লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১১ জুন ২০২৩, ০৫:৪১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

আসামি ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় ওসির বিরুদ্ধে আদালতের সমন জারি

ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান
ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে দোকান লুট মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তারের পর ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে কমলনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন আদালত।

আজ রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি অঞ্চল কমলনগর আদালতের বিচারক তারেক আজিজ এ আদেশ দেন। থানার ওসিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মজিবুর রহমান একটি মামলা দায়ের করেন। এতে অজ্ঞাত আরও ৪ জনকে আসামি করা হয়।

আদালতের পেশকার মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ওসিসহ ৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়েছেন। আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন। আগামী ২০ জুন তাদের আদালতে উপস্থিত থাকার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন বিচারক। বাদীর আইনজীবী মো. সোলাইমান মোল্লাও বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্য আসামিরা হলেন- কমলনগর উপজেলার চরজাঙ্গালিয়া গ্রামের শাহজাহান, চরমার্টিন গ্রামের নুর আলম ও চরলরেন্স গ্রামের কাউছার। বাদী মজিবুর উপজেলার মধ্য চরমার্টিন গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে ও তোরাবগঞ্জ বাজারের হার্ডওয়্যার দোকানের ব্যবসায়ী।

বাদী মজিবুর ও এজাহার সূত্র জানায়, শাহজাহানদের সঙ্গে মজিবুরদের জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এর জের ধরে শাহজাহান তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করে। এ মামলায় ১৮ এপ্রিল পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠায়। ১৪ দিন জেল খেটে মজিবুর জামিনে মুক্ত হয়। এদিকে তিনি জেলে থাকাকালে ২৪ এপ্রিল শাহজাহানরা তার (মজিবুর) দোকানের গ্রিল ভেঙে ভেতরে ঢুকে। একপর্যায়ে তারা ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে। পরে জেল থেকে বের হয়ে ৪ জুন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শাহজাহানসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মজিবুর মামলা দায়ের করে। মামলাটি আমলে নিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন বিচারক। ৭ জুন আদালতের নির্দেশনা পেয়ে কমলনগর থানা গ্রেপ্তার পরোয়ানা নথিভুক্ত করে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে তোরাবগঞ্জ বাজার থেকে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ইকবাল হোসেন মামলার আসামি শাহজাহান ও মাইন উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের থানায় নিয়ে যায়। পরদিন ৯ জুন ভোর রাত ৩টার দিকে অবৈধভাবে আর্থিক লেনদেন করে থানার ওসি সোলাইমান আসামি শাহজাহানকে ছেড়ে দেয়। একইদিন সকাল ৬টায় শাহজাহান লোকজনসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাদীর বাসার সামনে হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেয়। এ নিয়ে বাদী পরিবার নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন।

কমলনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, মামলার বিষয়টি আমার জানা নেই। এখনো আদালতের কোনো চিঠিও পাইনি। আসামি শাহজাহান হার্টের রোগী ছিল। অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে শর্ত দিয়ে ছাড়া হয়েছিল।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বাবার দেহাংশ শনাক্ত করতে ভিসার অপেক্ষায় এমপিকন্যা ডরিন

৬ লাখ ৭০ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়াবে ডিএসসিসি

ব্যাটারি কারখানার বিষাক্ত বর্জ্যে ৮ গরু অসুস্থ

রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২

মৌলভীবাজারের পানিবন্দি মানুষের পাশে এমপি জিল্লুর রহমান

কোথায় গেল দলছুট অসুস্থ হাতি

রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের জন্য ৭০ কোটি ডলার দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

অসংখ্য আজিজ-বেনজীর তৈরি করেছে আ.লীগ : মির্জা ফখরুল

ব্যালটে সিল মেরে ধরা, এজেন্টকে ৬ মাসের কারাদণ্ড

ভোটের ২০ দিন পর পাওয়া গেল ২১০০ ব্যালট

১০

জাতিসংঘের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন এরদোয়ান

১১

সংকট নিরসনে কর্মীদের প্রতি জামায়াত আমিরের নির্দেশনা

১২

৭৫ বছর বয়সে তৃতীয় বিয়ে

১৩

‘নিখোঁজ’ হলেই কি ‘মৃত’, বা ‘হত্যাকাণ্ডের শিকার’?

১৪

৬ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

১৫

প্রেস কাউন্সিল পদক পেলেন নূর জাহান বেগমসহ চার সাংবাদিক ও দুই প্রতিষ্ঠান

১৬

বগুড়ায় ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করায় যুবলীগ নেতা আটক

১৭

একাই ১৪ ব্যালটে সিল মারলেন যুবক

১৮

দুর্নীতির মামলায় বিআরটিএর সহকারী পরিচালকের কারাদণ্ড

১৯

শ্রীলঙ্কায় টিটি দলের কক্ষে বানরের হানা!

২০
X