জবি প্রতিনিধি
প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০২৩, ১১:৩৪ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

আ.লীগের ইশতেহার শিক্ষাবান্ধব করার লক্ষ্যে প্রস্তাবনা জবিশিসের

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। ছবি : কালবেলা

একটি বুদ্ধিদীপ্ত, উদ্ভাবনী ও সৃষ্টিশীল জাতি বিনির্মাণের লক্ষ্যকে সামনে রেখে শিক্ষা খাতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা অন্তর্ভুক্ত করে আসন্ন নির্বাচনে বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণার দাবি জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। শিক্ষা খাতের উন্নতি ও প্রবৃদ্ধির জন্য তারা কিছু সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনাও পেশ করেন।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির আহ্বায়ক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাককে চিঠির মাধ্যমে এ দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আইনুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. একেএম লুৎফর রহমান।

শিক্ষক সমিতির প্রস্তাবনাগুলো হলো-

১. শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বাজেট বরাদ্দ বাড়লেও আনুপাতিক হারে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশের শিক্ষার সার্বিক মান উন্নয়নে শিক্ষায় বরাদ্দ আরও বাড়ানো প্রয়োজন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি মনে করে একটি বুদ্ধিদীপ্ত, উদ্ভাবনী ও সৃষ্টিশীল জাতি বিনির্মাণের জন্য টেকসই উন্নয়ন ও মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাজেটে বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি জানান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, জাতীয় বাজেটের ২০ ভাগ এবং জিডিপির ৫ থেকে ৬ ভাগ শিক্ষা খাতে ব্যয় করা দরকার। এ ব্যাপারে ইশতিহারে সুনির্দিষ্ট ঘোষণা থাকলে দেশবাসীসহ দেশের সর্ব পর্যায়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অনেক বেশি আশাবাদী হবেন।

২. উচ্চশিক্ষার মানকে বিশ্বমানে উন্নীত করার লক্ষ্যে বর্তমান 'বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনকে ‘উচ্চশিক্ষা কমিশনে’ রূপান্তর করা।

৩. দেশের সব পর্যায়ের প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল বাস্তবায়ন করে যোগ্য দক্ষ ও অধিকতর মেধাবীদের শিক্ষকতা পেশায় আকৃষ্ট করার প্রতিশ্রুতি থাকা।

৪. বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মানসম্মত গবেষণা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া।

৫. দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পোস্ট-ডাক পজিশন, আর.এ., টি.এ. পজিশন চালু করা। এজন্য বাজেটে সুনির্দিষ্ট বরাদ্দ রাখা। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে মেধাবীদের শিক্ষকতায় আকৃষ্ট করা।

৬. বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থীর জন্য মানসম্মত আবাসিক সুবিধা নিশ্চিত করা। সব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য উন্নত বিশ্বের মতো চাহিদা অনুযায়ী ঋণ সুবিধা প্রদানের বিষয়টি ইশতেহারে থাকা জরুরি, যাতে গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা এই সুবিধার আওতায় একটি মানসম্মত উচ্চ শিক্ষা অর্জন করতে পারে।

চিঠিতে নেতারা প্রস্তাবিত বিষয়গুলো বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে অন্তর্ভুক্ত করে একটি বুদ্ধিদীপ্ত, উদ্ভাবনী ও সৃষ্টিশীল জাতি বিনির্মাণের লক্ষ্যকে সামনে রেখে আগামী সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জয়লাভ আশা করেছেন।

এ ছাড়াও ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ১৫ বছরের হাজারো অর্জনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান শিক্ষক সমিতির নেতারা।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঘুষ-দুর্নীতির আখড়া জাজিরার বড়কান্দি ইউনিয়ন ভূমি অফিস

মীন রাশিতে কাজে সফল হওয়ার দিন আজ

২৭ ফেব্রুয়ারি : নামাজের সময়সূচি

মঙ্গলবার রাজধানীর যেসব এলাকায় যাবেন না

কী ঘটেছিল ইতিহাসের এই দিনে

প্যারিসে ভাষা দিবস উপলক্ষে পঞ্চ কবির গানের সন্ধ্যা

বাবাকে কুপিয়ে জখম, ছেলে গ্রেপ্তার

আধিপত্য বিস্তারে দুই গ্রুপের ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৩

পথ হারানো ৩১ দর্শনার্থীকে উদ্ধার করল পুলিশ

শিক্ষা সফরে মদপান, দুই শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

১০

মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা!

১১

রাতের ঢাকায় নতুন মাদক

১২

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

১৩

রংপুরকে উড়িয়ে ফাইনালে লিটনের কুমিল্লা

১৪

যুগান্তরের অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে

১৫

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

১৬

যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

১৭

করোনায় আক্রান্ত ডিবি প্রধান হারুন

১৮

‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ নামকরণের প্রস্তাব বাতিল

১৯

বর্ণাঢ্য আয়োজনে চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের নবীনবরণ

২০
X