নাটোর প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৫ জুন ২০২৪, ০৫:৩১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

খাইটা বিক্রি হচ্ছে ওজনে!

ওজনে খাইটা বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। ছবি : কালবেলা
ওজনে খাইটা বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। ছবি : কালবেলা

ঈদুল আজহাতে দা-বঁটি-ছুরি-চাপ্পলের পাশাপাশি অপরিহার্য আরেকটি পণ্য হলো কাঠের খাইটা। মূলত তেঁতুল গাছের মোটা গুঁড়ি গোল করে কেটে এই খাইটা তৈরি করা হয়। মাংস টুকরো করতে এই খাইটা ব্যবহার করা হয়। যা না হলে মাংস কাটা একেবারেই অসম্ভব।

কোরবানি পশু কেনার সঙ্গে সঙ্গে কোরবানি দাতারা কাঠের খাইটা কিনতে ভুলেন না। নাটোরের বিভিন্ন বাজারে ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে গোশত কাটার মৌসুমি ব্যবসা কাঠের গুঁড়ি বা খাইটার বেচাকেনা বেড়েছে। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে দামও। আগে সব বাজারেই পিস হিসেবে এ খাইটা বিক্রি হলেও নাটোর শহরে বিক্রি হচ্ছে কেজি দরে। নাটোর শহরের হাফরাস্তা এলাকার খাইটা ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির মুন্সী ৩০ টাকা কেজি দরে এই খাইটা বিক্রি করছেন।

হুমায়ুন কবির মুন্সী জানান, সারা বছর তেমন একটা বিক্রি না হলেও ঈদ মৌসুমে এর বিক্রি বেড়ে যায় কয়েকশ গুণ। এখন বিভিন্ন স্থান থেকে গাছ কিনতে হচ্ছে মণ দরে। তাই আমরাও এটি কেজি দরে বিক্রি করছি। তেঁতুল গাছের খাইটা সবচেয়ে ভালো। এখন সেই গাছ পাওয়া খুবই দুঃসাধ্য হয়ে গেছে। যে কারণে এর দামও বেড়েছে অস্বাভাবিকভাবে। অন্যান্য উপজেলার হাট-বাজার এলাকায় রাস্তার পাশে থরে থরে সাজিয়ে বিক্রি করতে দেখা গেছে এসব খাইটা। তবে ব্যবসায়ীরা দুষছেন কাঠের দামকে।

শনিবার (১৫ জুন) পৌর শহরের চাঁচকৈড় বাজারে সরেজমিনে দেখা যায়, রসুন হাট পুরাতন ব্রিজ, ছাতার মোড়, ফার্নিচার পট্টিসহ বিভিন্ন মোড়সহ উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে বিক্রি হচ্ছে এসব খাইটা। ছোট-বড় নানা আকৃতির এসব খাইটা কিনছেন পশু কোরবানি দাতারা।

খাইটা বিক্রেতা শহিদুল ইসলাম জানান, আকার অনুযায়ী ১শ থেকে ৬শ টাকা দামের খাইটা রয়েছে তার কাছে। দাম বেশির কারণ হিসেবে তিনি জানান, অন্যান্য জিনিসের মতো কাঠের গাছের দামও বেড়েছে। তিনি আরও জানান, সব কাঠে খাইটা হয়নি। তেঁতুল কাঠের খাইটা সব থেকে ভালো আর এ কাঠের খাইটার চাহিদা-দামও দুটোই বেশি।

তিনি আরও জানান, ৫-৭ বছর ধরে কোরবানির ঈদের আগে খাইটার ব্যবসা করেন। গত বছরও প্রায় ৩শ পিস খাইটা বিক্রি করেছিলেন। এ বছরও একই ধরনের বিক্রি হবে বলে আশা তার। এবারও ভালো লাভের আশা করছেন তিনি।

পৌর শহরের আনন্দনগর মহল্লার বাসিন্দা বদিউজ্জামান জানান, তিনি এ বছর কোরবানি উদ্দেশ্যে একটি ছাগল কিনেছেন। গোস্ত প্রক্রিয়ার জন্য একটি মাঝারি আকৃতির খাইটা কিনতে এসেছেন। আগের বছরগুলোতে যেগুলো কেনা হয়, সেগুলো নষ্ট হয়ে যায় অযত্নে অবহেলায়। তাই নতুন করে কিনলাম আবার। দরদাম শেষে ২৫০ টাকায় একটি খাইটা কিনেছেন তিনি। তার দাবি, গত বছরের তুলনায় এ বছর দাম বেশি।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

কারাগার থেকে পালানো আসামি শ্বশুরবাড়ি থেকে গ্রেপ্তার

মুশফিক-মুমিনুলদের দুই দিনের ম্যাচ আগামীকাল

কালবেলার নামে ভুয়া খবর থেকে সতর্ক থাকুন

ব্যাটিং ধারাবাহিকতায় খুশি জ্যোতি

নারায়ণগঞ্জে সরকারি ৮টি-বেসরকারি অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংসস্তূপ

প্যারিস অলিম্পিকে গুপ্তরচবৃত্তি

৬ জনের মৃত্যুর বিষয়ে তদন্ত করবে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন

আপাতত বন্ধই থাকবে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে

পিছিয়ে পড়েও ভুটানের বিপক্ষে বড় জয় বাংলাদেশের

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

১০

বিদ্যুৎ লাইন মেরামত করতে গিয়ে প্রাণ গেল যুবকের

১১

আমীর খসরুসহ কারাগারে ৩৯৬, রিমান্ডে ৩৩

১২

সরকারি স্থাপনায় ভাঙচুর / সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িতদের ধরা হচ্ছে : হারুন

১৩

ঢাকা ছেড়ে পিটার হাসের আবেগঘন পোস্ট

১৪

‘পশ্চিমা সাংবাদিকরা কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে অপপ্রচার চালিয়েছে’

১৫

ফেসবুক, ইউটিউব ও টিকটককে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত

১৬

সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের

১৭

দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে : আইজিপি

১৮

ভিসা বন্ধের বিষয়ে কিছু জানায়নি আরব আমিরাত : প্রতিমন্ত্রী

১৯

কুমিল্লায় ৫ মামলায় গ্রেপ্তার ১৩৭

২০
X