লালমনিরহাট প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৩ জুন ২০২৪, ০৬:৩৫ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে চাঁদা আদায়, বিপাকে ছাত্রলীগ নেতা

অব্যাহতিপ্রাপ্ত লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ জামান বিলাস। ছবি : কালবেলা
অব্যাহতিপ্রাপ্ত লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ জামান বিলাস। ছবি : কালবেলা

লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ জামান বিলাসকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গরু ব্যবসায়ীকে বেধড়ক পিটিয়ে আড়াই লাখ টাকা চাঁদা আদায় করার অভিযোগে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী ইনান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে, সংগঠনবিরোধী, শৃঙ্খলা পরিপন্থি, অপরাধমূলক এবং সংগঠনের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয় এমন কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. রাশেদ জামান বিলাসকে (সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, লালমনিরহাট জেলা শাখা) তার স্বীয় পদ থেকে অব্যহতি প্রদান করা হলো।

জানা গেছে, লালমনিরহাটের আদিতমারীর ভেলাবাড়ি ইউনিয়নের তালুক দুলালী গ্রামের গরু ব্যবসায়ী আইয়ুব আলীকে রোববার (৯ জুন) দুপুরে লালমনিরহাট আদালত সংলগ্ন রাস্তা থেকে ছাত্রলীগের পাঁচ নেতাকর্মী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বিলাসের কথা বলে জোর করে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে শহরের লাশ কাটা ঘরের নির্জন এলাকায় নিয়ে বেধড়ক মারধর করে।

এ সময় মারধর থেকে বাঁচতে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বিলাসের পা ধরেও রক্ষা পাননি ওই ব্যবসায়ী। পরে তার পকেটে থাকা ২০ হাজার টাকা কেড়ে নেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এরপর তাকে শহরের বিজিবি ক্যান্টিন মোড়ে ছাত্রলীগ জেলা সভাপতি বিলাসের ব্যক্তিগত চেম্বারে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে ব্যবসায়ীর হাত পা বেঁধে পুনরায় আরেক দফা মারধর করে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। পরে আড়াই লাখ টাকায় সমাধান করা হয়। গরু ব্যবসায়ী আইয়ুব আলী তার স্ত্রীকে ফোন করে গরু ব্যবসার শেষ পুঁজি ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা এনে দিলে ছাত্রলীগের জিম্মিদশা থেকে মুক্তি মেলে এ ব্যবসায়ীর।

পরে ভুক্তভোগী আইয়ুব আলী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ জামান বিলাসকে প্রধান করে ছাত্রলীগের আরও ছয়জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে সোমবার (১০ জুন) লালমনিরহাট সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অন্য অভিযুক্তরা হলেন, সৌরভ টেরা, রায়হান, রব্বানী, বাবু ও তুষার। তারা সবাই ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

গরু ব্যবসায়ী আইয়ুব আলী বলেন, মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে বিলাসের কাছে নিয়ে সঙ্গে সঙ্গে মারধর শুরু করে। যেভাবে নির্যাতন করেছে তা বর্ণনা দেওয়ার মতো নয়। হাতে পায়ে ধরেও রক্ষা পাইনি। অবশেষে জান বাঁচাতে তাদের চাহিদামতো আড়াই লাখ টাকা বুঝে দিয়ে বিকেলে মুক্তি পাই। দিনভর তাদের হাতে আটকা ছিলাম।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি ওমর ফারুক বলেন, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাশেদ জামান বিলাসসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

প্যারিস অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যা থাকছে

যেভাবে দেখবেন অলিম্পিকে আর্জেন্টিনার ম্যাচ

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে খুলবে ঢাবি

স্থানীয় সরকারের ২২৩ পদে নির্বাচন স্থগিত

ভালো নেই মুরগি ব্যবসায়ীরা

গাজীপুরে খুলে দেওয়া হয়েছে পোশাক কারখানা

পর্যটকশূন্য কাপ্তাই পর্যটনকেন্দ্রগুলো

ফিফার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ

পেন্টাগনের ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ

৪ বিভাগে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস

১০

মোবাইলে অব্যবহৃত ইন্টারনেট প্যাকেজ সম্পর্কে যা জানা গেল

১১

আর্জেন্টিনায় হতে পারে পরবর্তী কোপা

১২

ঢাকার রাস্তায় তীব্র যানজট

১৩

নেপালে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত, প্রায় সব আরোহী নিহত 

১৪

চাকরির প্রজ্ঞাপনে যা আছে

১৫

কারফিউ বিরতিতে চলবে দূরপাল্লার বাস

১৬

অলিম্পিকে নামার আগেই স্বর্ণপদকের স্বপ্ন মাসচেরানোর

১৭

সুষ্ঠু তদন্তে দায়ীদের শাস্তির দাবি সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াবের

১৮

আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শন করবেন

১৯

৩ দিনে জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল আসে সোয়া লাখেরও বেশি

২০
X