কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৯ পিএম
আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

আরও ৭ দিন স্কুল বন্ধের দাবি

প্রচণ্ড গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা সাধারণ মানুষের। ছবি : সংগৃহীত
প্রচণ্ড গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা সাধারণ মানুষের। ছবি : সংগৃহীত

ঘরে-বাইরে অসহ্য গরম, বাতাসে যেন আগুনের হলকা। প্রতিদিনই বাড়ছে তাপমাত্রা। প্রচণ্ড গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা সাধারণ মানুষের। দেশের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া তাপপ্রবাহের তীব্রতা আরও বাড়ার শঙ্কায় তিন দিনের জন্য সারা দেশে হিট অ্যালার্ট দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এরই মধ্যে টানা ২৬ দিন ছুটি কাটিয়ে আগামী রোববার খুলতে যাচ্ছে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

তবে শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) হিট অ্যালার্টের মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ৭ দিন বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে অভিভাবক ঐক্য ফোরাম।

সংগঠনের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. জিয়াউল কবির দুলু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ‌‘দেশের বিভিন্ন জেলা ও অঞ্চলে হিট অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। মানুষজনকে প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হতে নিষেধ করছে প্রশাসন। এর মধ্যে স্কুল-কলেজ খুললে অনেক শিশু অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। তাই দেশের সব স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা আগামী ৭ দিনের জন্য শ্রেণি শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবি জানাচ্ছি।’

এদিকে আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক বলেছেন, হিট অ্যালার্ট তিন দিনের জন্য জারি করা হয়েছে। এই সময় সবাইকে গরম থেকে বাঁচতে সতর্ক থাকতে হবে। তবে সারা দেশে হিট অ্যালার্ট জারি থাকলেও কিছু স্থানে বৃষ্টি হতে পারে।

টানা চার দিন ধরে চুয়াডাঙ্গা জেলায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বিরাজ করছে। আজ শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ ৪১ দশমিক ৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে, যা গতকাল পর্যন্ত এ মৌসুমের সর্বোচ্চ। বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গায় ৪০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বুধবার ৪০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং মঙ্গলবার ৪০ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

আজ শুক্রবার ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা আজ পর্যন্ত ঢাকায় মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। গত ১৬ এপ্রিলও ঢাকার তাপমাত্রা ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়। এছাড়া যশোরে ৪১ দশমিক ২, বাগেরহাট, পাবনা ও রাজশাহীতে ৪১, খুলনায় ৪০ দশমিক ৭, কুষ্টিয়ায় ৪০ দশমিক ২, সাতক্ষীরা টাঙ্গাইলে ৪০, গোপালগঞ্জে ৩৯ দশমিক ৭, ফরিদপুরে ৩৯ দশমিক ২, মাদারীপুরে ৩৮ দশমিক ২, সিরাজগঞ্জে ৩৭ দশমিক ৯, বরিশালে ৩৮ দশমিক ২, বগুড়ায় ৩৭ দশমিক ৬, পটুয়াখালীতে ৩৭ দশমিক ২, নওগাঁয় ৩৭, ভোলায় ৩৬ দশমিক ৫, চাঁদপুরে ৩৬ দশমিক ৬ এবং কিশোরগঞ্জের তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাতাসে তাপমাত্রা ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠলে তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ ধরা হয়। ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে বলা হয় মাঝারি এবং ৪০ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়। এরপর ৪২ ডিগ্রির ওপরে উঠলে তাকে বলা হয় অতি তীব্র তাপপ্রবাহ।

গত বছর পাবনার ঈশ্বরদীতে ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল। ১৯৯৫ এবং ২০০২ সালেও সমান তাপমাত্রা উঠেছিল, যা দেশের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ২০১৪ সালে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল চুয়াডাঙ্গায়। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ১৮ মে রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা উঠেছিল ৪৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, দেশে আবহাওয়ার রেকর্ড রাখা শুরুর পর এটাই সর্বোচ্চ।

আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত সিলেটে ১৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া কুমিল্লায় সামান্য বৃষ্টি হয়েছে।

সন্ধ্যায় আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কুমিল্লা ও কিশোরগঞ্জ অঞ্চলসহ ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। এ সময়ে রাজশাহী, পাবনা ও টাঙ্গাইল জেলাসহ খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং চাঁদপুর ও মৌলভীবাজার জেলাসহ ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের অবশিষ্টাংশ ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আজ শুক্রবার রাত ১টা পর্যন্ত সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তরপশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যা থেকে রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে। বিরাজমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

রোববার সন্ধ্যা থেকে সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। বিরাজমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। বর্ধিত পাঁচ দিনের আবহাওয়ার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

অপরাধী হলে শাস্তি পেতেই হবে, সাবেক সেনাপ্রধান-আইজিপির বিষয়ে কাদের

সাত ঘণ্টা বন্ধের পর সৈয়দপুরে বিমান চলাচল স্বাভাবিক

ঝিনাইদহে ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যানের যাবজ্জীবন

ঝড়ের মধ্যে চাঁদপুরে বিদ্যুতের ২৩ মিটার চুরি

ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি পরিদর্শনে পটুয়াখালী যাবেন প্রধানমন্ত্রী

ঘূর্ণিঝড় রিমাল / বরগুনায় পানিবন্দি ১০ হাজার পরিবার

আরও তিন উপজেলার ভোট স্থগিত

পরীক্ষা দিতে গিয়ে নিখোঁজ, খালে মিলল মরদেহ

সরকারি চাকরিতে ৩ লাখ ৭০ হাজার পদ ফাঁকা : জনপ্রশাসনমন্ত্রী

সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাতিলের দাবি বুটেক্স শিক্ষকদের

১০

আম্বানির ছেলের বিয়েতে মঞ্চ মাতাবে শাকিরা, ডুয়া লিপা ও এ আর রহমান

১১

গভীর রাতে ঘরে ঢুকে নাতি-দাদির প্রাণ নিল ডাকাতদল

১২

অভিজ্ঞতা ছাড়া ইবনে সিনায় নিয়োগ, পাবেন অনেক সুবিধা

১৩

ঘুর্ণিঝড় রিমাল / গৌরনদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত

১৪

গাজীপুরে কাভার্ডভ্যান চাপায় পোশাক শ্রমিক নিহত

১৫

উপকূলে এখনো থামেনি ঘূর্ণিঝড় রিমালের দাপট

১৬

দেশ বাঁচাতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে : দুদু

১৭

ভারতীয় বিশ্বকাপ স্কোয়াডের আইপিএল পারফরম্যান্স কেমন

১৮

আন্তর্জাতিক সংস্থায় চাকরি, বেতন ৬৩,৯৬৪ টাকা

১৯

অবৈধ মাটির ট্রাক চলাচলে সড়ক ও ফসলি জমি হুমকির মুখে  

২০
X