মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
চট্টগ্রাম ব্যুরো
প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর ২০২৩, ১০:১৭ পিএম
আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২৩, ১০:১৮ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

পাসওয়ার্ড হ্যাক করে গ্রাহকের ৭৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ

চট্টগ্রামের মানচিত্র। গ্রাফিক্স : কালবেলা
চট্টগ্রামের মানচিত্র। গ্রাফিক্স : কালবেলা

গ্রাহকের স্বাক্ষরিত চেক জালিয়াতি এবং ব্যাংক কর্মকর্তাদের আইডি ও পাসওয়ার্ড হ্যাক করে ৭৭ লাখ ৮২ হাজার টাকা আত্মসাতের দায়ে পূবালী ব্যাংকে সন্দ্বীপের শিবিরহাট শাখার বর্তমান চাকরিচ্যুত সিনিয়র মেসেঞ্জার কাম গার্ড আবুল কালাম আজাদের (৩১) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) দুদক চট্টগ্রাম ২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল মালেক বাদী হয়ে মামলা করেন। বিষয়টি দুদক চট্টগ্রাম-২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. আতিকুল আলম কালবেলাকে নিশ্চিত করেন। অভিযুক্ত আবুল কালাম আজাদ (৩১) চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ থানার মুছাপুর ৯নং ওয়ার্ডের বেলাল মাস্টারের বাড়ির বাসিন্দা হাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীমের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালে সন্দ্বীপের শিবিরহাট শাখায় অস্থায়ী কর্মচারী হিসেবে মেসেঞ্জার কাম গার্ড পদে যোগ দেন আবুল কালাম আজাদ। ২০১৫ সালে তার চাকরি স্থায়ী হয়। ২০১৯ সালে ওই পদে ‘সিনিয়র’ পদোন্নতি হয় তার। ২০২০ সালের ৮ জানুয়ারি থেকে ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্যাংকের ওই শাখার ১১ জন গ্রাহকের স্বাক্ষরিত চেক কৌশলে নিয়ে এবং আইটি বিষয়ে দক্ষ হওয়ার সুবাদে তাদের ১১টি ব্যাংক হিসাব থেকে ৭৭ লাখ ৮২ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন আবুল কালাম আজাদ। একই বছরের ২৭ জানুয়ারি পূবালী ব্যাংকের শিবিরহাট শাখা ব্যবস্থাপক মো. আনোয়ার হোসেন সন্দ্বীপ থানায় বাদী হয়ে আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে একটি এজাহার দায়ের করেন।

দুদকের তপশিলভুক্ত অপরাধ হওয়ায় সন্দ্বীপ থানা এজাহারটি ২৭ জানুয়ারি দুদক চট্টগ্রাম-২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক বরাবর পাঠিয়ে দেন। ২ মার্চ দুদক চট্টগ্রাম ২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সাবেক সহকারী পরিচালক রতন কুমার দাশ এজাহারটি অনুসন্ধানের দায়িত্ব পান। পরে অনুসন্ধান করে আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজুর সুপারিশ করে প্রতিবেদন দাখিল করেন তিনি। ২০২৩ সালের ৪ অক্টোবর দুদক ঢাকা প্রধান কার্যালয় আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজুর অনুমোদন দিলে এরই পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছরের ৯ অক্টোবর দুদক চট্টগ্রাম-২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল মালেককে মামলা রুজু কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। ১৮ অক্টোবর আব্দুল মালেক বাদী হয়ে আবদুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১ ধারা ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

দেরিতে কোরবানি না করায় ইমামকে বেধড়ক পিটুনি, চাকরিচ্যুত

মায়ের লাশের পাশে কান্না করা সেই শিশুর পরিচয় মিলেছে

আফগানদের হারানোর ম্যাচে উইন্ডিজের বহু রেকর্ড

নতুন কোন প্রযুক্তিতে বাতিল লুকাকুর গোল?

ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবে নিহত ১১, থাকতে পারে বাংলাদেশিও

কুষ্টিয়ায় স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকা উত্তোলনকারী আব্দুল জলিল দাফন সম্পন্ন

আজ আপনার ভাগ্যে কী আছে?

‘আমাদের বাসা থেকে কেউ ঈদগাহে গেল না’

কোপার চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু আর্জেন্টিনার

দুপুরের মধ্যে যেসব অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস

১০

কোরবানির সময় শিংয়ের গুঁতা, কেউবা খেলেন লাথি, আহত ১০

১১

হজে গিয়ে সাতক্ষীরার ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু

১২

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি নিয়ে আসতে পারে নতুন সিদ্ধান্ত

১৩

কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

১৪

আজকের নামাজের সময়সূচি

১৫

কিমের দেশে যাচ্ছেন পুতিন

১৬

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কোরবানি দেওয়া হয় যেসব পশু

১৭

জয় দিয়ে ইউরো অভিযান শুরু ফ্রান্সের

১৮

ফার্গুসনের রেকর্ডের দিনে কিউইদের সান্ত্বনার জয়

১৯

ইসরায়েলকে সতর্ক করে যে বার্তা দিলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

২০
X