কালবেলা ডেস্ক
প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:০৪ পিএম
আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

গাজার সেই শহরে আবারও নারকীয় হামলার ঘোষণা

গাজায় নিহতদের স্বজনদের আহাজারি। ছবি : আল জাজিরা
গাজায় নিহতদের স্বজনদের আহাজারি। ছবি : আল জাজিরা

ফিলিস্তিনের গাজার একটি শহরে নতুন করে নারকীয় হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসরায়েল। এ জন্য সেখান থেকে বাসিন্দাদের সরে যেতে আহ্বান জানানো হয়েছে। চার মাস আগে এ শহরটিতেই ভয়ংকর হামলা চালিয়ে অসংখ্য বেসামরিক ফিলিস্তিনি হত্যা করে ইসরায়েল। সন্ধান মেলে গণকবরের।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দেশটির সামরিক বাহিনী আইডিএফ-এর বরাতে দ্য টাইমস অব ইসরায়েল এ তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, উত্তর গাজার বেইত লাহিয়ার কিছু অংশের বাসিন্দাদের অন্যান্য এলাকায় সরে যাওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। এসব এলাকায় নতুন করে সর্বাত্মক অভিযান শুরু করা হবে।

আইডিএফ-এর আরবি-ভাষার মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল আভিচায় আদ্রাই ঘোষণার পাশাপাশি বেইত লাহিয়ার যে এলাকাগুলো থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া দরকার তার একটি তালিকা প্রকাশ করেছেন।

আইডিএফ-এর ঘোষণায় বেইত লাহিয়ার বাসিন্দাদের উদ্দেশে বলা হয়, ‘আপনি একটি বিপজ্জনক যুদ্ধ অঞ্চলে আছেন। ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী সন্ত্রাসী অবকাঠামো ও তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবে।’

হামাসের বিরুদ্ধে ইসরায়েল গাজায় স্থল অভিযান শুরু করে। এরপর থেকে উত্তর গাজার বাসিন্দাদের দক্ষিণে সরে যেতে বলে আসছে। তারা বলছে, বাসিন্দাদের বড় একটি অংশ যুদ্ধাঞ্চল থেকে না সরায় বেসামরিক নাগরিকদের হতাহতের ঘটনা বাড়ছে। তবে ইসরায়েল কখনো বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে না।

অথচ ইসরায়েল দফায় দফায় গাজার হাসপাতালগুলোতে হামলা করছে। নিহত হচ্ছে নারী ও শিশু।

এই বেইত লাহিয়ায় চার মাস আগে ইসরায়েলি বাহিনী অভিযান চালায়। তারা সেখান থেকে চলে গেলে একটি গণকবরে ২০টি মরদেহ পাওয়া যায়। আবর্জনা ও বালু দিয়ে মরদেহগুলো ঢাকা ছিল। বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মরদেহগুলো আল–আসসাফ পরিবারের সদস্যদের।

ধারণা করা হচ্ছে, ওই এলাকায় ইসরায়েলি বাহিনী অনুপ্রবেশের পর তল্লাশিচৌকি স্থাপন করে। নিহতরা সেই চৌকি পার হওয়ার সময় তাদের হত্যা করা হয়।

এবার আবারও সেখানে বড় ধরনের হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে দখলদাররা। এতে বাসিন্দাদের মধ্যে তীব্র আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আলজাজিরার প্রতিবেদন অনুযায়ী, গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের হামলা কমার কোনো লক্ষণ নেই। ছোট্ট এই উপত্যকার উত্তর, মধ্য ও দক্ষিণ অঞ্চলে দিনরাত বোমা ও স্থল হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েলি বাহিনী।

অন্যদিকে গাজা সিটিতে ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠীর সদস্য এবং ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। যদিও এই শহরে অভিযান সম্পন্ন করার দাবি করে আসছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী।

গত ৭ অক্টোবর দক্ষিণ ইসরায়েলে প্রবেশ করে নজিরবিহীন হামলা চালিয়ে ১২০০ ইসরায়েলিকে হত্যার পাশাপাশি প্রায় ২৫০ ইসরায়েলি ও বিদেশি নাগরিককে গাজায় বন্দি করে নিয়ে আসে হামাস। একই দিন হামাসকে নির্মূল এবং বন্দিদের মুক্তি নিশ্চিত করতে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী এই সংগঠনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে ইসরায়েল।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন

মন্তব্য করুন

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

বুধবার ঢাকার যেসব এলাকায় যাবেন না

ইতিহাসের এই দিনে স্মরণীয় যত ঘটনা

২২ মে : নামাজের সময়সূচি

অবসরের পরেও চেয়ারে তিনি, ৩ দিনে ৩৪ কোটি টাকার ঘুষ

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় শিক্ষার্থী নিহত

বিনা টিকিটে ১২ বছর রেল ভ্রমণ, অতঃপর...

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারী শ্রমিককে যৌন হয়রানি

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের প্রথম জার্নাল প্রকাশিত

প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটিতে ‘সেমিস্টার ডে ২০২৪’ উদ্‌যাপন

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শ্রাবণের ওপর হামলার অভিযোগ

১০

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিলেন ফখরুল

১১

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ধরাশায়ী হলো বাংলাদেশ

১২

রাজধানীতে বিটিআরসির অভিযান, সরঞ্জামাদি জব্দ

১৩

৫৪ মণ ওজনের গরু প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে চান হামিদা

১৪

নরসিংদীতে বিদ্যুৎস্পর্শে ঝলসে গেছে দুই শিক্ষার্থী

১৫

হবিগঞ্জে খড়ের গাদা থেকে পড়ে কৃষকের মৃত্যু

১৬

কুমিল্লায় শিশু হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

১৭

মৌলভীবাজারে গরম মসলার বাজারে অভিযান

১৮

শাবি কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রমজান, সম্পাদক জাবেদ

১৯

নরসিংদীতে নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন

২০
X