বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৩ জুন ২০২৩, ১২:০০ এএম
আপডেট : ১৩ জুন ২০২৩, ০৫:০৭ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

মানবাধিকার কমিশনের আদলে সংস্থা বানিয়ে প্রতারণা

মানবাধিকার কমিশনের আদলে সংস্থা বানিয়ে প্রতারণা

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের (এনএইচআরসি) আদলে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন (বিএইচআরসি) গড়ে তুলে দেশে-বিদেশে প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছে একটি চক্র। এ চক্রের মূলহোতা বিএইচআরসির সেক্রেটারি জেনারেল নারায়ণগঞ্জের রূপপুর থানার দাউদপুরের সাইফুল ইসলাম দিলদার। নিজ গাড়িতে ব্যবহার করেন এনএইচআরসির লোগোর আদলে তৈরি করা লোগো।

অভিযোগ উঠেছে, প্রটোকল চেয়ে ডিসি-এসপিদেরও ধমক দেন সাইফুল। ‘কমিশন’ শব্দটি ব্যবহারের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও

এনএইচআরসির আদলে তৈরি করেছেন ওয়েবসাইট। এ প্রতিষ্ঠানকে ব্যবহার করে করেন নানা ধরনের প্রতারণা। এমনকি মুক্তিযোদ্ধা না হয়েও নামের আগে ব্যবহার করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

এমন সব অভিযোগের পাহাড় নিয়ে হাইকোর্টের দারস্থ হয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। দায়ের করেছেন আদালত অবমাননার মামলা। এর পরও থামানো যাচ্ছিল না চক্রটিকে। অবশেষে গত রোববার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পক্ষে বেঞ্চ সহকারি মো. আক্তারুজ্জামান বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে প্রতারণা, মানব পাচার, অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের।

মামলার পর গতকাল রাতেই গ্রেপ্তার হয়েছেন সাইফুল ইসলামসহ সাতজন। আজ তাদের আদালতে হাজির করবে তেজগাঁও থানা পুলিশ। গ্রেপ্তার অন্যরা হলেন রুহুল আমিন, বাদল মোল্লা, তাজউদ্দীন, কাইয়ুম, সূচী আফরিন ও আটক আইনের সংঘাতে আসা এক শিশু।

পুলিশ জানায়, তাদের গ্রেপ্তারের সময় বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন সেক্রেটারি জেনারেলের ২০ ভিজিটিং কার্ড, ৯৬টি আইডি কার্ড, ১০টি গাইডলাইন বই, কর্মকর্তা কর্মচারীর তালিকা, বিভিন্ন ধরনের ১১টি সিল, ১৫টি সদস্য ফরম, ২০টি ক্যালেন্ডার, একটি মানি রিসিট বই, তিনটি সিপিইউ, এ সংস্থার লোগো ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস ও একটি প্রাইভেট কার জব্দ করা হয়।

গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) এইচএম আজিমুল হক বলেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নামে একটি বেসরকারি মানবাধিকার সংস্থা দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের আইন অনুযায়ী মানবাধিকার ‘কমিশন’ হিসেবে কমিশন শব্দটি শুধু জাতীয় মানবাধিকার কমিশন লিখতে পারবে। সেই আলোকে ‘বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন’ নামীয় সংস্থাটির বিরুদ্ধে হাইকোর্ট ডিভিশনের রিট করলে হাইকোর্ট থেকে ‘কমিশন’ শব্দটি বাদ দেওয়ার জন্য আসামি সাইফুল ইসলাম দিলদারকে নির্দেশ দেন। কিন্তু তিনি নির্দেশনা অমান্য করে বিভিন্ন ধরনের আইনবহির্ভূত কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন।

ডিসি বলেন, সংস্থাটির নামের শেষে ‘কমিশন’ ও সংক্ষেপে ‘বিএইচআরসি’ শব্দ দুটি কোথাও ব্যবহার করতে পারবে না বলে আদালত নির্দেশ দিলেও তা অমান্য করে তারা। সেইসঙ্গে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের আদলে ওয়েবসাইট তৈরি করে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ ও বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে। এ ছাড়া তাদের ফেসবুক ও ওয়েবসাইটে সদস্যপদ সংগ্রহসহ বিভিন্ন দেশে লোক পাঠানোর প্রচার চালিয়ে প্রতারণা করছিলেন সাইফুল ইসলাম।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

মাইক্রোবাস-নসিমন সংঘর্ষে নিহত ১

সিলেটে ফের বন্যা, সিসিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল

বন্যায় আক্রান্ত সিলেট, পানি বন্দী দুই লাখ মানুষ

শরীয়তপুরে বিষধর রাসেল ভাইপার উদ্ধার

সকালের মধ্যে ঝড়ের আশঙ্কা, সতর্ক সংকেত

পুনর্মিলনী ও কামিল (মাস্টার্স) অনুমোদন উদ্‌যাপন

রোনালদো কি পর্তুগালের জন্য বোঝা?

শ্রীমঙ্গলে মানুষ পানিবন্দি, বিপর্যস্ত জনজীবন!

কেন চীন-রাশিয়ার জোটে যেতে চাইছে সব দেশ?

যুদ্ধে না জড়াতে মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশের ‘হাতে-পায়ে’ ধরছে যুক্তরাষ্ট্র

১০

এবার বাবাকে নিয়ে কবিতা লিখলেন ডরিন

১১

ঈদে ঘুরতে বেরিয়ে সড়কে প্রাণ গেল তরুণ-তরুণীর

১২

সাবেক মেয়রদের ‘কোরবানির মাংস’ পেলেন পরিচ্ছন্নকর্মীরা 

১৩

ট্যানারিতে ঢুকেছে সাড়ে ৪ লাখের বেশি কাঁচা চামড়া

১৪

ববিকে চান মুন্না

১৫

সিলেটে ঘুরতে যাওয়া দর্শনার্থীদের জন্য দুঃসংবাদ

১৬

প্রেমের টানে জয়পুরহাটে ইন্দোনেশিয় তরুণী

১৭

চামড়া / দিনে বাজিমাত, রাতে মাথায় হাত

১৮

তিস্তায় বাড়ছে পানি, নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

১৯

ভারি বৃষ্টিতে মৌলভীবাজারে লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি

২০
X