কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৪ মে ২০২৪, ১২:২৩ পিএম
আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ০১:৩৭ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

এবার জার্মানিতে ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতির দাবি উঠল

ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতির দাবিতে বিক্ষোভ। ছবি : সংগৃহীত
ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতির দাবিতে বিক্ষোভ। ছবি : সংগৃহীত

ফিলিস্তিনকে একে একে স্বীকৃতি দিচ্ছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ। এ ছাড়া গাজায় ইসরায়েলের অভিযানের বিরুদ্ধে উত্তাল হয়ে উঠেছে ইউরোপের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়। এবার দেশটিকে স্বীকৃতির দাবি জানিয়েছে জার্মানির বিরোধী দল। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) আনাদোলু এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মানির উগ্র বামপন্থি বিরোধী দল দ্য লেফট (ডাই লিঙ্কে) সরকারে কাছে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বীকৃতির দাবি জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার দলটি এ দাবি জানায়।

পাবলিক ব্রডকাস্টার এমডিআরকে পররাষ্ট্র নীতিবিষয়ক মুখপাত্র গ্রেগর গিসি বলেন, ইসরায়েলের নিরাপত্তার জন্য এ পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। কেননা কেবল ফিলিস্তিন রাষ্ট্রই হামাস ও অন্যান্য উগ্রবাদী দলকে মোকাবিলা করতে পারে। এ সময় তিনি সংসদে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতির জন্য একটি প্রস্তাব উত্থাপনের কথাও জানান।

গ্রেগর গিসি বলেন, ইসরায়েলের চেয়ে হামাস ও অন্যান্য সংগঠনের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে পারে। ইসরায়েল কেবল সামরিকভাবে এটি করতে পারে। কিন্তু ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ অভ্যন্তরীণ কাঠামো দিয়ে এর মোকাবিলা করতে পারে।

এ আইনপ্রণেতা জোর দিয়ে বলেন, হলোকাস্টের কারণে ফিলিস্তিনের স্বীকৃতির পক্ষে কথা বলার ব্যাপারে জার্মানিতে বিশেষ বিধিনিষেধ আছে।

তিনি বলেন, এমন অনেক দেশ আছে যারা ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের ট্রেন মিস করা উচিত নয়। এ বিষয়ে আমাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসা উচিত।

তিনি আরও বলেন, ইসরায়েলের নিরাপত্তার জন্যই এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন। আর তা কেবল ফিলিস্তিনিদের নয়, ইসরায়েলকেও নিরাপত্তা দেবে।

এর আগে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়, ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতির ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপের তিন দেশ নরওয়ে, স্পেন ও আয়ারল্যান্ড। গত বুধবার (২২ মে) একযোগে এ ঘোষণা দেন দেশ তিনটির প্রধানমন্ত্রীরা। তারা বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে শান্তির প্রয়োজনে ফিলিস্তিনকে একটি রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেবেন তারা। একমাত্র স্বীকৃতিই এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠা করবে।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী জোনাস গহর স্টোর বলেন, একটি দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানই সর্বোত্তম পথ। ফিলিস্তিনের স্বীকৃতি না থাকলে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি আসতে পারে না। নরওয়ে আগামী ২৮ মে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেবে বলেও ঘোষণা দেন জোনাস গহর স্টোর।

নরওয়ের ঘোষণার পরপরই, আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সাইমন হ্যারিসও এক সংবাদ সম্মেলনে ফিলিস্তিন স্বীকৃতি দেওয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, আয়ারল্যান্ডও ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

খালেদা জিয়া এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে : ফখরুল

মতিউরের দুর্নীতি তদন্তে দুদকের ৩ সদস্যের টিম গঠন

থানচি ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

হোটেলে নারী পুলিশের সঙ্গে ধরা, ডেপুটি সুপার হলেন কনস্টেবল

বিশ্বকাপে আফগানদের জয় আর অঘটন নয়, সাধনার ফল!

হাসপাতালে যাওয়ার পথে ট্রাকচাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু

স্নাতক পাসে ব্র্যাক ব্যাংকে চাকরি

বিএনপি স্বাধীনতাবিরোধীদের তোষণ না করলে দেশ আরও এগিয়ে যেত : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ ও ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ২ পরীক্ষা স্থগিত

বুয়েটে কেন্দ্রীয় মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

১০

অর্জনে পরিপূর্ণ আওয়ামী লীগের ৭৫ বছর

১১

প্রধানমন্ত্রীর জন্য আনারস পাঠালেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

১২

‘আওয়ামী লীগের সফল এবং গৌরবময় পথচলার ৭৫ বছর’

১৩

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যা

১৪

ইসরায়েলি বন্দরে যৌথ অভিযান, চার জাহাজে হামলা

১৫

স্বাধীনতা হলো আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি : রেলমন্ত্রী

১৬

ম্যানেজার পদে সুলতান’স ডাইনসে চাকরি, আবদেন করুন শুধু পুরুষরা

১৭

পুরস্কারের আশায় রাসেলস ভাইপার নিয়ে প্রেসক্লাবে কৃষক

১৮

শিশুর জিব-ঠোঁট কেটে ফেলল প্রতিবেশী

১৯

মতিউরের বিরুদ্ধে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে

২০
X