাজ বন্ধ রেখেছি।

ঠিকাদার অভিযোগ করে বলেন, পৌরসভার কয়েকজন প্রভাবশালী এ কাজটি করতে চেয়েছিল। আমি কাজটি পাওয়ায় তারা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলের সঙ্গে যোগসাজশ করে প্রকল্প বুঝে নিচ্চে না।

মুন্সিগঞ্জ জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী এস এম আব্দুর রহমানের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, এ প্রকল্পটি ঠিকাদার এবং জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল যৌথভাবে পৌরসভাকে বুঝিয়ে দেওয়ার কথা ছিল। পৌরসভা কাজটি বুঝে নিচ্ছে না এজন্য তারাও ঠিকাদার কাছ থেকে নিতে পারছে না। কাজ দেরি করে শুরু করা এবং পৌরসভার প্রভাবশালীরা কাজ না পাওয়ায় ঠিকাদারকে বেকায়দায় ফেলতে পৌরসভা ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল যোগসাজশ করে কাজ বুঝে নিচ্ছে না,এ বিষয়ে জানতে চাইলে এই প্রকৌশলী কোনো মন্তব্য করতে চান না বলে ফোন কেটে দেন।

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র সোহেল রানা বলেন, আমি যতটুকু জানি কাজটি নিম্নমানের ছিল। তাই সাবেক মেয়র কাজটি বুঝে নেননি। তবে আমরা শিগগিরই পানি শোধনাগারের কাজটি বুঝে নেব। এ বিষয়ে আমাদের আলাপ-আলোচনা চলমান রয়েছে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

হিট স্ট্রোকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের মৃত্যু

অন্তঃসত্ত্বা নারীর চিকিৎসা করলেন না ডাক্তার, সমালোচনার ঝড়

টাইগারদের সঙ্গে সিরিজের জন্য জিম্বাবুয়ে দল ঘোষণা

থাইল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

চাকরি দিচ্ছে কাজী ফার্মস, নেই বয়সসীমা

কালবেলায় প্রতিবেদন প্রকাশ / ভূমিদস্যু কামরুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ১০ আইনজীবীর আবেদন 

আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে চায় ভারত

ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনার মধ্যে / হঠাৎ ইরান সফরে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দল

ল্যাবএইড হাসপাতালে চাকরির সুযোগ, ৪৫ বছরেও আবেদন

ইয়াবাসহ ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই গ্রেপ্তার

১০

৪ বছরের ছেলেকে ৪১ বার ছুরিকাঘাত করেন মা

১১

দুর্নীতি মামলায় এসকে সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২৬ জুন

১২

হারে মোস্তাফিজের দায় দেখছেন না চেন্নাই অধিনায়ক

১৩

দ্রুত গলছে হিমবাহ, হ্রদের আয়তন বাড়ছে হিমালয়ে

১৪

দুর্বৃত্তদের ছোড়া হাত বোমায় বাবা-ছেলে গুরুতর আহত

১৫

ঢাকায় চাকরি দিচ্ছে বে গ্রুপ

১৬

খালেদা জিয়ার গ্যাটকো মামলার চার্জ শুনানি ২৫ জুন

১৭

হিট স্ট্রোকে নর্থ সাউথের শিক্ষার্থী তূর্যের মৃত্যু

১৮

উপজেলা নির্বাচন / যারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : কাদের

১৯

নতুন শিক্ষাক্রমে এসএসসি পরীক্ষা হবে ৫ ঘণ্টার

২০
*/ ?>
X