কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:২৮ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ইরান হামলা চালাবে, আগে থেকেই জানতেন এরদোয়ান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। ছবি : সংগৃহীত
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। ছবি : সংগৃহীত

পশ্চিমাদের নিষেধ ও ইসরায়েলের হুমকি-ধমকিকে পাত্তা না দিয়ে সরাসরি ইসরায়েলে হামলা চালায় ইরান। ইহুদি সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটিতে নজিরবিহীন এই হামলা চালানোর আগে মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী দেশ তুরস্ককে জানিয়েছিল তেহরান।

স্থানীয় সময় রোববার আঙ্কারার একটি কূটনৈতিক সূত্রের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এ সূত্রের তথ্য অনুযায়ী তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়েপ এরদোয়ান সব আগে থেকেই জানতেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত এই অভিযানের বিষয়ে এরদোয়ান প্রশাসনকে আগেই জানিয়ে রেখেছিল ইরান। আর আঙ্কারার মাধ্যমে তেহরানকে নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছিল আমেরিকা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তুর্কি সূত্রটি জানিয়েছে, তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাকান ফিদান ইরানি অভিযানের পরিকল্পনা নিয়ে গেল সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক উভয় পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করেন। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ফিদানকে জোর দিয়ে বলেছিলেন, ইরানি পদক্ষেপ যেন একটি সীমার মধ্যে থাকে। জবাবে তেহরান জানায়, দামেস্কে তাদের দূতাবাসে হামলার জবাবে এই পাল্টা হামলা হবে তবে, সেটি পূর্ণ যুদ্ধে রূপ নেবে না।

তুরস্কের একটি নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে, সিআইএ প্রধান উইলিয়াম বার্নস ঈদুল ফিতরের ছুটিতে তুরস্কের এমআইটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান ইব্রাহিম কালিনের সঙ্গে যোগাযোগ করে ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনা নিরসনে মধ্যস্থতা করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাতে সায় দেয়নি ইরান।

সিরিয়ার রাজধানীতে তেহরানের কনস্যুলেটে সাম্প্রতিক হামলার জবাবে শনিবার গভীর রাতে তিন শতাধিক ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে ইরান এই হামলা চালায়। যদিও বেশিরভাগ ড্রোন এবং ক্ষেপণাস্ত্র ইসরায়েলি ভূখণ্ডে পৌঁছানোর আগেই ধ্বংস করা হয়েছে বলে ইসরায়েল দাবি করেছে, তারপরও উত্তেজনার আরও বৃদ্ধি হতে পারে বলে ব্যাপক উদ্বেগ রয়েছে।

মূলত গত ১ এপ্রিল সিরিয়ায় ইরানের কনস্যুলেটে হামলার প্রতিক্রিয়া হিসাবে ইসরায়েলে রাতারাতি ৩০০টিরও বেশি ড্রোন এবং ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করার কথা জানিয়েছে তেহরান। এর বেশিরভাগই ইরানের অভ্যন্তর থেকে নিক্ষেপ করা হয়। তবে লক্ষ্যে পৌঁছানোর আগেই প্রায় সব ক্ষেপণাস্ত্রই ভূপাতিত করেছে ইসরায়েল, যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের মিত্রবাহিনী।

মার্কিন সামরিক বাহিনী বলেছে, ‘ইরানের এই বিপজ্জনক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষাকে সহায়তা করার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা আঞ্চলিক নিরাপত্তা বাড়াতে আমাদের সব আঞ্চলিক অংশীদারদের সঙ্গে কাজ চালিয়ে যাব।’

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান ইসরায়েল হামলা
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ছয় বছরে দুই পিলার

লজ্জাজনক এ হারের দায় কার?

শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে বুদ্ধের শিক্ষা অনুসরণ করা প্রয়োজন : প্রধানমন্ত্রী 

উপজেলা নির্বাচন / দ্বিতীয় ধাপে চেয়ারম্যান হলেন যারা

বুদ্ধ পূর্ণিমা আজ

সাঁকো নির্মাণ নিয়ে বিরোধ, যুবককে কুপিয়ে হত্যা

স্মার্ট বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা নিয়ে সভা আজ

বুধবার ঢাকার যেসব এলাকায় যাবেন না

ইতিহাসের এই দিনে স্মরণীয় যত ঘটনা

২২ মে : নামাজের সময়সূচি

১০

অবসরের পরেও চেয়ারে তিনি, ৩ দিনে ৩৪ কোটি টাকার ঘুষ

১১

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় শিক্ষার্থী নিহত

১২

বিনা টিকিটে ১২ বছর রেল ভ্রমণ, অতঃপর...

১৩

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারী শ্রমিককে যৌন হয়রানি

১৪

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের প্রথম জার্নাল প্রকাশিত

১৫

প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটিতে ‘সেমিস্টার ডে ২০২৪’ উদ্‌যাপন

১৬

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শ্রাবণের ওপর হামলার অভিযোগ

১৭

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিলেন ফখরুল

১৮

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ধরাশায়ী হলো বাংলাদেশ

১৯

রাজধানীতে বিটিআরসির অভিযান, সরঞ্জামাদি জব্দ

২০
X