কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২১ মে ২০২৪, ১০:৫৮ পিএম
আপডেট : ২২ মে ২০২৪, ০৭:০৩ এএম
অনলাইন সংস্করণ

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে আইসিসির গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে কী প্রভাব পড়বে?

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি : সংগৃহীত
ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি : সংগৃহীত

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় গণহত্যা এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এবং বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি রাজনৈতিক ও সামরিক নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পথে রয়েছে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)।

ইতিমধ্যে নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদনও করেছেন আইসিসির প্রধান কৌঁসুলি করিম খান।

সোমবার (২০ মে) আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে এই আবেদন করা হয়। আইসিসির ওয়েবসাইটেও আবেদনের ঘোষণাপত্র প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে দেখা যায়, নেতানিয়াহু ছাড়াও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী যোদ্ধাদের দল হামাসের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে।

এ তালিকায় রয়েছেন- ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু, প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট, গাজা উপত্যকার ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রধান ইয়াহিয়া সিনওয়ার, সামরিক শাখা আল কাসাম ব্রিগেডের কমান্ডার-ইন-চিফ মোহাম্মদ দিয়াব ইব্রাহিম আল মাসরি ও হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর প্রধান ইসমাইল হানিয়াহ।

অন্যদিকে এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ঠেকাতে জরুরি বৈঠক করেছেন নেতানিয়াহু। মঙ্গলবার কীভাবে এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা এড়ানো যায় তা খুঁজে বের করতে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে দেশটির তিনজন মন্ত্রী ও বেশ কয়েকজন সরকারি আইনজীবী একটি জরুরি বৈঠক করেছেন।

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েল বলেছে, এটি ‘নজিরবিহীন অপমান’। এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আবেদনের প্রেক্ষিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মন্তব্য করেছেন, ইসরায়েল এবং হামাসকে এক কাতারে দেখা ঠিক নয়।

তবে পশ্চিমা মিত্রদের কাতারে যোগ না দিয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে ফ্রান্স।

ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ফ্রান্স আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত, আদালতের নিরপেক্ষতা ও সব পরিস্থিতিতে দায়মুক্তির বিরুদ্ধে সংগ্রামকে সমর্থন জানায়। প্রশ্ন উঠছে, নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে আইসিসির গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে কী প্রভাব পড়বে?

জেরুজালেমভিত্তিক প্রভাবশালী মানবাধিকার সংগঠন বেতসেলেম বলেছে, এই পরোয়ানা ইসরায়েলের দ্রুত নৈতিক অবক্ষয়েরই প্রতিফলন। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইসরায়েলকে এ ইঙ্গিত দিচ্ছে, দেশটি আর তার সহিংসতা, হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ জবাবদিহি ছাড়া চালিয়ে যেতে পারবে না।

অনেক বছর ধরে মানবাধিকারকর্মীদের অভিযোগ, যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা দেশগুলো ইসরায়েলের আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের বিষয়টি দেখেও না দেখার ভান করছে। এমনকি এ ক্ষেত্রে তাদের কোনো নিন্দাও জানায় না তারা। আবার পশ্চিমাদের দলে না থাকা অন্য দেশগুলোও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপ করছে না। এই মানবাধিকারকর্মীরা মনে করেন, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আরও আগে এই পদক্ষেপ নেওয়া দরকার ছিল।

এখন হামাস ও ইসরায়েলি নেতাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির বিষয় বিবেচনা করবেন আইসিসির বিচারপতিদের একটি প্যানেল। পরোয়ানা জারি হলে আদালতের রোম সংবিধিতে স্বাক্ষরকারী দেশগুলো সুযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের আটক করতে বাধ্য থাকবে।

রোম সংবিধিতে স্বাক্ষরকারী ১২৪টি দেশের মধ্যে নেই রাশিয়া, চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। এতে সই করেনি ইসরায়েলও। অবশ্য আইসিসি বলেছে, ফিলিস্তিন এ সংবিধিতে স্বাক্ষর করায় গাজা যুদ্ধে সংঘটিত ফৌজদারি অপরাধের বিচার করার এখতিয়ার তার রয়েছে।

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে ইসরায়েলের সবচেয়ে দীর্ঘ মেয়াদে দায়িত্ব পালনকারী প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু গ্রেপ্তারের ঝুঁকি এড়িয়ে ঘনিষ্ঠ মিত্র পশ্চিমা দেশগুলোতে সফর করতে পারবেন না।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেছেন, আইসিসির তৎপরতা যুদ্ধ বন্ধ, জিম্মি মুক্তি বা গাজায় মানবিক সহায়তা প্রবেশের ক্ষেত্রে সহায়ক নয়। তবে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে ব্রিটেন তা কার্যকর করবে; যদি না নেতানিয়াহুর কূটনীতিক দায়মুক্তির বিষয়ে তারা সফলভাবে যুক্তি তুলে ধরতে পারে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমেরিকা প্রবাসী মামার জন্য ছাগল কেনেন ইফাত

ইসরায়েলি গণমাধ্যমের বিশ্লেষণ / হামাসের সঙ্গে যুদ্ধে কি ইসরায়েল হেরে যাচ্ছে?

আওয়ামী লীগ দলে বাড়ছে তরুণনির্ভরতা

অস্ট্রেলিয়ায় নেমেসিসের তিন কনসার্ট

নানা আয়োজনে বাগেরহাটে কবি রুদ্রের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

তীব্র গরমে সৌদিতে এক হাজারের বেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

এবার বাবরের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ

তারা সুতারিয়ার স্বপ্ন

উজানের পানিতে গাইবান্ধায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত

নেত্রকোনায় পানিতে ডুবে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

১০

সড়ক দুর্ঘটনায় লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ইরান আহত 

১১

‘জামায়াতের সর্বস্তরের জনশক্তি বন্যার্তদের পাশে রয়েছে’ 

১২

ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার নিবন্ধ / ‘প্রতিবেশী কূটনীতিতে বাংলাদেশ’

১৩

যার ওপর বাংলাদেশ দাঁড়িয়ে

১৪

বাংলাদেশের অর্থনীতি যেন ‘কৈ মাছের প্রাণ’

১৫

চট্টগ্রামে পাহাড়ি ঝরনা থেকে পড়ে পর্যটক আহত

১৬

‘প্রধানমন্ত্রী এবার কী নিয়ে আসেন, জনগণ তা দেখার প্রতীক্ষায়’

১৭

বন্যা থেকে সিলেটবাসীকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

১৮

এবার মানব বীর্যে মাইক্রোপ্লাস্টিকের উপস্থিতি শনাক্ত

১৯

সাংবাদিক মুজাহিদ মসির বিরুদ্ধে হয়রানি মামলা, তদন্তে মন্ত্রিপরিষদের নির্দেশনা

২০
X