আমিরুল ইসলাম, কামারখন্দ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:২৭ পিএম
আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৫৬ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

মায়ের স্বপ্নপূরণে হেলিকপ্টারে বাড়ি ফিরলেন প্রবাসী

হেলিকপ্টার থেকে নামার পর তোতা ও তার মাকে ফুল দিয়ে বরণ করে এলাকাবাসী। ছবি : কালবেলা
মায়ের স্বপ্নপূরণে হেলিকপ্টারে বাড়ি ফিরলেন প্রবাসী

প্রবাসী ছেলে দীর্ঘদিন দেশের বাইরে থাকায় মায়ের স্বপ্ন ছিল কোনো একদিন তার ছেলে তাকে নিয়ে হেলিকপ্টারে করে গ্রামের বাড়িতে ফিরবেন। অবশেষে হেলিকপ্টারে করে বাড়ি ফিরে মায়ের স্বপ্ন পূরণ করলেন মালয়েশিয়া প্রবাসী মিজানুর রহমান তোতা।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর আড়াইটায় তাদের বহনকারী হেলিকপ্টারটি উপজেলার শ্যামপুর দারুল উলুম কওমিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার মাঠে অবতরণ করে। এমন দৃশ্য দেখে দারুণ খুশি তাদের স্বজন ও এলাকাবাসীরা।

মিজানুর রহমান তোতা সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার রায়দৌলতপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের ওয়াজেদ আলী-শান্তি বেগম দম্পতির ছেলে।

শেষমেশ মিজানুর রহমান তোতা একা নন মালয়েশিয়া থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের পর রাজধানী ঢাকা থেকে তার মা শান্তি বেগম, শ্বশুর নজরুল ইসলাম, তার সাত বছরের ছেলে মুরসালিন, ১৪ বছরের মেয়ে মিম আক্তার ও ছোটভাই নজরুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে হেলিকপ্টারে উপজেলার শ্যামপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে ফিরেছেন।

হেলিকপ্টারে গ্রামের বাড়ি পৌঁছার পর তাকে তার ছোট হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে ফুল দিয়ে বরণ করেন এলাকাবাসী।

স্কুলশিক্ষক আতাউর রহমানসহ স্থানীয়রা জানান, জীবিকার তাগিদে গত ১৭ বছর ধরে মালয়েশিয়ায় কাজ করছেন মিজানুর রহমান তোতা। তার আয়ে সচ্ছল এখন পুরো পরিবার। শুধু তাই নয়, তার সহায়তায় উপকৃত হয়েছেন নিকট আত্মীয়স্বজনসহ এলাকার মানুষ। সুখে-দুঃখে এলাকার মানুষের পাশে থাকেন।

মালয়েশিয়া প্রবাসী মিজানুর রহমান তোতা বলেন, মায়ের স্বপ্ন ছিল বিদেশ থেকে ঢাকায় আসার পর মাকে নিয়ে হেলিকপ্টার করে বাড়ি ফিরব। সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত। আমার মতো প্রত্যেক সন্তানের উচিত মায়ের স্বপ্নপূরণ করা। আমার হেলিকপ্টারে বাড়ি ফেরায় এলাকাবাসীও খুশি হয়েছে ও ফুল দিয়ে বরণ করেছেন।

ছোটভাই নজরুল ইসলাম বলেন, হেলিকপ্টার ভাড়া ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। ঢাকাতে গ্রামের বাড়িতে ফিরতে সময় লেগেছে ২০ মিনিট।

এদিকে তারা ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে বাড়ি ফিরবেন এমন খবরে সহস্রাধিক মানুষ শ্যামপুর দারুল উলুম কওমিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার মাঠে ভিড় জমান। গ্রামের মানুষ কখনো হেলিকপ্টার কীভাবে মাটি ছোঁয় তা দেখেননি। হেলিকপ্টার কখনো এত কাছ থেকেও দেখিনি। প্রচণ্ড বাতাসে চারদিকে যেন ভূমিকম্প। নিরাপত্তার জন্য সার্বিক সহযোগিতা করেছে কামারখন্দ থানা পুলিশ।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

যুদ্ধের মধ্যেই মন্ত্রীকে আটক করলেন পুতিন

সকালে ইসতিসকার নামাজ আদায়, রাতে নামল স্বস্তির বৃষ্টি

তাপমাত্রা আরও বাড়ার শঙ্কা

অফিসার নিয়োগ দেবে কাজী ফার্ম, আবেদন করুন দ্রুত

হিট স্ট্রোকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের মৃত্যু

অন্তঃসত্ত্বা নারীর চিকিৎসা করলেন না ডাক্তার, সমালোচনার ঝড়

টাইগারদের সঙ্গে সিরিজের জন্য জিম্বাবুয়ে দল ঘোষণা

থাইল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

চাকরি দিচ্ছে কাজী ফার্মস, নেই বয়সসীমা

কালবেলায় প্রতিবেদন প্রকাশ / ভূমিদস্যু কামরুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ১০ আইনজীবীর আবেদন 

১০

আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে চায় ভারত

১১

ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনার মধ্যে / হঠাৎ ইরান সফরে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দল

১২

ল্যাবএইড হাসপাতালে চাকরির সুযোগ, ৪৫ বছরেও আবেদন

১৩

ইয়াবাসহ ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই গ্রেপ্তার

১৪

৪ বছরের ছেলেকে ৪১ বার ছুরিকাঘাত করেন মা

১৫

দুর্নীতি মামলায় এসকে সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২৬ জুন

১৬

হারে মোস্তাফিজের দায় দেখছেন না চেন্নাই অধিনায়ক

১৭

দ্রুত গলছে হিমবাহ, হ্রদের আয়তন বাড়ছে হিমালয়ে

১৮

দুর্বৃত্তদের ছোড়া হাত বোমায় বাবা-ছেলে গুরুতর আহত

১৯

ঢাকায় চাকরি দিচ্ছে বে গ্রুপ

২০
*/ ?>
X