কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৪ মে ২০২৪, ০৩:০৮ পিএম
আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ০৪:৩১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

বোয়িংয়ের বিমান নিয়ে উঠে এলো ভয়ংকর তথ্য

রোয়িংয়ের তৈরি বিমান। ছবি : সংগৃহীত
রোয়িংয়ের তৈরি বিমান। ছবি : সংগৃহীত

বিশ্বের অন্যতম উড়জাহাজ প্রস্তুতকারক কোম্পানি বোয়িং। বিশ্বব্যাপী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে তাদের তৈরি বিমান। তবে এবার সামনে এসেছে ভয়ংকর তথ্য। কোম্পানিটির কয়েকশ বিমান মাঝ আকাশে বিস্ফোরণের ঝুঁকিতে রয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) আরটির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের বিমান পরিষেবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বোয়িংয়ের ৭৭৭ সিরিজের অন্তত ৩০০ বিমান মাঝ আকাশে উড্ডয়নের ঝুঁকিতে রয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যেসব বিমানকে ত্রুটিযুক্ত বলে শনাক্ত করা হয়েছে এগুলোর সবই যুক্তরাষ্ট্রে অভ্যন্তরীণ রুটে পরিচালিত হয়ে আসছে। এ তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে অন্য যেসব দেশে বোয়িং ৭৭৭ সিরিজের বিমানগুলোকে রয়েছে তাদের যুক্ত করা হয়নি। মার্কিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে থাকা একই সিরিজের অন্য ‍বিমানগুলো ঝুঁকির বাইরে নয়।

এফএএ জানিয়েছে, সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে রয়েছে ৭৭৭ সিরিজের ৭৭-২০০, ২০০ এলআর, ৭৭৭-৩০০, ৩০০ ইআর এবং ৭৭৭ এফ উপসিরিজের বিমান।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে তাদের ১৬টি বিমান রয়েছে। এরমধ্যে চারটি বিমান ৭৭৭-৩০০ সিরিজের। ছোট ছোট যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ঝুঁকিতে পড়ছে বিমানগুলো।

মার্কিন এ সংস্থার তথ্যমতে, বিমানগুলোর জ্বালানি ট্যাংক শীতল এবং ঝুঁকিমুক্ত রাখতে যে প্রযুক্তি বা ইগনেশন সোর্স ব্যবহা করা হয়েছে তা অত্যন্ত দুর্বল। ফলে ইঞ্জিন অতিরিক্ত গরম হলে তা জ্বালানি ট্যাংকে প্রভাব ফেলতে পারে। এতে করেই মাঝ আকাশে ঝুঁকিতে পড়বে বিমানগুলো।

এফএএ জানিয়েছে, এ সমস্যার জন্য দায়ী বিমানের ফুয়েল ট্যাংকের ভেতরে থাকা ত্রুটিপূর্ণ ইগনিশন সোর্স। এছাড়া তারা অবিলম্বে বোয়িং কর্তৃপক্ষকে ৭৭৭ সিরিজের সব বিমান পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে।

১৯১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল শহরে বোয়িং কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে এর সদরদপ্তর ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের আর্লিংটনে স্থানান্তর করা হয়। ১০০ বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও এখনও দাপট দেখাচ্ছে কোম্পানিটি। যুক্তরাষ্ট্রের দুই শীর্ষ বিমান পরিবহন সংস্থা আমেরিকান এয়ারলাইন্স এবং ইউনাইটেড এয়ার‌লাইন্সের সব অপারেশন বোয়িং সিরিজের বিমান দিয়ে পরিচালনা করে আসছে।

এর আগে ২০২১ সালে বোয়িংয়ের ৭৮৭ ড্রিমলাইনার বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটির অভিযোগ ওঠে। অভিযোগের তদন্ত শেষে ওই বছরই ড্রিমলাইনার সিরিজের বিমান তৈরি স্থগিতের নির্দেশ দেয় এফএএ। এ ছাড়া এই সিরিজের সব বিমান গ্রাউন্ডেড করে যথাযথ পরীক্ষা এবং ত্রুটি সারানোর দেয় নির্দেশ দেয় এফএএ।

এরপর ২০২৩ সালের শেষদিকে ৭৭৭ সিরিজের বিমানের বিরুদ্ধেও যান্ত্রিক ত্রুটির অভিযোগ ওঠে। ফলে এটি নিয়ে জানুয়ারি থেকে তদন্ত শুরু করে এফএএ। বৃহস্পতিবার এ তদন্তের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। তবে এফএএর বিবৃতিতের বিষয়ে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি বোয়িং কর্তৃপক্ষ।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ছাত্রলীগ নেত্রীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় মোহাম্মদপুরে দোয়া মাহফিল 

খালেদা জিয়া এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে : ফখরুল

মতিউরের দুর্নীতি তদন্তে দুদকের ৩ সদস্যের টিম গঠন

থানচি ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

হোটেলে নারী পুলিশের সঙ্গে ধরা, ডেপুটি সুপার হলেন কনস্টেবল

বিশ্বকাপে আফগানদের জয় আর অঘটন নয়, সাধনার ফল!

হাসপাতালে যাওয়ার পথে ট্রাকচাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু

স্নাতক পাসে ব্র্যাক ব্যাংকে চাকরি

বিএনপি স্বাধীনতাবিরোধীদের তোষণ না করলে দেশ আরও এগিয়ে যেত : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

১০

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ ও ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ২ পরীক্ষা স্থগিত

১১

বুয়েটে কেন্দ্রীয় মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

১২

অর্জনে পরিপূর্ণ আওয়ামী লীগের ৭৫ বছর

১৩

প্রধানমন্ত্রীর জন্য আনারস পাঠালেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

১৪

‘আওয়ামী লীগের সফল এবং গৌরবময় পথচলার ৭৫ বছর’

১৫

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যা

১৬

ইসরায়েলি বন্দরে যৌথ অভিযান, চার জাহাজে হামলা

১৭

স্বাধীনতা হলো আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি : রেলমন্ত্রী

১৮

ম্যানেজার পদে সুলতান’স ডাইনসে চাকরি, আবদেন করুন শুধু পুরুষরা

১৯

পুরস্কারের আশায় রাসেলস ভাইপার নিয়ে প্রেসক্লাবে কৃষক

২০
X